June 28, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, June 10th, 2022, 8:50 pm

দীঘিনালায় ব্যবসায়ীকে হত্যার পর দেহ থেকে মাথা কেটে নিয়ে গেছে খুনী

জেলা প্রতিনিধি, খাগড়াছড়ি :
খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীকে জবাই করে হত্যার পর দেহ থেকে মাথা কেটে নিয়ে গেছে হত্যাকারীরা। শুক্রবার(১০ জুন) পুলিশ জাহাঙ্গীর আলম (৫০) নামে ওই ব্যবসায়ীর মস্তকবিহীন মরদেহ উদ্ধার করেছে। তিনি উপজেলার পূর্বহাজাছড়া গ্রামের বাসিন্দা ও মৃত শফি উল্লাহর ছেলে বলে জানাগেছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (১০ জুন) সকালে হাজাছড়া যাওয়ার পথে ডোবার পাড়ে নিহতের লাশ পড়ে থাকতে দেখেন এলাকাবাসী। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মস্তক বিহীন লাশ উদ্ধার করেন। এসময় আলু ডাল, বিস্কুট ইত্যাদি বাজার সদাই হাতে ছিলো। ঘটনার পর থেকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও জাহাঙ্গীর আলমের মাথা উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

স্থানীয়রা অনেকেই জানান, বাজার থেকে ফেরার পথে বৃহস্প্রতিবার মধ্যরাতে এঘটনা ঘটতে পারে। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন খাগড়াছড়ি সদর সার্কেল জিনিয়া চাকমা এবং দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম পেয়ার আহমেদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। নিহতের মাথা উদ্ধার করার জন্যে পুকুরে জাল টানা হয়েছে। কিন্ত মাথা খুজে পাওয়া যায়নি।

নিহতের স্ত্রী খাদিজা বিবি (৩৫) জানান, তার স্বামী উদ্দীনের দোকানে কারিগর হিসেবে চাকরি করতো। সেখানে বেতন বাড়ানো নিয়ে দু’জনের সাথে ঝগড়া হয়। পরে সেখান থেকে চাকরি ছেড়ে দিয়ে ৯ মাস আগে নতুন করে নিজেই দোকান দেয়। নিহতের শ্বশুর জাহাঙ্গীর আলম জানান, আমার মেয়ে জামাই জাহাঙ্গীর আলম খুবই সহজ সরল মানুষ। কেনই বা তাকে নির্মমভাবে খুন করা হলো জানিনা।জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী ছাড়াও সাদিয়া আক্তার (১১) ফাহিমা আক্তার (৬) এবং মহিমা আক্তার (১) তিন কন্যা সন্তান রয়েছেমেরুং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের বিচ্ছিন্ন মাথা উদ্ধারের চেস্টা চলছে।