June 29, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, May 5th, 2022, 7:42 pm

বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কা দলে আবারও পরিবর্তন

অনলাইন ডেস্ক :

সবশেষ সিরিজের দল থেকে অনেক পরিবর্তন এনে বাংলাদেশ সফরের জন্য টেস্ট দল সাজিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ডাক পেয়েছেন সাদা পোশাকে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা চার জন। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের জন্য শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বুধবার এক বিবৃতিতে ১৮ সদস্যের দল দিয়েছে। সবশেষ ভারত সফরে খেলা সিরিজের দল থেকে পরিবর্তন আনা হয়েছে আটটি। কিপার ব্যাটসম্যান কামিল মিশারা, স্পিন বোলিং অলরাউন্ডার কামিন্দু মেন্ডিস, বাঁহাতি পেসার দিলশান মাদুশঙ্কা ও লেগ স্পিনার সুমিন্দা লাকশানের সামনে টেস্ট অভিষেকের হাতছানি। দলে ফিরেছেনও চার জন- ব্যাটসম্যান ওশাদা ফার্নান্দো, অলরাউন্ডার রমেশ মেন্ডিস, ফাস্ট বোলার কাসুন রাজিথা ও আসিথা ফার্নান্দো। ভারত সফর দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বলে দেওয়া পেসার সুরঙ্গা লাকমল স্বাভাবিকভাবে দলে নেই। আগামী অক্টোবরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাবনায় লাল বলের ক্রিকেটে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে গতিময় দুই পেসার লাহিরু কুমারা ও দুশমন্থ চামিরাকে। দলে জায়গা হারিয়েছেন লেগ স্পিনার জেফ্রি ভ্যান্ডারসে। নেই ব্যাটসম্যান পাথুম নিসানকা ও চারিথ আসালঙ্কা। ভারত সফরে পাওয়া পিঠের চোট থেকে এখনও পুরোপুরি সেরে ওঠেননি নিসানকা। সাদা বলের ক্রিকেটে বেশি মনোযোগ দিতে বলা হয়েছে আসালাঙ্কাকে। আরেক ব্যাটসম্যান লাহিরু থিরিমান্নে শুরুতে প্রাথমিক দলে ছিলেন। তবে অস্ট্রেলিয়ায় স্ত্রী ও সদ্যোজাত সন্তানের সঙ্গে থাকার জন্য তিন মাসের পিতৃত্বকালীন ছুটির জন্য অনুরোধ করেন তিনি। ৩২ বছর বয়সী ব্যাটসম্যানের ভারত সফর ভালো না কাটলেও এর আগে লাল বলের ক্রিকেটে দারুণ ছন্দে ছিলেন। প্রাথমিক দলে থাকা রোশেন সিলভাও পরে চূড়ান্ত দলে তাকে না রাখার অনুরোধ করেন। ৩৩ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান ২০১৯ সালের জানুয়ারির পর থেকে কোনো টেস্ট খেলেননি। তিনি লঙ্কান বোর্ড থেকে অনাপত্তিপত্র ছাড়াই যুক্তরাজ্যে খেলার জন্য ভ্রমণ করেছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার জায়গায় এসেছেন কামিন্দু মেন্ডিস। তারা না থাকলেও শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং বিভাগ অভিজ্ঞতার দিক থেকে ঋদ্ধ। অধিনায়ক দিমুথ করুনারতেœ, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, কুসল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা আছেন দলে। মিশারা, ওশাদা ফার্নান্দো, চামিকা করুনারতেœ, রমেশ মেন্ডিস ও কামিন্দু মেন্ডিসের উপস্থিতি দলের শক্তি আরও বাড়াবে। সেই তুলনায় বোলিং বিভাগ কিছুটা অনভিজ্ঞ। পেস বোলিংয়ে আছেন বিশ্ব ফার্নান্দো, অসিথা ফার্নান্দো, নতুন মুখ মাদুশঙ্কা, অলরাউন্ডার করুনারতেœ ও রাজিথা। ২০২০ সালের পর থেকে রাজিথা কোনো টেস্ট খেলেননি। তাদের সবার সম্মিলিত আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা ২৯টি। দলে তিন বিশেষজ্ঞ স্পিনার প্রাভিন জয়াবিক্রমা, লাসিথ এম্বুলদেনিয়া ও অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা সুমিন্দা লাকশান। অফ স্পিনে বিকল্প হিসেবে কাজ চালাতে পারবেন ধনাঞ্জয়া, রমেশ ও কামিন্দু মেন্ডিস। আগামী রোববার বাংলাদেশে এসে পৌঁছাবে শ্রীলঙ্কা। পরে বিকেএসপিতে খেলবে দুই দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচ। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে ১৫ মে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ২৩ মে শুরু হবে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট। সিরিজটি আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ।
শ্রীলঙ্কা টেস্ট দল: দিমুথ করুনারতেœ (অধিনায়ক), কামিল মিশারা, ওশাদা ফার্নান্দো, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা, কুসল মেন্ডিস, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস, দিনেশ চান্দিমাল, কামিন্দু মেন্ডিস, নিরোশান ডিকভেলা, চামিকা করুনারতেœ, রমেশ মেন্ডিস, সুমিন্দা লাকশান, কাসুন রাজিথা, বিশ্ব ফার্নান্দো, আসিথা ফার্নান্দো, দিলশান মাদুশঙ্কা, প্রাভিন জয়াবিক্রমা, লাসিথ এম্বুলদেনিয়া।