December 6, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, October 26th, 2021, 12:08 pm

ধানক্ষেতের মাঝে সেতু, ব্যবহার হয় ‘সেলফি’ তোলায়!

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড় পলাশবাড়ী গড়িয়ালি গ্রামের ধানক্ষেতের মাঝখানে খালের ওপর নির্মিত একটি সেতু চার বছর আগে নির্মিত হলেও সংযোগ সড়কের অভাবে অব্যবহৃত পড়ে আছে।

তবে সবুজের মাঝে গড়ে উঠা সেতুর সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে এখানে অনেকেই সেলফি ও ছবি তুলতে আসে। তাই কেউ কেউ এই সেতুকে এখন সেলফি সেতু নামেও চেনে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সেতু ও কালভার্ট নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ২০১৬-১৭ সালে সেতুটি নির্মাণ করা হয়। এতে প্রায় ৪০ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে।

সরেজমিনে গড়িয়ালি গ্রামের ওই সেতু এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ওই গ্রামের হিন্দুপাড়া সংলগ্ন খালের ওপর সেতুটি দৃশ্যমান থাকলেও দুই পাশে নেই কোন সংযোগ সড়ক। সেতুর ওপর দিয়ে যানবাহন তো দূরের কথা পায়ে হেঁটেও যাতায়াত করে না কেউ। ফলে সেতুটি কোনো কাজেই আসছে না স্থানীয়দের।

 

হিন্দুপাড়া এলাকার সিরাজুল মিয়া বলেন, ‘খালের ওপরে কেন সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে তা কেউ জানে না। এখানে এই সেতুটির কোন দরকারই ছিল না। সেতু হলেও রাস্তা না হওয়ায় এটা আমাদের কোন কাজে আসছে না।’

 

বড় পলাশবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘২০১৬-১৭ সালে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের প্রকল্পের আওতায় সেতুটি নির্মাণ হয়। কিন্তু কোন যানবাহন এই সেতু দিয়ে চলাচল করে না। সেতুটির সংযোগ সড়ক নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি।’

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাইদুর রহমান বলেন, ‘সেতুটির সঙ্গে সংযোগ সড়ক তৈরি করা দরকার। আমরা প্রযয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) যোবায়ের হোসেন বলেন, আমার যোগদানের আগেই সেতুটি নির্মাণ হয়েছে। সেতু নির্মাণেরর পর মানুষ চলাচল করে না সেই বিয়ষটি আমার জানা নেই।

সেতুটি পরির্দশন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে ইউএনও জানিয়েছেন।

—ইউএনবি