June 23, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, April 30th, 2023, 8:47 pm

প্রচারে ফিরলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব

অনলাইন ডেস্ক :

অবশেষে নির্বাচনি প্রচারে ফিরলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। গত শনিবার তুরস্কের পশ্চিমাঞ্চলে এক নির্বাচনি প্রচারে এরদোয়ানকে দেখাচ্ছিল বেশ ফুরফুরে।বন্দর নগরী ইজমিরে প্রিয় নেতার দেখা পেতে হাজার হাজার মানুষ ঘণ্টার পর ঘণ্টা কড়া রোদ উপেক্ষা করে দাঁড়িয়ে ছিল। তাদের হাতে ছিল তুরস্কের পতাকা। শহরটি বিরোধীদের শক্তিশালী ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত। এদিন তুর্কি প্রেসিডেন্টের মধ্যে অসুস্থতার কোনো লক্ষণ দেখা যায়নি।

শারীরিক অসুস্থতায় গত সপ্তাহে তিনটি নির্বাচনি সমাবেশ বাতিল করেছিলেন এরদোয়ান।ইজমিরে প্রেসিডেন্ট প্রায় ৪০ মিনিট ধরে কথা বলেন। বিরোধীদের তুলোধুনো করার পাশাপাশি এরদোয়ান জানান, তুরস্কের উন্নতি কেবল তার হাত ধরেই সম্ভব।জনমত জরিপে দেখা গেছে, এবারের নির্বাচনে এরদোয়ানকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হবে এরদোয়ানকে। তার সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী কামাল কিলিকদারোগলু। সাবেক হিসাবরক্ষক এই আমলা জরিপে কিছুটা এগিয়ে।

রোববার (৩০ এপ্রিল) একই জায়গায় সমাবেশ করবেন কিলিকদারোগলু।তুরস্কের বিরোধিরা ছয়টি দলের একটি জোট।এর নেতৃত্বে রয়েছে কিলিকদারোগলু। তাদের মূল লক্ষ্য হলো এরদোয়ানকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করা। তারা মনে করছেন, দেশ যে সংকটের মধ্যে রয়েছে তাতে করে এরদোয়ানকে পরাজিত করা তাদের জন্য সহজ হবে। অর্থনৈতিক সংকট ও বিপর্যয়কর ভূমিকম্পে দেশটির পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। যা এরদোয়ানের জন্য ইতিবাচক নয়।৬৯ বছরের এরদোয়ান গত মঙ্গলবার একটি টিভি সাক্ষাৎকারের সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন।

পরে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফাহরেটিন কোকা জানান, এটি ‘গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল সংক্রমণ’ ছিল। এ কারণে বুধবার ও বৃহস্পতিবার তার নির্বাচনি সমাবেশ বাতিল হয়।দুই সন্তানের মা ৪২ বছর বয়সী গুরবেত দোস্তম বলেন, ‘আমি যখন তার স্বাস্থ্যের খবর শুনি, তখন ঈশ্বরের কাছে তার অসুস্থতা আমাকে দেওয়ার জন্য বলেছিলাম। আমি তার জন্য কষ্ট পেতে প্রস্তুত। তিনি আমাদের সবকিছু দেন’।তবে ব্যাপক মূল্যস্ফীতির কারণে দেশটির অনেক ভোটার এখন এরদোয়ানের বিকল্প খুঁজছে। অর্থনৈতিক মন্দার জন্য বিশেষজ্ঞরা প্রেসিডেন্টের অপ্রচলিত অর্থনৈতিক নীতিকে দায়ী করেছেন।

তবে গুরবেত তা মানতে নারাজ। তিনি বলেন, ‘যারা অভিযোগ করেছেন তারা লোভী এবং অকৃতজ্ঞ’।হীরা দিয়ে দাঁত বাঁধানো ৫৭ বছর বয়সী গুলদানা বলেন, ‘তিনি দেশ বদলে দিয়েছেন। আগে তুরস্ক ছিল একটি গ্রাম’।আয়েস নামে এক বেকার যুবতী বলেন, ‘আমি আমার দেশকে ভালোবাসার খাতিরে এরদোগানকে ভোট দেব। তিনি আমাদের উদ্ধার করবেন’।২১ বছর ধরে এরদোয়ান ক্ষমতায় আছেন। যারা এরদোয়ানকে সমর্থন করেন তারা চাইছেন প্রেসিডেন্টের শাসন আরও দীর্ঘায়িত হোক। অনেক তুর্কি ঠিক বিপরীত চায়। দেশের মত নির্বাচকমন্ডলীও বিভক্ত।সূত্র: বিবিসি