June 24, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, October 23rd, 2023, 8:11 pm

নতুন অভিজ্ঞতার মুখে মনিরা মিঠু

অনলাইন ডেস্ক :

২১ বছরের অভিনয় ক্যারিয়ারে স্ক্রিনে শতশত চরিত্রের মাধ্যমে দর্শক হৃদয়ে ঠাঁই পেয়েছেন মনিরা মিঠু। তবে এবার তিনি অন্যরকম এক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলেন। এই অভিনেত্রী জানালেন, ‘অসময়’র মাধ্যমে প্রায় ২৫ বছর আগে নিজের অতীত খুঁজে পেয়েছেন! সম্প্রতি শেষ হওয়া কাজল আরেফিন অমি পরিচালিত ‘অসময়’ ওয়েব ফিল্মে মনিরা মিঠু যে চরিত্র পোট্রে করেছেন, এর ম্যাক্সিমাম দৃশ্য এই অভিনেত্রীর ব্যক্তিগত জীবনের সঙ্গে মিলে গেছে! ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’-খ্যাত নির্মাতা অমি জানান, গল্পে মনিরা মিঠু পাগলের মত স্বামী সন্তান পরিবার ভক্ত স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন। হঠাৎ এক দুর্ঘটনায় তার সবকিছু তছনছ হয়ে যায়। পরিচালক বলেন, মিঠু আপার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে খুব বেশি জানিনা। নিজের মতো করে গল্প ও চরিত্র তৈরি করেছি। এতে করে তার জীবনের সঙ্গে কিছুটা মিলে গেছে। সমাজের অনেককিছু এতে তুলে ধরেছি। এতে অনেকগুলো এঙ্গেল উঠে আসবে। এদিকে, এই কাজটি করে ভীষণ আবেগে আপ্লূত হয়েছেন মনিরা মিঠু।

সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের পরিচালনায় কয়েকটি কাজে নিজের জীবনের সামান্য কিছু মিল পেয়েছি। কিন্তু ‘অসময়’-এ বেশীরভাগ দৃশ্যই আমার জীবনে ঘটে যাওয়া ঘটনা মনে হয়েছে। এজন্য কাজটি আমার কাছে কঠিন লেগেছে। শুটিংয়ে কিছুটা ভীতু থাকতাম। অন্যান্য শুটিংয়ে যেমন মজা করতাম, এটায় একেবারে তেমনটি হয়নি। অনেকসময় পর মনে হতো, অনেকসময় ধরে হাসি না। নিজের সঙ্গে কথা বলতাম। প্রতিটি দৃশ্যই ‘ওকে’ হওয়ার পর মনে হতো অসাধ্য সাধন করেছি। হৃদয়ে রক্ত ক্ষরণ অনুভব করেছি। ২১ বছরের ক্যারিয়ারে অমি আমাকে এই চরিত্রের মাধ্যমে কি করিয়েছে, প্রতি মুহুর্তে অনুভব করেছি। মনিরা মিঠু জানান, অসময়ের শুটিংয়ে তার এই পরিবর্তন কেউ খেয়াল করেছে কিনা তার জানা নেই। তবে তার নিজেকে আড়াল রাখার এক ব্যর্থ চেষ্টা ছিল।

তিনি বলেন, পুরো অসময়ের শুটিংয়ে পর্দার আড়ালে যা যা করেছি এটা ছিল আমার কাছে সবচেয়ে বড় অভিনয়। আমি মনে করি, যদি আমার ব্যক্তিজীবনের সঙ্গে মিলে না যেত তবে আমি হয়তো আরও বেটার কিছু করতাম। শুটিংয়ে বারবার মনে হচ্ছিল, আমি ফ্ল্যাশ ব্যাকে চলে যাচ্ছি। একজন মনিরা মিঠুর জীবনে অনেক গল্প আছে। ২৫ বছর, ২২ বছর এবং ১১ বছর আগে জীবনে কি ঘটেছিল সেই তিনটি অধ্যায় হুবহু মিল পেয়েছি। ‘অসময়’র মূলত এ সময়ের গল্প, চরিত্রটি মনিরা মিঠুর কাছে একেবারেই এক্সক্লুসিভ। তাই আগেই স্পয়লার দিতে চাইলেন না তিনি।

বললেন, আমার ব্যক্তিজীবনে অনেক হাহাকার, চাপা কষ্ট, চিৎকার, ক্ষোভ আছে। এজন্য জীবনকে আমার কাছে সবসময় মনে হয় ‘অসময়’র। অল্প বয়সে বিয়ে হয়েছিল, মা হয়েছিলাম; অসময় কিন্তু তাই! ব্যক্তি মনিরা মিঠু আজ থেকে ৩০ বছর আগে আলাভোলা টাইপের ছিল। অসময় কিন্তু তাই! শুটিং করে মনে হচ্ছিল, ত্রিশ বছর আগে এই নির্বোধ মানুষ তো আমি ছিলাম। এগুলো সাধারণ মানুষের অজানা কিন্তু কাজটি দেখলে যারা আমাকে কাছ থেকে চেনেন তারা বুঝবেন আমার সঙ্গে মিলটা কোথায়! অমি যেদিন প্রথম আমাকে গল্প শোনায় যেদিন সে কেঁদেছিল, আমিও কেঁদেছিলাম। আমার জীবনের সঙ্গে এই চরিত্রটি মিলেছে হয়তো অনেকের সঙ্গে মিলে যাবে। তবে অমি আমাকে এতটুকুই বলছিল, আপা এই চরিত্রটি তৈরি করেছি শুধু আপনার জন্য।

বঙ্গের প্রযোজনায় নির্মিত ‘অসময়’ ওয়েব ফিল্মের অন্যান্য চরিত্রগুলোতে অভিনয় করেন তারিক আনাম খান, তাসনিয়া ফারিণ, ইরেশ যাকের, ইন্তেখাব দিনার, শরাফ আহমেদ জীবন, রুনা খান, লামিমা প্রমুখ। নির্মাতা জানান, আগামী ডিসেম্বরে এটি বঙ্গ অ্যাপে মুক্তির সম্ভাবনা আছে।