July 17, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, July 14th, 2022, 7:56 pm

নিয়ম রক্ষার ম্যাচে ‘বেঞ্চ স্ট্রেংথ’ পরখ!

অনলাইন ডেস্ক :

সিরিজ জয় নিশ্চিত হয়ে গেছে প্রথম দুই ম্যাচেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচকে তাই এখন পরীক্ষা-নিরীক্ষার মঞ্চ হিসেবে দেখছে বাংলাদেশ। যারা খুব বেশি সুযোগ পান না বা ম্যাচের বাইরে থাকেন, তাদেরকে এই ম্যাচে বাজিয়ে দেখা হবে, নিশ্চিত করে দিয়েছেন কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ও অধিনায়ক তামিম ইকবাল। প্রয়োজনে তামিম নিজেও একাদশের বাইরে থাকতে পারেন বলে জানিয়েছেন নিজেই। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগ চালু হওয়ার পর ওয়ানডে ক্রিকেটে যোগ হয়েছে নতুন মাত্রা। এই সিরিজের অংশ কোনো ম্যাচকেই এখন আর হালকা ভাবে বা কম গুরুত্ব দেওয়ার সুযোগ নেই। প্রতিটি ম্যাচই সেখানে পয়েন্ট পাওয়ার সুযোগ। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এই সিরিজটি সুপার লিগের অংশ নয়। সেই সুযোগটিই নিতে চায় বাংলাদেশ। বাংলাদেশের ক্রিকেটে অবশ্য এটির চর্চা খুব কম। সুপার লিগ চালুর আগেও নতুনদের পরখ করার ব্যাপার খুব একটা দেখা যায়নি। একটা সময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খুব বেশি জয় পায়নি দল। তাই প্রতিটি ম্যাচেই সবকিছুর আগে ভাবনায় থাকত জয়, পরীক্ষা-নিরীক্ষার আলোচনা হালে পানি পেত না। তবে এখন ওয়ানডেতে দল বেশ ধারাবাহিক। সিরিজ জয়ের লক্ষ্যও পূরণ হয়েছে। দ্বিতীয় ম্যাচ শেষে গায়নায় সংবাদমাধ্যমকে তামিম বললেন, সুযোগটি এখন তৈরি হয়েছে। “এখন আমাদের সময় এসেছে ‘বেঞ্চ স্ট্রেংথ’ দেখে নেওয়ার। সাধারণত যখন পয়েন্টসের ব্যাপার থাকে, তখন সুযোগ থাকে না। কিন্তু এরকম সিরিজে যদি ২-০তে এগিয়ে যান, তখন যারা খেলেনি বা যাদেরকে নিয়ে আমরা অনেক দিন ধরে ঘুরছি, তাদের সুযোগ দেওয়া উচিত। এটির জন্য আমারও এক-দুই ম্যাচ মিস করতে হলে, ইটস ফাইন। কোনো সমস্যা নেই।” “বেঞ্চ স্ট্রেংথ অবশ্যই আমাদের পরীক্ষা করা উচিত। এই একটা জিনিস বাংলাদেশের ক্রিকেটে আমরা খুব কম করি। সব ম্যাচ তো আমরা অবশ্যই জিততেই চাই। তবে মাঝেমধ্যে এটা করা খুব জরুরি, বিশেষ করে ওয়ানডেতে। কারণ, কে জানে, বড় সিরিজে গিয়ে দুজন গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার চোট পেতেই পারে।” তামিমের মতে, বাইরে থাকাদের পরখ করে নিতে এর চেয়ে ভালো সুযোগ আর পাবে না দল। “এই জায়গায় যদি আমরা বাইরে থাকাদের দেখতে না পারি, তাহলে দেখব কোথায়। কারণ হঠাৎ যদি কেউ চোটে পড়ে যায়, তখন একটা ছেলে কোনো ম্যাচ অনুশীলন ছাড়া এসে খেললে তার কাজটা একটু কঠিন হয়ে ওঠে। তাই সম্ভবত শেষ ম্যাচে এরকম অনেকে খেলবে, যারা খুব বেশি খেলেনি।” একই কথা শোনা গেল ডমিঙ্গোর কণ্ঠেও। দ্বিতীয় ম্যাচ শেষে টিভিতে ধারাভাষ্যকার ইয়ান বিশপের সঙ্গে আলোচনায় বাংলাদেশ কোচ বললেন, ২০২৩ বিশ্বকাপে তাকিয়ে হলেও এবারের সুযোগটি নিতে হবে বাংলাদেশকে। “শেষ ম্যাচটি আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটা দিক থেকে। এতদিনে এত গুরুত্বপূর্ণ সব ওয়ানডে সিরিজ খেলেছি, যেখানে পয়েন্ট খুব জরুরি। দলে পরিবর্তনের কথা খুব একটা ভাবনায় আনা যায়নি। তবে এখানে সুযোগ আছে পরখ করার। কারণ ২০২৩ বিশ্বকাপে তাকিয়ে কিছু ক্রিকেটারকে দেখে নেওয়ার ব্যাপার আছে।” “এখানে পয়েন্টের কোনো ব্যাপার নেই। বাইরে থাকাদের পরখ করার দারুণ সুযোগ এটি।” ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে রেকর্ড রান করে জাতীয় দলে ফেরা এনামুল হক শনিবার সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে মাঠে নামবেন, এটা নিশ্চিত ধরে নেওয়া যায় এখন। সঙ্গে সুযোগ মিলতে পারে ইবাদত হোসেন চৌধুরিরও। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে একাদশে ফেরা মোসাদ্দেক হোসেনও টিকে যেতে পারেন, ফিরতে পারেন এই ম্যাচে বাইরে থাকা তাসকিন আহমেদ।