December 9, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, November 22nd, 2022, 6:28 pm

বনানীতে এইচবিএলের প্রধান ব্রাঞ্চের উদ্বোধন

বাংলাদেশে আজ নতুন প্রধান ব্রাঞ্চ উদ্বোধন করেছে এইচবিএল ব্যাংক। শীর্ষস্থানীয় আঞ্চলিক এই আর্থিক প্রতিষ্ঠানটির প্রধান ব্রাঞ্চ এখন রাজধানী ঢাকার বনানী এলাকার ৬৭ কামাল আতাতুর্ক এভিনিউতে অবস্থিত অটোগ্রাফ টাওয়ারে। গ্রাহকদের আরও উন্নত মানের সুবিধা ও সেবা প্রদানের উদ্দেশ্যে গুলশান থেকে বনানীতে ব্রাঞ্চটি স্থানান্তর করা হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন দেশে কার্যরত আঞ্চলিক প্রাসঙ্গিকতাসম্পন্ন ব্যাংক এইচবিএল বাংলাদেশে ৪৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী ব্যাংকিং সেবা দিয়ে আসছে। আর্থিক সেবায় গ্রাহক-কেন্দ্রিক উদ্ভাবনের জন্য এইচবিএল এই অঞ্চলের শীর্ষস্থানীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিত। আগা খান ফান্ড ফর ইকোনমিক ডেভেলপমেন্ট (একেএফইডি) এইচবিএল-এর ৫১ শতাংশ শেয়ারহোল্ডার ও ব্যবস্থাপনা নিয়ন্ত্রক, একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানা যায়।

অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধার পাশাপাশি এইচবিএল বাংলাদেশের নতুন ব্রাঞ্চটিতে গ্রাহকরা উন্নত মানের পরিষেবার উপযোগী পরিবেশও পাচ্ছেন। এছাড়া, ঢাকার অন্যতম প্রধান ব্যবসাকেন্দ্রে গ্রাহকদের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার সুযোগও এখানে থাকবে। ব্যাংকটি তার গ্রাহকদের জন্য আরএমবি/সিএনওয়াই (রেনমিনবি) অ্যাকাউন্টের সুবিধা প্রদান করছে। তাছাড়াও, চীনে এইচবিএল-এর উপস্থিতির কারণে সে দেশের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোম্পানি এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে ব্যবসা পরিচালনা আরও সহজ হয়ে উঠছে।

প্রধান ব্রাঞ্চের উদ্বোধন করেন এইচবিএল-এর প্রেসিডেন্ট ও সিইও মুহাম্মদ আওরঙ্গজেব। তাঁর নেতৃত্বে প্রতিনিধিদলের সাথে এই সময় আরও উপস্থিত ছিলেন এইচবিএল-এর ইন্টারন্যাশনাল ব্যাংকিং প্রধান ফয়সাল লালানি, এইচবিএল-বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সেলিম বরকত, বাংলাদেশে আগা খান ডেভলপমেন্ট নেটওয়ার্ক (একেডিএন)- এর রেসিডেন্ট ডিপ্লোম্যাটিক রিপ্রেজেন্টেটিভ মহামান্য মুনির এম. মিরালি এবং ব্যাংকের সম্মানিত গ্রাহক ও অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

প্রেসিডেন্ট ও সিইও মুহাম্মদ আওরঙ্গজেব বলেন, “বনানীতে প্রধান ব্রাঞ্চ খোলার এই আয়োজনে উপস্থিত থাকতে পেরে আমি আনন্দিত। গ্রাহকদের বিভিন্ন ধরনের আর্থিক সেবা প্রদানে আমাদের ব্যাংক দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। বাংলাদেশের ব্যাংকিং সিস্টেমের রূপান্তরে এইচবিএল কাজ করে যাবে। একইসাথে আমরা আমাদের ব্যাংকিং লাইসেন্সপ্রাপ্ত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানে পরিণত হওয়ার লক্ষ্যের দিকেও এগিয়ে যাচ্ছি।।”

—-প্রেস বিজ্ঞপ্তি