May 25, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, April 3rd, 2022, 5:49 pm

পেনাল্টিতে বেনজেমার জোড়া গোলে রিয়ালের কষ্টার্জিত জয়

অনলাইন ডেস্ক :

পেনাল্টিতে জোড়া গোল করে রিয়াল মাদ্রিদকে কষ্টার্জিত জয় উপহার দিয়েছেন ফরাসি তারকা করিম বেনজেমা। গত শনিবার সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে লা লিগায় ২-১ গোলের জয় তুলে নিয়ে আগামী সপ্তাহে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে চেলসির মোকাবেলা করার আগে নিজেদের প্রস্তুতিটা ভালই সেড়ে নিল টেবিলের শীর্ষে থাকা মাদ্রিদ। দুই গোলের মাঝে আরো একটি পেনাল্টি শট মিস করেছেন বেনজেমা। দিনের আরেক ম্যাচে আলাভেসকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। আগামী মঙ্গলবার পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের লড়াইয়ে মোকাবেলা করার আগে এই ধরনের একটি জয় জরুরী ছিল দিয়েগো সিমিওনের দলের। ইন-ফর্ম স্ট্রাইকার হুয়াও ফেলিক্স করেছেন দুই গোল। বদলী হিসেবে নেমে উরুগুয়ের তারকা লুইস সুয়ারেজও জোড়া গোল করেছেন। এ নিয়ে শেষ আট ম্যাচে ২২ বছর বয়সী পর্তুগীজ স্ট্রাইকার ফেলিক্স সাত গোল করলেন। সিটির বিপক্ষে দলকে উজ্জীবিত করার পিছনে সিমিওনে অনায়াসেই এই তরুন স্ট্রাইকারের উপর ভরসা করতে পারেন। ম্যাচ শেষে ফেলিক্স বলেছেন, ‘আমরা আত্মবিশ্বাসী হয়েই সিটির মাঠে খেলতে যাব। আমাদের পা এখনো মাটিতেই আছে। কারণ আমরা জানি ম্যাচটি মোটেই সহজ হবে না।’ রিয়াল মাদ্রিদ জয়ের মাধ্যমে তাদের শীর্ষ অবস্থান আরো শক্তিশালী করেছে। আন্তর্জাতিক বিরতির আগে দারুন ছন্দে থাকা বার্সেলোনা শীর্ষ চারে নিজেদের অবস্থানের জানান দিয়েছে। যদিও চতুর্থ স্থানে থাকা চির প্রতিদ্বন্দ্বী কাতালান জায়ান্টদের থেকে মাদ্রিদ ১৫ পয়েন্ট এগিয়ে রয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা সেভিয়ার তুলনায় ১২ পয়েন্ট এগিয়ে রয়েছে মাদ্রিদ। শতভাগ সফল পারফরমেন্স না হলেও চেলসির বিপক্ষে প্রথম লেগের ম্যাচের আগে অন্তত আত্মবিশ্বাসটা ফিরে পাওয়া গেছে। বিপরীতে থমাস টাচেলের চেলসি প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের নীচের দিকে থাকা ব্রেন্টফোর্ডের কাছে ঘরের মাঠে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে একেবারেই নড়বড়ে অবস্থায় রয়েছে। গত বছর সেমিফাইনালের দুই লেগেই রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে জয় তুলে নেয়া চেলসি এবারও অবশ্য স্প্যানিশ জায়ান্টদের জন্য বড় বাঁধা হয়ে উঠতে পারে। গত শনিবার ম্যাচ শেষে মাদ্রিদ গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া বলেছেন, ‘আমি জানি না এই জয়টা আমাদের প্রাপ্য ছিল কিনা। প্রথমার্ধে আমি বড় দুটি সেভ করেছি। কিন্তু সবকিছুর পরেও জয়টাই গুরুত্বপূর্ণ। চেলসি আজ তাদের ঘরের মাঠে পরাজিত হয়েছে। সে কারনেই বুধবারের ম্যাচটিতে তারা শক্তিশালী হয়ে মাঠে ফিরতে মরিয়া হয়ে থাকবে। আমাদের আরো বেশী মনোযোগী হতে হবে। আজ আমরা কিছুটা হলেও ম্যাচের আবহ থেকে দুরে সড়ে গিয়েছিলাম। চেলসির শক্তিমত্তার বিপক্ষে এটা কোনভাবেই করা যাবেনা। আমাদের অবশ্যই আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে মাঠে নামতে হবে।’ বেনজেমা ও ফারলান্ড মেন্ডির ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফেরাটা চেলসির বিপক্ষে মাদ্রিদকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাচ্ছে। লেফট ব্যাত হিসেবে নাচো ফার্নান্দেজ কিংবা মার্সেলোর পরিবর্তে মেন্ডির উপরই বেশী ভরসা রাখতে চান আনচেলত্তি। ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফিরেই নিজের গোলসংখ্যা ৩৯’এ নিয়ে গেছেন বেনজেমা। গত সপ্তাহে কোভিডে আক্রান্ত হবার কারণে শনিবারের ম্যাচে সাইডলাইনে ছিলেন না আনচেলত্তি। আগামী সপ্তাহে লন্ডন সফরে তার যাওয়া এখনো অনিশ্চিত। ম্যাচের ১৯ মিনিটে নোলিতোর বিপক্ষে পেনাল্টি আদায় করেন নেন এডার মিলিটাও। সেল্টা গোলরক্ষক মাটিয়াস ডিটুরোকে উল্টো দিকে পাঠিয়ে স্পট কিক থেকে বল জালে জড়ান বেনজেমা। বিরতির পর সেল্টা বেশ চড়াও হয়ে খেলতে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় ৫২ মিনিটে জেভিয়ার গালানের এসিস্ট থেকে নোলিটো সহজ ফিনিশিংয়ে সমতা ফেরান। রডরিগোকে ফাউলের কারণ জেইসন মুরিলোর বিপক্ষে আবারো পেনাল্টি উপহার পায় মাদ্রিদ। ৬৪ মিনিটে অবশ্য বেনজেমাকে সফল হতে দেননি ডিটুরো। ৭০ মিনিটে মেন্ডিকে অবৈধভাবে বাঁধা দেবার অপরাধে কেভিন ভাসকুয়েজের বিপক্ষে তৃতীয় পেনাল্টি পায় মাদ্রিদ। এবার আর কোন ভুল করেননি বেনজেমা। এই গোলেই মাদ্রিদের জয় নিশ্চিত হয়।