November 27, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, June 21st, 2021, 9:33 pm

নির্বাচনী সহিংসতায় ২ মৃত্যু: প্রার্থীদের উপরেই দায় চাপালো ইসি

ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্ক :

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপ-নির্বাচন, ২০৪ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন ও দু’টি পৌরসভার নির্বাচনে দু’জন নিহত হওয়া ঘটনার দায় প্রার্থীদের উপরেই চাপিয়ে দিলো নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সংস্থাটির সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, যেহেতু প্রার্থীদের নিজেদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় নিহত হয়েছে তাই প্রার্থীরাই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন। নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে গতকাল সোমবার ভোটগ্রহণ পরবর্তী এক সংবাদ সম্মলনে তিনি একথা বলেন। হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, প্রথম ধাপে ২০৪টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এ নির্বাচন কেন্দ্রে করে প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের জেরে দু’জন নিহতের ঘটনা ঘটেছে। কোনো মৃত্যুই কাম্য নয়। তিনি বলেন, আজ (গতকাল সোমবার) সারাদেশে শান্তিপূর্ণভাবে লক্ষ্মীপুর-২ শূন্য আসন, দু’টি পৌরসভা ও প্রথম পর্যায়ের ২০৪টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ইউপি নির্বাচনে কয়েকটি অনাকাক্সিক্ষত ঘটনার সৃষ্টি হয়েছে। এতে দু’জন নিহত হয়েছেন। ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কেন্দ্রের বাইরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত হন। এছাড়া, বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কমলাপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে জালভোট দেওয়ার অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষ প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে একজন নিহত হন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যেহেতু প্রার্থীদের নিজেদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় নিহত হয়েছে তাই প্রার্থীরাই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন। ইসি সচিব বলেন, দু’একটি অনাকাক্সিক্ষ ঘটনা ছাড়া ভোট শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচনে পর্যাপ্ত আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন ছিল। ভবিষ্যতে আর কী কী ব্যবস্থা নিলে এ ধরনের অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা আর ঘটবে না তা পরবর্তীসময়ে পর্যালোচনা করা হবে। তিনি আরও বলেন, নির্বাচন কমিশন থেকে সারাদেশে অনুষ্ঠিত নির্বাচন মনিটরিং করা হয়েছে। এ ছাড়া বিভিন্ন মিডিয়ায় যেসব খবর প্রচারিত হয়েছে তার উপর ভিত্তি করেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। লক্ষ্মীপুর-২ আসনে ইভিএম এর মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। স্থগিত থাকা নির্বাচন ঈদের আগে অনুষ্ঠিত হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, কমিশন এ বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। পরবর্তী সভায় এ বিষয়ে আলোচনা করা হবে। ইউপির পরবর্তী ধাপের নির্বাচনের বিষয়েও কমিশন সভায় আলোচনার মাধ্যমে জানানো হবে। গতকাল সোমবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।