December 6, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, February 3rd, 2022, 7:44 pm

বসুন্ধরা কিংসকে হারিয়ে চমকে দিল স্বাধীনতা সংঘ

অনলাইন ডেস্ক :

দারুণ চমক দিয়ে শুরু হলো প্রিমিয়ার লিগের নতুন মৌসুম। বসুন্ধরা কিংসের দুই তারকা ফরোয়ার্ড রবসন দি সিলভা রবিনিয়ো ও স্তইয়ান ভ্রানিয়াস থাকলেন নিজেদের ছায়া হয়ে। অন্যদিকে, ঘরোয়া ফুটবলের শীর্ষ পর্যায়ে অভিষেক ম্যাচে স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘ খেলল উজ্জীবিত ফুটবল। লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে দুর্দান্ত শুরু পেল দলটি। টঙ্গীর শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার ২০২১-২২ মৌসুমের লিগের উদ্বোধনী দিনে কিংসকে ২-১ গোলে হারিয়েছে স্বাধীনতা। নেদো তুর্কোভিচ ও রাসেল আহমেদের গোলে স্বাধীনতা নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর ব্যবধান কমান কিংসের বদলি ফরোয়ার্ড তৌহিদুল আলম সবুজ। লিগে ছয় ম্যাচ পর প্রথম হারের তেতো স্বাদ পেল অস্কার ব্রুসনের দল। সবশেষ গত লিগে চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে ২-১ গোলে হেরেছিল তারা। কিছুটা অসমান মাঠে বলের নিয়ন্ত্রণ রাখা ছিল একটু কঠিন, তবে অসম্ভব ছিল না। কিন্তু রবিনিয়ো-ভ্রানিয়াস-সুমনে সাজানো কিংসের আক্রমণভাগ শুরু থেকেই ছিল বড্ড মলিন। এই তিন ফরোয়ার্ডের কেউই বক্সে ভীতি ছড়াতে পারেননি। দলটির চেনা আগ্রাসী রূপটা ফুটে ওঠেনি কখনই। উল্টো প্রথমার্ধেই গোল হজম করে বসে তারা। প্রথমার্ধে উত্তাপ ছড়ায় ২২তম মিনিটের পেনাল্টি। ডান দিক থেকে স্বাধীনতার পোলিশ ফরোয়ার্ড রাফায়েল জাবোরোভস্কির আড়াআড়ি ক্রস আতিকুর রহমান ফাহাদ হাত দিয়ে আটকালে স্পট কিকের বাঁশি বাজান রেফারি। এই সিদ্ধান্ত নিয়ে শুরু হয় উত্তেজনা। ফাহাদ, বিশ্বনাথ ঘোষ, খালিশ শাফিই, ভ্রানিয়াসরা রেফারিকে ঘিরে ধরেন। একপর্যায়ে সহকারী রেফারিকে ধাক্কাও দেন কিংসের খেলোয়াড়রা। স্পট কিকে স্বাধীনতাকে এগিয়ে নেন বসনিয়া-হার্জেগোভিনার ফরোয়ার্ড তুর্কোভিচ। পিছিয়ে পড়ার পর কিংসের খেলায় গতি বাড়লেও উজ্জীবিত স্বাধীনতার জমাট রক্ষণ ভাঙতে পারেনি তারা। ২৭তম মিনিটে বক্সের ভেতর থেকে ভ্রানিয়াসের শট ক্রসবারের উপর দিয়ে উড়ে যায়। চার মিনিট পর রবিনিয়োর ফ্রি কিকের পরিণতিও একই। ৩৭তম মিনিটে সারোয়ার জাহানকে প্রথম ভালো পরীক্ষা নেন ভ্রানিয়াস। বক্সের বাইরে থেকে এই ফরোয়ার্ডের বাঁকানো ফ্রি কিক ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে ক্লিয়ার করেন স্বাধীনতা গোলরক্ষক। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে কিংসকে কোণঠাসা করে ফেলে স্বাধীনতা। তুর্কোভিচকে বল বাড়িয়ে একটু এগিয়ে যাওয়া জিল্লুর রহমান ফিরতি পাস পেয়ে বাড়ান বক্সে। সামনে থাকা কিংসের সোহেল রানা পারেননি জিল্লুর পাস আটকাতে। বক্সে বল পেয়ে কোনাকুনি শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রাসেল। ৬৮তম মিনিটে তিনটি পরিবর্তন আনে কিংস। ইয়াসিন আরাফাত, তৌহিদুল আলম সবুজ ও ওবায়দুর রহমান নবাব নামেন ফাহাদ, সুমন রেজা ও মাশুক মিয়া জনির জায়গায়। এরপরই ব্যবধান বাড়ানোর ভালো একটি সুযোগ নষ্ট হয় স্বাধীনতার। বক্সে আনিসুর রহমান জিকোকে একা পেয়েও বাইরে শট নেন তুর্কোভিচ। ৭৩তম মিনিটে কিংস ম্যাচে ফেরার উপলক্ষ পায় দুই বদলির হাত ধরে। আরাফাতের লং পাস স্বাধীনতার ডিফেন্ডার হাসান মুরাদ নাগালে পেলেও ক্লিয়ার করতে পারেননি। লাফিয়ে ওঠা বল হেডে জালে জড়িয়ে দেন সবুজ। শেষ দিকে মরিয়া হয়ে ওঠা কিংসের আরেকটি ভালো সুযোগ নষ্ট হয় ৮৩তম মিনিটে। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসনের পাস ধরে বক্সের ভেতর থেকে সবুজের শট ক্রসবারের উপর দিয়ে যায়। যোগ করা ছয় মিনিটেও কিংস পারেনি আর কিছু করতে। শেষের বাঁশি বাজতেই উৎসব শুরু করে স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘ। রেফারি ও তার সহকারীকে নিরাপত্তা দিতে সঙ্গে সঙ্গে মাঠে ঢুকে যায় পুলিশ। ক্ষুব্ধ কিংসের খেলোয়াড়দের রোষানল থেকে তাদেরকে পাহারা দিয়ে মাঠ থেকে বের করে আনা হয়। দিনের অন্য ম্যাচে লিগে শুভসূচনা করেছে শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাব। মুন্সিগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লে: মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে উত্তর বারিধারাকে ২-১ গোলে হারিয়েছে গতবারের রানার্সআপ দলটি। সুলাইমান সিল্লাহ একাদশ মিনিটে শেখ জামালকে এগিয়ে নেওয়ার পর প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন চিনেডু ম্যাথিউ। ৬৮তম মিনিটে উত্তর বারিধারার একমাত্র গোলটি করেন ইভজেন্তি কোচনেভ।