January 19, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, December 9th, 2021, 7:48 pm

পারমাণবিক চুক্তি নিয়ে ইরানের সঙ্গে আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক :

গত সপ্তাহে ইরানের সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তি নিয়ে সামান্য অগ্রগতি হওয়ার পর ভিয়েনায় নতুন করে পরোক্ষভাবে এ আলোচনা শুরু করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে। এতে বলা হয়েছে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন কূটনীতিকে আরো একটি সুযোগ দিতে চান। সে জন্য ভিয়েনায় আলোচনায় পরোক্ষভাবে ইরানের সাথে যুক্ত হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। গত বুধবার সাংবাদিকদের এ বিষয়টি জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস। তিনি বলেছেন, সপ্তাহান্তে আলোচনায় যুক্ত হতে পারেন ইরান বিষয়ক বাইডেন প্রশাসনের বিশেষ দূত রবার্ট ম্যালি এবং তার প্রতিনিধিরা। এর আগে ইউরোপীয় ইউনিয়নের কূটনীতিকরাও নিশ্চিত করেছেন যে, গত শুক্রবার সপ্তম দফার আলোচনা স্থগিত থাকলেও বৃহস্পতিবার এ নিয়ে আলোচনা অব্যাহত হবে। ইরানের রক্ষণশীল প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রইসির অধীনে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্রথম এই আলোচনা শুরু হয়েছে। উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ইরানের সঙ্গে ঐতিহাসিক পারমাণবিক চুক্তি সম্পাদন করেন। এর নাম দেয়া হয় জয়েন্ট কম্প্রিহেনসিভ প্লান অব অ্যাকশন। ইরানের ওপর আরোপিত অবরোধ শিথিল করা হয়। কিন্তু ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতায় আসেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি ক্ষমতায় আসার পরই ২০১৮ সালে একতরফাভাবে চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নেন। একই সাথে ইরানের বিরুদ্ধে নতুন নতুন অবরোধ আরোপ করতে থাকেন। কিন্তু ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী জো বাইডেন প্রতিশ্রুতি দেন তিনি নির্বাচিত হলে ইরানের সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করবেন। তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন এবং এই চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করার উদ্যোগ শুরু করেছেন। তারই অংশ হিসেবে ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের পরোক্ষ আলোচনা চলছে। এনিয়ে গত সপ্তাহে যে আলোচনা হয়েছে তাতে ইরানের আন্তরিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের কর্মকর্তারা। নেড প্রাইস বলেছেন, এক সপ্তাহের মধ্যে গত শুক্রবার আলোচনা স্থগিত হয়ে যায়। কারণ এটা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে এই চুক্তির বিষয়ে সিরিয়াস নয় ইরান। তবে তিনি আরও বলেন, এই চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। পারস্পরিক বোঝাপড়ার ভিত্তিতে চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করা সম্ভব বলেও তিনি মন্তব্য করেন। এজন্যই যুক্তরাষ্ট্র আরো একবার ভিয়েনায় সপ্তম দফার আলোচনা শুরু করতে যাচ্ছে বলে জানান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এ মুখপাত্র। জবাবে ইরানের কর্মকর্তারা এই চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করার জন্য তাদুটি প্রস্তাব উত্থাপন করেছেন। তাদের দাবি ইরানের উপর আরোপিত সমস্ত অবরোধ অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে। ওদিকে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে গত মঙ্গলবার ইরানের দুটি নিরাপত্তা এজেন্সি এবং এর সঙ্গে সম্পর্কিত বেশ কিছু কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নতুন করে অবরোধ আরোপ করেছে জো বাইডেন প্রশাসন।