October 6, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, September 6th, 2022, 7:33 pm

দেশের হকিতে ফ্র্যাঞ্চাইজি লীগ

অনলাইন ডেস্ক :

নতুন যুগের সূচনা হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের হকিতে। দেশে একসময় ফুটবল, ক্রিকেটের পরই জনপ্রিয় ছিল হকি খেলা। তবে কালের বিবর্তনে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা বাংলাদেশের হকি যেন দিন দিন হারিয়েই যেতে বসেছিল। সেই জনপ্রিয়তা ফেরাতে এবার ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক লিগ চালু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন। নতুন এ যাত্রার মাধ্যমেই দেশের হকি প্রবেশ করবে নতুন যুগে। হকি ফেডারেশনের এই উদ্যোগে পাশে দাঁড়িয়েছে দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপ। বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি (বিসিটি) নামের টুর্নামেন্টটির পৃষ্ঠপোষকতা করছে বসুন্ধরা গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান এসিই। এসিই’র সঙ্গে পাঁচ বছরের জন্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে হকি ফেডারেশনের। গত সোমবার রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে বেশ জমকালো আয়োজনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হকি ফেডারেশনের সভাপতি ও বিমান বাহিনীর প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল শেখ আবদুল হান্নান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান এবং এসিই’র চিফ প্যাট্রন সাফওয়ান সোবহান। ছয়টি বিভাগের নামে ছয়টি দল নিয়ে শুরু হচ্ছে উদ্বোধনী আসর। ইতোমধ্যেই দেশের পাঁচটি বড় গ্রুপ পাঁচটি ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকানা নিয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় চমক ছিল সাকিব আল হাসানের মালিকানাধীন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান মোনার্ক মার্ট লিমিটেড। এই প্রথম দেশের কোনও ক্রিকেটার অন্য কোন খেলায় দল কিনলেন। হকিকে এগিয়ে নিতেই দল কিনেছেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। মোনার্ক মার্ট ছাড়াও দল নিয়েছে একমি গ্রুপ, ওয়ালটন গ্রুপ, সাইফ পাওয়ারটেক এবং রূপায়ন গ্রুপ। আর একটি দলের নাম এখনও প্রকাশ করা হয়নি। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এই টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য দুই বছর থেকে চেষ্টা করছিলেন বলে জানিয়েছেন এসিই’র সিইও ইশতিয়াক সাদেক। তিনি জানান, ‘প্রায় দুই বছর আগে থেকে আমরা চেষ্টা করেছিলাম ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক হকি টুর্নামেন্ট আয়োজন করার। নানা কারণে তা হয়ে উঠছিল না। বিমান বাহিনীর প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল শেখ আবদুল হান্নান হকি ফেডারেশনের দায়িত্ব নেওয়ার পর তাতে গতির সঞ্চার হয়েছে। ’অক্টোবরের তৃতীয় সপ্তাহে এই টুর্নামেন্ট মাঠে গড়ানোর কথা রয়েছে। টুর্নামেন্টে মোট ম্যাচ হবে ৩৪টি। প্রতি দলে খেলোয়াড় থাকবেন ১৮ জন। ৬টি বিভাগীয় দলে ৬ জন আইকন খেলোয়াড় থাকবে। প্রতি দলে চার জন করে বিদেশি খেলোয়াড় রেজ্রিস্ট্রেশন করাতে পারবে, একাদশে খেলাতে তিন জন করে। প্রতি দলে থাকবে বিদেশি কোচও। ম্যাচ পরিচালনার জন্য এই লিগে মানসম্মত বিদেশি আম্পায়ারের ব্যবস্থাও করা হবে।