October 26, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, October 14th, 2021, 6:53 pm

নারী নির্যাতনের অভিযোগে ছ’মাসের জেল লুকাস হার্নান্দেজের

অনলাইন ডেস্ক :

২০১৮ সালে অভিষেক, সেবছরই ফ্রান্সের হয়ে বিশ্বকাপ জয়। এখন আবার জাতীয় দলে ছোট ভাই থিও হার্নান্দেজের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছেন লুকাস হার্নান্দেজ। বায়ার্ন মিউনিখ তারকার সুসময়ে বাঁধ সাধলো তারই কৃতকর্ম। স্ত্রী আমেলিয়া ইয়োরেন্তকে নির্যাতনের অভিযোগে ছয় মাসের জেল খাটতে হবে লুকাস হার্নান্দেজকে। বুধবার মাদ্রিদের একটি আদালত ফরাসি ডিফেন্ডারের বিরুদ্ধে এই রায় ঘোষণা করেন। স্বেচ্ছায় কারাগারে যাওয়ার জন্য ১০ দিন সময় পাবেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের সাবেক এ ফুটবলার। পছন্দমত কারাগারও বেছে নিতে পারবেন। অবশ্য জেল এড়াতে আপিল করেছেন ২৫ বছর বয়সী হার্নান্দেজ। ২০১৯ সালে বায়ার্ন মিউনিখে যোগ দেয়ার আগে স্প্যানিশ লা লিগার ক্লাব অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে খেলতেন লুকাস। ২০১৭ সালে প্রেমিকা আমেলিয়া ইয়োরেন্তকে নির্যাতন করার অভিযোগ ওঠে ফরাসি ডিফেন্ডারের বিরুদ্ধে। ঘটনায় হাসপাতালেও যেতে হয় প্রেমিকা আমেলিয়াকে। তবে কেউ কারও বিরুদ্ধে তখন অভিযোগ করেননি। কিন্তু স্পেনের সরকারি কৌঁসুলি অভিযোগ দাখিল করেছিলেন দুজনের বিরুদ্ধেই। বান্ধবীর সঙ্গে সহিংস আচরণ করায় তার ৫০০ মিটারের মধ্যে না যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত। কিন্তু কয়েক মাস পর ঝামেলা মিটে গেলে এক সঙ্গে ঘুরতে যান দুজনে। আদালতের নির্দেশ অমান্য করায় মাদ্রিদ বিমানবন্দরে আটক হন হার্নান্দেজ। পরে অবশ্য বিয়ে করেন নেন লুকাস-ইয়োরেন্ত যুগল। স্প্যানিশ দৈনিক মার্কার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, স্পেনের আইন অনুযায়ী, সাজার মেয়াদ দুই বছরের কম হলে জেলে যেতে হয় না। কিন্তু হার্নান্দেজের বিষয়টি আলাদা। একই ভুলের পুনরাবৃত্তি করায় তাকে কারাবাসের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। ২০১৯ সালে বুন্দেসলিগার রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে লুকাস হার্নান্দেজকে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ থেকে কিনে নেয় বায়ার্ন মিউনিখ। ২০১৪-২০১৯ সাল পর্যন্ত লা লিগার ক্লাবটির হয়ে মোট ৬৭টি ম্যাচ খেলেছেন লুকাস। আর বায়ার্ন মিউনিখে তার ম্যাচ সংখ্যা ৪৬। আন্তর্জাতিক ফুটবলে এখন পর্যন্ত ২৯টি ম্যাচ খেলেছেন এই ফরাসি ডিফেন্ডার।