April 23, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, February 23rd, 2024, 7:50 pm

পবিত্র রমজান উপলক্ষে আমিরাতে ১০ হাজার পণ্যে মূল্য ছাড়

অনলাইন ডেস্ক :

পবিত্র রমজান উপলক্ষে বাংলাদেশে যেখানে নিত্যপ্রয়োজনীয় অনেক পণ্যের দাম লাগামছাড়া হারে বেড়ে যায়, সেখানে সংযুক্ত আরব আমিরাতজুড়ে সমবায় ও সুপারমার্কেটগুলোতে ১০ হাজার পণ্যে মূল্য ছাড় দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে দেশটির বাণিজ্য ও অর্থ মন্ত্রণালয়। মূল্য ছাড় দেওয়া এসব পণ্যের বেশির ভাগই খাদ্যপণ্য। এর মধ্যে ভোজ্য তেল, চাল ও আটার মতো বেশ কয়েকটি জরুরি পণ্যের দাম ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত কমানো হয়েছে। অ্যারাবিয়ান বিজনেসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। দেশটির বাণিজ্য ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের ভোক্তা সুরক্ষা বিভাগের পরিচালক ড. হাশিম সাঈদ আল নুয়াইমি জানিয়েছেন, নির্বাচিত পণ্যগুলো কম দামে বিক্রি করাসহ বেশির ভাগ পণ্যের ওপর ৫০ থেকে ৭৫ শতাংশ ছাড় থাকছে।

রমজানে ৪৫০টি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হবে। এসব অভিযানে সমবায় সমিতি, আউটলেট, মুদি দোকান এবং মাছ, মাংস ও মুরগির বাজারগুলোতে নজরদারি করা হবে। ওই কর্মকর্তা আরো জানান, ভোক্তাদের সুরক্ষায় এবং বাজারের স্থিতিশীলতা বাড়াতে মন্ত্রণালয় বেশ কিছু সচেতনতামূলক উদ্যোগ নিয়েছে। ভোক্তারা তাদের অভিযোগ ৬০০৫২২২২৫ নম্বরে নথিভুক্ত করতে পারবে। কল সেন্টারটি সকাল ৮টা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত খোলা থাকছে। এদিকে খালিজ টাইমস জানিয়েছে, শারজা সমবায় সমিতিও রমজান উপলক্ষে ১০ হাজার পণ্যের দাম কমানোর ঘোষণা দিয়েছে। এ ছাড়া সাপ্তাহিক অফারের অংশ হিসেবে এর বাইরেও আরো পণ্যে ছাড় দেওয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবার থেকে এই ছাড় কার্যকর হয়েছে।

শুধু মূল্য ছাড়েই থেমে থাকেনি প্রতিষ্ঠানটি। এর সঙ্গে রমজানের প্রতি সপ্তাহে দুটি সুজুকি ডিজায়ার গাড়ি, প্রতিটি পাঁচ হাজার দিরহাম মূল্যের ৩০টি আসবাবের গিফট কার্ড এবং এক হাজার দিরহাম মূল্যের ৩২টি শপিং গিফট কার্ড ক্রেতাদের দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এ ক্ষেত্রে শর্ত হলো, যারা ৩০০ দিরহাম বা এর বেশি মূল্যের পণ্য ক্রয় করবে, তারা এই ক্যাম্পেইনে অংশ নিতে পারবে। অন্যদিকে গত মঙ্গলবার দুবাইভিত্তিক খুচরা বিক্রেতা ইউনিয়ন কোপ চার হাজার পণ্যের ওপর ৫০ থেকে ৭৫ শতাংশ মূল্য ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছে। আমিরাতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বলেছে, এবারের রমজান মাসে দুবাইয়ের বাজারে শাক-সবজি এবং ফলের দৈনিক আমদানি ২১ হাজার টনে পৌঁছাবে এবং আবুধাবিতে দৈনিক আমদানি চার হাজার টন ছাড়িয়ে যাবে।