June 29, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, May 23rd, 2022, 8:17 pm

পৌর নির্বাচনে সহিংসতা মামলায় নৌকা সমর্থকদের নতুন করে অন্তর্ভূক্তির প্রতিবাদ

মানববন্ধন থেকে বৃহত্তর আন্দোলনের আল্টিমেটাম

জেলা প্রতিনিধি, গাইবান্ধা :
গাইবান্ধা পৌরসভা নির্বাচনে সহিংসতা মামলায় নৌকা প্রতিকের পক্ষে কাজ করা পৌর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীর নাম নতুন করে জড়ানোর প্রতিবাদে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে শহরের ডিবি রোডের ১নং ট্রাফিক মোড় এলাকায় এই মানববন্ধনের আয়োজন করে নাগরিক সংগঠন সচেতন নাগরিক অধিকার।
বিপুল সংখ্যক নারী-পুরুষসহ পৌর আওয়ামীলীগের বিভিন্ন ওয়ার্ড শাখা, সামাজিক ও ব্যবসায়ী সংগঠন- গাইবান্ধা উন্নয়ন ফাউন্ডেশন, হকার্স মার্কেট ব্যবসায়ী মালিক সমিতি, জেলা পিকআপ মালিক সমিতির নেতাকর্মীরা ব্যানার নিয়ে মানববন্ধনে অংশ নেন। সচেতন নাগরিক অধিকারের আহ্বায়ক বাপী দাসের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রণজিৎ বকসী সূর্য, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ রঞ্জু, ব্যবসায়ী নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মাকছুদুর রহমান শাহান, জাসদ নেতা মোক্তাদুর রহমান মিঠু, শ্রমিক নেতা চঞ্চল সাহা, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রউফ মিয়া প্রমুখ।
২০২১ সালের ১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত গাইবান্ধা পৌরসভা নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শেষে শহরের কুঠিপাড়া এলাকায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে এলাকার কতিপয় লোকের সহিংস ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পরেরদিন ১৭ জানুয়ারি দুটি মামলা হয়। সে সময় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী রেল ইঞ্জিন প্রতীকের আনোয়ারুল হাসান সাহিব ও তার কর্মী সমর্থক ৪৯ জনকে আসামি করা হয়। কিন্তু মামলা দায়েরের দীর্ঘ এক বছরের বেশী সময় পর এজাহার নামীয় আসামিদের বাদ দিয়ে একটি স্বার্থান্বেষী মহলের ইন্ধনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী সাবেক মেয়র অ্যাড. শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর মিলনের নৌকা প্রতীকের পক্ষে কাজ করা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের নাম অভিযোগপত্রে নতুন করে অন্তর্ভূক্ত করা হয়। শহর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খান মো. সাইদ হোসেন জসিম, তার ছোট ভাই জেলা যুবলীগ নেতা আমির হোসেন সোহেল, শাহীন ও রুবেলসহ আওয়ামীলীগের সহযোগী সংগঠনের ৩৪ জনের নামে অভিযোগপত্র দেয়া হয়।
মানববন্ধনে বক্তারা প্রশ্ন তুলে বলেন, যারা আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থীর কাজ করেছেন, তাদের বিরুদ্ধেই চার্জশিট দেয়া হলো কার স্বার্থে? তারা অবিলম্বে এই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অভিযোগপত্র প্রত্যাহার না করলে আগামীতে হরতাল, অবস্থানসহ বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসূচি পালন করা হবে বলে আল্টিমেটাম দেন।