May 27, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, February 13th, 2022, 7:59 pm

পাবনায় নয়া চেয়ারম্যান দুধে ধুয়ে পবিত্র করলেন ইউনিয়ন পরিষদ!

জেলা প্রতিনিধি, পাবনা :
পাবনার বেড়া উপজেলার কৈটুলা ইউনিয়ন পরিষদ দুধে ধুয়ে গোলাপল ছিটিয়ে পবিত্র করে নিলেন নয়া চেয়ারম্যান মহসিন উদ্দিন পিপুল।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে জয় লাভের পর গত বৃহস্পতিবার তিনি শপথ গ্রহণ করেন। আর শুক্রবার ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে দুধ ঢেলে ধুয়ে পরিস্কার করে গোলাপজল ছিটিয়ে পবিত্র করে দায়িত্বভার গ্রহন করেন। এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

জানা যায়, গত ৫ জানুয়ারি পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের প্রার্থী শওকত ওসমানকে পরাজিত করে বিজয়ী হোন বিএনপি সমর্থিত এই প্রার্থী। মহসিন উদ্দিন পিপুল কৈটুলা ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি এবং দুইবারের সাবেক চেয়ারম্যান। আর গতবার (২০১৬ সাল) পিপুলকে হারিয়ে চেয়ারম্যান হয়েছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত ওসমান।

স্থানীয়রা জানান, ইউপি নির্বাচনে আমরা পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে জয়ী করেছি। কিন্তু হঠাৎ শুক্রবার বিকেলে একদল তরুণকে বালতিসহ পরিষদ এলাকায় ধোয়া-মোছা করতে দেখা যায়। জানতে চাইলে তারা ইউনিয়ন পরিষদকে পানি দিয়ে ধৌত করবে বলে জানায়। পরে লোকমুখে শুনি দুধ ও গোলাপজল দিয়ে পরিষদের কার্যালয়সহ পুরো চত্বর ধোয়া-মোছার কাজ চলছে। এসে দেখি ঘটনা সত্য। বিষয়টি এলাকায় টক অব দ্যা টাউনে পরিনত হয়েছে।

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মহসীন উদ্দিন পিপুল বলেন, আমি নির্বাচিত হওয়ার আগে সদ্য বিদায়ী চেয়ারম্যানের আমলে এই কার্যালয়ে নানা ধরনের অসামাজিক কার্যকলাপ চলতো। যা কার্যালয়কে অপবিত্র করে দিয়েছিল। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যেও অনেক ক্ষোভ ছিল। মানুষ পরিষদে এসে সেবা না পেয়ে ফিরে গেছেন। কার্ড বাণিজ্যসহ সব কিছু অনিয়মে পরিনত হয়েছিল।

তবে কার্যালয় ধোয়ার জন্য আমি দায়ী নই। আমি পানি দিয়ে ধোয়ার কথা বললেও অতি উৎসাহিরা দুধ দিয়ে কার্যালয় ধুয়ে পবিত্র করেছে। বিষয়টি এখন অন্য দিকে চলে যাচ্ছে।

সাবেক চেয়ারম্যান শওকত ওসমান বলেন, দায়িত্ব গ্রহণের সময় আমাকে জানানো হয়নি আর এবার কার্যালয় দুধ দিয়ে ধুয়ে আমাকে অপমান করা হলো। চেয়ারম্যান হিসাবে কোন দিন কাউকে অসম্মান করিনি। এই মানহানির জন্য দোষীদের বিরুদ্ধে তদন্ত পুর্বক আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের দুষ্টি আকর্ষন করছি।

এদিকে এ ঘটনায় পক্ষে-বিপক্ষে আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বিষয়টি সচেতন মহল স্বাভাবিক ভাবে নিতে পারেননি। তাদের দাবী, অনেকেই নিজেকে ধোয়া তুলশিপাতার ন্যায় দাবী করলেও লোভ লালসার কাছে পরে নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে পারেননা। অথচ মানহানিকর কর্মকাণ্ড করে চাঞ্চল্যের জন্ম দেন।