June 26, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, June 17th, 2022, 7:33 pm

নওগাঁর আম খেয়ে যা বললেন অপু বিশ্বাস

অনলাইন ডেস্ক :

আমি জানতাম চাঁপাইনবাবগঞ্জ আম উৎপাদনে দেশ সেরা। কিন্তু বর্তমানে নওগাঁতেও যে প্রচুর পরিমানে আমের আবাদ হচ্ছে তা সত্যিই দারুন এক ব্যাপার বলে মন্তব্য করেছেন জনপ্রিয় চলচিত্র অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। গত বুধবার বিকেলে নওগাঁর সাপাহারে হারুনুর রশীদ কমিউনিটি সেন্টারে এলিট ফার্নিচার মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। অপু বিশ্বাস বলেন, আমার জন্মস্থান নওগাঁর পার্শ্ববর্তী জেলা বগুড়াতে। ছোট বেলায় বেশ কয়েক বার নওগাঁতে এসেছিলাম। তাছাড়া আমার বড় বোন এই এলাকায় বসবাস করে। যার কারণে নওগাঁতে তো মাঝে মধ্যে আসা-যাওয়া হবেই। সবমিলে নওগাঁকে খুব আপন মনে হয়। নওগাঁতে এসেছেন এ জেলার ধান,চাল ও আমের জন্য বিখ্যাত। আম কি খেয়েছেন এমন প্রশ্নের জবাবে অপু বিশ্বাস বলেন, সবাই জানে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আমের জন্য বিখ্যাত কিন্তু বেশ কয়েক বছর থেকে নওগাঁও আমের জন্য বেশ খ্যাতি অর্জন করেছে। আমি এসেই এখানকার আম খেয়েছি আমার পুরো সফরসঙ্গীদের নিয়ে। অনেক সুস্বাদু ও চমৎকার আম। কিছু আম সাথে নিয়ে যাচ্ছি। আগামীতে নওগাঁর আম শুধু দেশের মধ্যে নয়,বাহিরের দেশেও ভালো সুনাম অর্জন করবেন বলে আশা করছি। দর্শকদের সামনে কি উপহার দিচ্ছেন এমন প্রশ্নের জবাবে অপু বলেন, সিনেমায় আবারো মনোনিবেস করেছি। তিন মাস আগে আমার ও বাপ্পির অভিনীত শ্বশুর বাড়ি জিন্দাবাদ-২ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। যা দর্শকমহলে ভালো সাড়া পড়েছে। দর্শকদের আগ্রহে আমি সত্যিই মুগ্ধ। অপু বলেন, সামনে আমার অভিনীত আরো তিনটি ছবি মুক্তি পাবে। সিনেমাগুলো হলো, ছাঁয়াবৃক্ষ, প্রেমপ্রিতির বন্ধন এবং ঈষাখাঁ। আশা করছি ছবিগুলো মুক্তি পেলে দর্শকরা আবার হলে গিয়ে সিনেমা গুলো দেখবেন। সবাইকে বাংলা সিনেমা দেখার আহবান জানিয়ে বলেন, বাংলা ও বাঙালির সংস্কৃতির অংশ দেশীয় সিনেমা। প্রিয় দর্শকরায় সিনেমার প্রাণ। আমি আবারো আশা করছি দর্শকরা হলে গিয়ে পরিবার নিয়ে সিনেমা দেখবেন এবং বাংলা সিনেমার সাথেই থাকবেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ছোট পর্দার অভিনেতা ইমরান হাসো। এলিট ফার্নিচারের এজিএম রফিকুল ইসলাম, মার্কেটিং ম্যানেজার আমিরুল ইসলাম, প্রোডাকশন ম্যানেজার দিদারুল আলম, একাউন্টস ম্যানেজার নাজমুল ইসলাম, ডিলার মাহবুবুর রহমান, ব্যান্ড ম্যানেজার শাকিল রাব্বানি স্থানীয় ডিলাররা উপন্থিত ছিলেন।