November 26, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, November 14th, 2022, 8:11 pm

প্লাস্টিকের ভয়াবহতা বোঝাতে বাংলাদেশে ভারতীয় যুবক

প্লাস্টিকের ভয়াবহতা বোঝাতে পরিবেশ রক্ষার আহ্বান নিয়ে ১৫ হাজার কিলোমিটার পায়ে হেঁটে বাংলাদেশে এসেছেন ভারতীয় এক যুবক।

তার নাম রোহান আগারওয়াল (২০)। তিনি ভারতের মহারাষ্ট্রের নাগপুরের বাসিন্দা এবং ভারতের গভর্নমেন্ট সিকিম প্রফেশনাল ইউনিভার্সিটির স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

নিজ দেশের ২৭টি রাজ্য ভ্রমণ ও জনগণকে মোটিভেশন শেষে বাংলাদেশেরও কয়েকটি জেলা ঘুরে চাঁদপুরে আসেন তিনি।

চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, ‘অল্প বয়সেই সে বৈশ্বিক ইস্যু নিয়ে কাজ করছে। এটি আমাদের ও অন্যদের জন্য একটি অনুপ্রেরণা। বিষয়টি জানার পর তাকে স্বাগত জানাই। তার থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করেছি।’

শহরের বিভিন্ন স্কুলে এ বিষয়টি নিয়ে ক্যাম্পেইন করছেন তিনি। শিক্ষক ও শিক্ষার্থী ছাড়াও কথা বলছেন সাধারণ মানুষের সঙ্গে। তার আলোচনার বিষয়বস্তু হলো-প্লাস্টিকের ভয়াবহতা!

তার মতে, এই পৃথিবী শুধু মানুষের বসবাসের জন্য নয়। প্রাণী-উদ্ভিদের জন্যও। তাই পরিবেশের বিষয়ে সবাইকে অবশ্যই সচেতন হওয়া দরকার। প্লাস্টিক আমাদের পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট করে দিচ্ছে।

রোহান আরও জানান, মানুষের মধ্যে জনসচেতনতা তৈরি করতে এই যাত্রায় আরও ১৫টি দেশে যাবার পরিকল্পনা আছে ২০ বছর বয়সী উদ্দমী এ যুবকের।

তিনি বলেন, ২০২০ সালের ২৪ আগস্ট ভারতের উত্তর প্রদেশের বারানসিতে গঙ্গার তীর থেকে হাঁটা শুরু করেছেন। এখন পর্যন্ত তিনি প্রায় ১৫ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছেন।এর মধ্যে ভারতের রাজস্থান, হরিয়ানা, দিল্লি, চণ্ডীগড়, হিমাচল, উত্তরাখন্ড, মধ্যপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, অন্ধ্র প্রদেশ, তেলেঙ্গানা, তামিলনাড়ু, পন্ডিচেরি, কর্ণাটক, কেরালা ও গোয়া হয়ে ভারতের মোট ২৭টি রাজ্য ক্যাপেইন ও ভ্রমণ শেষে ৮ অক্টোবর ফেনীর বেলোনিয়া সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে ঢোকেন রোহান। এরপর পার্বত্য চট্টগ্রাম ঘুরে ১০ নভেম্বর আসেন চাঁদপুর জেলায়।

তিনি বলেন, এরই মধ্যে জেলা প্রশাসক, পৌর মেয়র ও চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন তিনি।

তিনি বলেন, সমাজের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ আমার আহ্বানে সাড়া দিচ্ছেন। প্লাস্টিক থেকে বাঁচতেই আমার এই যাত্রা। ভারত থেকে এসেছি বাংলাদেশে। চলতি পথে অনেক মানুষের সঙ্গে পরিচয় হচ্ছে।

এছাড়া শিক্ষার্থীদের প্লাস্টিকের ভয়াবহতা বোঝাতে চাঁদপুরের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সচেতনতামূলক বক্তব্য দেন।

চাঁদপুরের আল-আমিন স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ভারত থেকে বাংলাদেশে এসে কয়েকটি জেলা ঘুরে চাঁদপুরে এসেছে রোহান।

তিনি বলেন, রবিবার দুপুরে আমাদের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে চমৎকারভাবে কথা বলেছে। সে হিন্দি ও ইংরেজি দুই ভাষায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্লাস্টিকের ভয়াবহতা নিয়ে কথা বলেছেন। আমরা তার এই চিন্তা-চেতনাকে স্বাগত জানাই।

বাংলাদেশের পর মিয়ানমার, থাইল্যান্ড, কম্বোডিয়া, লাওস, ভিয়েতনাম, চীন, হংকং, ম্যাকাও, মঙ্গোলিয়াসহ আরও বেশ কিছু দেশে যাওয়ার পরিকল্পনা আছে তার।

তিনি বলেন, ‘আমি যেখানেই গেছি, সেখানকার স্কুল-কলেজেসহ বিভিন্ন পাবলিক প্লেসে প্লাস্টিকের ভয়াবহতা নিয়ে কথা বলেছি। সবাইকে বলেছি, তাদের উচিত পরিবেশকে রক্ষা করা।’

রোহানের যাত্রা সম্পর্কে জেনে চাঁদপুর শহরের বেশ কয়েকজন সচেতন নাগরিক বলেন, ‘তার বয়স খুবই কম। কিন্তু সে অন্য দেশ থেকে হেঁটে আমাদের দেশে এসেছে পরিবেশ রক্ষার বার্তা নিয়ে। তার আহ্বানে আমাদের সাড়া দেয়া উচিত।’

চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, ‘অল্প বয়সেই সে বৈশ্বিক ইস্যু নিয়ে কাজ করছে। তার এই পথচলায় আশা করি সবাই সহযোগিতা করবেন। এছাড়া আমি তার এ যাত্রার সফলতা কামনা করছি।’

—-ইউএনবি