December 2, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, October 26th, 2022, 7:24 pm

বাংলাদেশ অধিনায়কের নজর ১৮০ রানে

অনলাইন ডেস্ক :

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এখন প্রায়ই দেখা যায় ২০০ রানের ম্যাচ। নিয়মিতই ১৮০ ছাড়িয়ে যায় দলীয় সংগ্রহ। সেদিক থেকে ব্যতিক্রমই বলতে হবে বাংলাদেশ দলকে। বেশিরভাগ ম্যাচে তারা গড়পড়তা দেড়শর আশেপাশেই আটকে যায়। তবে এবার ১৮০ রানের দিকে নজর অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ১৪৪ রান করেও জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। সেই ম্যাচের ফল নিয়ে তৃপ্তি থাকলেও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১৮০-১৯০ রান লাগতে পারে বলে মনে করেন সাকিব। সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে প্রোটিয়াদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে সাকিব বলেন, উইকেট বিবেচনায় এই ম্যাচে আগের চেয়ে হয়তো বেশি রান করতে হবে। “আমি ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স বা পরিসংখ্যানের দিকে গুরুত্ব দিতে চাই না। (নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে) আমরা দল হিসেবে ১৪৫ (আসলে ১৪৪) রান করেছি এবং সেটা ডিফেন্ড করতে পেরেছি। তার মানে ওই পিচের জন্য এটা যথেষ্ট ছিল। এখানেও তা হবে সেটা জরুরি নয়। এখানে হয়তো ১৮০ করতে হবে।” অধিনায়ক হিসেবে কে রান করে দলকে ভালো অবস্থানে নিয়ে গেল সেটি নিয়ে ভাবছেন না সাকিব। বরং দলগতভাবে চাহিদা অনুযায়ী সংগ্রহ পেলেই খুশি তিনি। “পুরো দল মিলে আমরা কীভাবে ১৮০-১৯০ করতে পারি কিংবা এমনও হতে পারে ১৩০ রানের পিচও হতে পারে। সেটা আমরা যেন করতে পারি। তা ওপেনার, মিডল অর্ডার নাকি লোয়ার অর্ডার করল… ১১ জনের যে কেউ করতে পারে এবং আমি সেটাতেই খুশি থাকব। আমাদের চিন্তাভাবনাও এমন যে আমরা কীভাবে দলগতভাবে দলকে এগিয়ে নিতে পারি।” গত কয়েক ম্যাচে বাংলাদেশের বোলিং ও ফিল্ডিং নিয়ে সন্তুষ্ট সাকিব। এ ছাড়া ব্যাটিংয়েও ধীরে ধীরে স্বস্তি পাওয়া যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। তবে সব ক্ষেত্রেই আগের চেয়ে ভালো করার তাগিদ দিয়েছেন তিনি। “আমরা সবাই যা যা করেছি তার থেকে যেন প্রতি ম্যাচে ৫-১০ শতাংশ বেশি উন্নতি করতে পারি। কারণ, এখনও আমাদের অনেক জায়গা আছে যে জায়গাগুলোতে আমরা আরও বেশি নিখুঁত হতে পারি। আমার কাছে মনে হয় যে আমরা ফিল্ডিংটা খুবই ভালো করছি, আমাদের ফাস্ট বোলিংটা খুবই ভালো আছে।” “ব্যাটিংটা আস্তে আস্তে আমার মনে হয় যে ড্রেসিংরুমে আমরা একটু স্বস্তি পেতে শুরু করেছি। এগুলো আমাদেরকে সাহায্য করবে আরও বেশি ভালো খেলার জন্য। সব ডিপার্টমেন্টেই আমরা যদি ৫-১০ শতাংশ করে উন্নতি করতে পারি, আমার কাছে মনে হয় যে খুব ভালো আরও একটি ম্যাচ খেলতে পারব, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।”