September 30, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, May 8th, 2022, 8:22 pm

ফেঞ্চুগঞ্জে তৃণমুল আওয়ামীলীগের ৭দিনের আল্টিমেটাম

জেলা প্রতিনিধি, সিলেট :
বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিযুক্ত ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার প্রতিবাদে ফেঞ্চুগঞ্জে তৃণমুল আওয়ামীলীগ ৭দিনের আল্টিমেটাম ঘোষণা করেছে। আগামী ৭দিনের ভিতরে অজ্ঞাতনামা দুষ্কৃতিকারীদের গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন তৃণমূল আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা। এরই অংশ হিসেবে ৭ মে শনিবার বিকেলে ফেঞ্চুগঞ্জ বাজারে এক প্রতিবাদ মিছিল বের হয়।
মিছিলটি থানা সম্মুখ থেকে শুরু হয়ে বাজারের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে থানার রোড পয়েন্টে এসে প্রতিবাদ সভায় মিলিত হয়।
ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আখলাকুর রহমান চৌধুরী সেলিম এর সভাপতিত্বে ও ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি মেহরাব হোসেন জুনেলের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন- ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জুলহাস আহমদ, ঘিলাছড়া ইউনিয়ন সেচ্ছসেবক লীগের সভাপতি মিনহাজ উদ্দিন, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জুনেদ আহমদ, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক আক্তার হোসেন ও কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল আলী।
প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সজিব ওয়াজেদ জয়ের ছবিযুক্ত একটি ব্যানার ঈদের আগেরদিন রাতের আঁধারে ফেঞ্চুগঞ্জ সেতুর টোলপ্লাজার সম্মুখ থেকে ছিড়ে ফেলা হয়েছে। জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমান, শেখ হাসিনা ও সজিব ওয়াজেদ জয়ের ছবি থাকা সত্ত্বেও সেই ব্যানার পা দিয়ে টেনে ছিড়েছে দুবৃর্ত্তরা। যা দেখে আমাদের হৃদয়ে রক্তকরণ হয়েছে। প্রতিহিংসার কারণে এমনটা করা হয়েছে। যা টোলপ্লাজার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। এবিষয়ে ফেঞ্চুগঞ্জ থানায় আমরা একটা জিডি করেছি।
প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বক্তারা আরও বলেন, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে দুষ্কৃতিকারী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসুন। সাত দিনের মধ্যে দুর্বৃত্তদের আইনের আওতায় না নিয়ে আসলে আমরা কঠোর আন্দোলনের ডাক দিব।
উল্লেখ্য, ফেঞ্চুগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সজিব ওয়াজেদ জয়ের ছবিযুক্ত কয়েকটি ঈদ শুভেচ্ছা ব্যানার কে বা কারা রাতের আধারে ছিঁড়ে কুশিয়ারা নদীতে ফেলে দেয়। বিষয়টি স্থানীয় দৃষ্টিগোচর হলে এ নিয়ে ক্ষোভ ও অসন্তোষের সৃষ্টি হয়।