May 27, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, April 4th, 2022, 8:01 pm

নিউক্যাসলকে উড়িয়ে দিয়ে চতুর্থ স্থানে উঠে এলো টটেনহ্যাম

অনলাইন ডেস্ক :

ঘরের মাঠে নিউক্যাসলকে ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত করে প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে টটেনহ্যাম। আরেক ম্যাচে এভারটনের বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় নিশ্চিত করেছে ওয়েস্ট হ্যাম। এই পরাজয়ে এভারটন রেলিগেশন শঙ্কায় পড়েছে। এন্টোনিও কন্টের স্পার্সরা এ নিয়ে শেষ ৬ ম্যাচে পঞ্চম জয় নিশ্চিত করলো। যদিও টটেনহ্যামের মাঠে ফাবিয়ান শার গোল করে প্রথমে নিউক্যাসলকে এগিয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি স্পার্সদের। বেন ডেভিস বিরতির ঠিক আগে উত্তর লন্ডনের ক্লাবটিকে সমতায় ফেরান। বিরতির পর একে একে ম্যাট দোহার্তি, সন হেয়াং-মিন, এমারসন রয়্যাল ও স্টিভেন বার্গউইন গোল করলে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা। বড় এই জয়ে আর্সেনালকে গোল ব্যবধানে পিছনে ফেলে টেবিলের চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে কন্টের শিষ্যরা। যদিও কন্টে এখনো বলে চলেছেন শীর্ষ চারে থেকে মৌসুম শেষ করা অনেকটাই অলৌকিক ঘটনার মত। তারপরেও আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ পর্যন্ত জায়গা করে নেবার ক্ষেত্রে টটেনহ্যামকেই অনেকে এগিয়ে রেখেছে। এ সম্পর্কে কন্টে বলেন, ‘চ্যাম্পিয়ন্স লিগের লড়াইয়ে টিকে থাকাটা সত্যিই কঠিন। শেষ পর্যন্ত আমারা সেখানে থাকতে চাই। এভাবেই গভীরতা নিয়ে আমরা প্রতিটি ম্যাচে এগিয়ে যেতে চাই। আমি সত্যিই দারুন খুশী। মূলত আন্তর্জাতিক বিরতির আগেই আমি খুশী ছিলাম। আমাদের আটকানো তখন থেকেই কঠিন ছিল। আজও আমি খেলোয়াড়দের বলেছিলাম বিরতির আগে যেখানে শেষ করেছিলে ঠিক সেখান থেকেই শুরু করতে। আমরা জানি আমাদের হাতে আর মাত্র আটটি ম্যাচ বাকি আছে। আর্সেনালের হাতে বেশী ম্যাচ থাকায় তারা কিছুটা সুবিধাজনক অবস্থানে থাকলেও আমাদের বিপক্ষে এই মুহূর্তে খেলাটা যেকোন দলের জন্যই কঠিন।’ ৩৯ মিনিটে শারের ফ্রি-কিক থেকে নিউক্যাসল এগিয়ে গিয়েছিল। পুরো ম্যাচে এই একটি শটই আটকাতে পারেননি স্পার্স গোলরক্ষক হুগো লোরিস। কিন্তু চার মিনিট পরেই সনের ক্রস থেকে ডেভিস ছয় গজ দূর থেকে বল জালে জড়িয়ে সমতা ফেরান। ২০১৭ সালের পর প্রিমিয়ার লিগে এটি ডেভিসের প্রথম গোল।
৪৮ মিনিটে ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেনের অসাধারণ ক্রসে দোহার্তি খুব কাছে থেকে হেডের সাহায্যে টটেনহ্যামকে এগিয়ে দেন। তখনো আর্সেনালকে ছাড়িয়ে যাবার জন্য আরো এক গোলের প্রয়োজন ছিল। ৬ মিনিট পর কেনের পাস থেকে দিয়ান কুলুসেভিস্কির ক্রসে সন ব্যবধান দ্বিগুন করেন। মৌসুমে এটি দক্ষিণ কোরিয়ান তারকার ১৫তম গোল। ৬৩ মিনিটে দোহার্তির ক্রস থেকে এমারসন টটেনহ্যাম ক্যারিয়ারে নিজের প্রথম গোল করেন। সাত মিনিট পর বদলী বেঞ্চ থেকে উঠে এসে বার্গউইন দলের হয়ে পঞ্চম গোলটি করেন।
নভেম্বরে বরখাস্ত হওয়া নুনো এস্পিরিতো সান্তোর পরিবর্তে লন্ডনের ক্লাবটিতে যোগ দিয়েছিলেন কন্টে। তারপর থেকেই স্পার্সদের ভাগ্য বদলে যায়।
এদিকে লন্ডন স্টেডিয়ামে এভারটনকে পরাজিত করে ডেভিড ময়েসের দল টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছে। পায়ের ইনজুরি কাটিয়ে প্রায় মাসখানেক পর দলে ফিরেই হ্যামার্সদের জয় উপহার দিয়েছেন জেরড বোয়েন। দ্বিতীয়ার্ধে তার গোলেই ওয়েস্ট হ্যামের জয় নিশ্চিত হয়। ৩২ মিনিটে দুর্দান্ত ফ্রি-কিকে হ্যামার্সদের এগিয়ে দিয়েছিলেন এ্যারন ক্রেসওয়েল। বিরতির ঠিক পরপরই ম্যাসন হোলগেট সমতা ফেরান।
দ্বিতীয়ার্ধের মাঝামাঝিতে মাইকেল কিন দ্বিতীয় হলুদ কার্ড পেয়ে মাঠত্যাগ করলে এভারটনের লড়াইয়ের আশা শেষ হয়ে যায়। এনিয়ে শেষ ৬ ম্যাচে পঞ্চম পরাজয়ে রেলিগেশন জোন থেকে এখন আর মাত্র তিন পয়েন্ট দুরে রয়েছে ফ্রাংক ল্যাম্পার্ডের দল। তলানির থেকে তৃতীয় স্থানে থাকা ওয়াটফোর্ডের থেকে দুই ম্যাচ কম খেলেছে এভারটন। কিন্তু সাম্প্রতিক পারফরমেন্সে তাদের নিয়ে বড় ঝুঁকি থেকেই যাচ্ছে। বুধবার তলানির আরেক দল বার্নলির বিপক্ষে ম্যাচটি এভারটনের বেঁচে থাকার জন্য গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।
ওয়েস্ট হ্যাম আগের তিন ম্যাচের মধ্যে দুটিতেই পরাজিত হয়ে টটেনহ্যাম ও আর্সেনালের থেকে মাত্র তিন পয়েন্ট পিছনে রয়েছে।