October 3, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, September 8th, 2022, 6:38 pm

পুলিশ কমিশনারের সাথে পরিবহন মালিক শ্রমিকের মতবিনিময় সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর :

পরিবহন মালিক, শ্রমিক ও সুধীজনের সাথে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিষয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার এঁর মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়েছে । বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) ১১টায় রংপুর জেলা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল প্রাঙ্গনে পুলিশ কমিশনার নুরেআলম মিনা, বিপিএম বার,এতে প্রধান অতিথি ছিলেন । রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির সভাপতি এ কে এম মোজাম্মেল হক এঁর সভাপতিত্বে উক্ত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-পুলিশ কমিশনার (সিটিএসবি) মোঃ আবু বকর সিদ্দীক, উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মোঃ মেনহাজুল আলম, , সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ মাহবুব আলম । এতে বক্তব্য রাখেন রংপুর জেলা পরিবহন মালিক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো: আব্দুল মজিদ ,জলো মটর মালকি সমতিরি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সয়ৈদ আফতাবুজ্জামান লপ্পিন,সহ সংগঠনের সদস্যবৃন্দ এবং সুধীজন ও সাংবাদিকবৃন্দ। এ সময় তারা পরিবহন সেক্টর ও সড়কে অরাজকতা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশ কমিশনার প্রতি অনুরোধ জানান। এছাড়া নির্বাহী প্রকৌশলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, রংপুর তাঁর বক্তব্যে সড়ক বিভাগের উন্নয়নে সরকারের পরিকল্পনা ও চলমান কার্যক্রম তুলে ধরেন।
রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ এর পুলিশ কমিশনার নুরেআলম মিনা বিপিএম (বার), পিপিএম বক্তব্যের শুরুতে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর সহধর্মিনী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবসহ ১৫ আগস্টে শাহাদত বরণকারী সকল সদস্য এবং জাতীয় চার নেতা ও বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ সকলের আত্মত্যাগকে গভীর শোক ও শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন।
এছাড়াও তিনি তাঁর বক্তব্যে শহীদ বীর পুলিশ সদস্য যারা স্বাধীনতার প্রথম প্রহরে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন, তাঁদেরকেও শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। কমিশনার রংপুর মহানগরীর সড়ক ও ট্রাফিক ব্যবস্থায় বিদ্যমান সমস্যা ও এ ব্যাপারে করণীয় সম্পর্কে তাঁর অভিমত ব্যক্ত করেন। এ সময় তিনি নগরের যানজট নিয়ন্ত্রণকল্পে সিটি করপোরেশনসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিভাগের সাথে সমন্বয়পূর্বক অটোরিকশার বিকল্প হিসেবে সিটি বাস চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করবেন বলে জানান। একই সাথে নগরের ট্রাফিক ব্যবস্থায় শৃংখলা বজায় রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। এছাড়া পুলিশ এবং পরিবহন মালিক-শ্রমিক পরস্পরের পরিপূরক হিসেবে কাজ করার সুবিধার্থে তিনি পরিবহন মালিকশ্রমিক কেন্দ্রীক একটি কমিউনিটি পুলিশিং কমিটি গঠনের ঘোষণা দেন। পরিশেষে পরিবহন শ্রমিকের বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সংগঠনের পক্ষ থেকে পুলিশ কমিশনার মহোদয়কে ক্রেস্ট উপহার দিয়ে সংবর্ধিত করেন।