August 15, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, July 12th, 2022, 7:55 pm

বায়ার্নে ‘ফিরলেন’ লেভানদোভস্কি

অনলাইন ডেস্ক :

বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে রবের্ত লেভানদোভস্কির সম্পর্কে চিড় ধরার খবর এখন আর নতুন নয়। মাস দুয়েক আগে তিনি নিজেই খোলাসা করে দেন, আর থাকতে চান জার্মান ক্লাবটিতে। বায়ার্ন শুরু থেকেই বলে আসছে, চুক্তি শেষের আগে কোনোভাবেই লেভানদোভস্কিকে ছাড়তে চান না তারা। চলমান সেই টানাপোড়েনের মধ্যেই মঙ্গলবার গত দুইবারের ফিফা বর্ষসেরা এই ফুটবলার বায়ার্নের প্রাক-মৌসুমের প্রস্তুতিপর্বে যোগ দিয়েছেন বলে গণমাধ্যমের খবর। ডেইলি মেইলসহ কয়েকটি পত্রিকা তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মঙ্গলবার ক্লাবের প্রাক-মৌসুমের প্রস্তুতি পর্বে যোগ দিয়েছেন লেভানদোভস্কি। ২০১৪ সালে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড থেকে অনেক প্রত্যাশা নিয়ে লেভানদোভস্কিকে দলে টেনেছিল বায়ার্ন। দলের চাওয়া যে কোনো অংশে অপূর্ণ রাখেননি তিনি, তা বলাই যায়। এই সাত বছর সময়ে দলটির হয়ে প্রতি মৌসুমে বুন্ডেসলিগা ছাড়াও জিতেছেন অনেক শিরোপা। দলের প্রায় সব সাফল্যেই বড় অবদান তার। গত কয়েক মৌসুমে তো রীতিমত ‘গোল মেশিন’ হয়ে ওঠেন লেভানদোভস্কি। ক্লাবের একের পর এক রেকর্ড ভেঙে দেন তিনি। তবে এমন মসৃণ পথচলায় মাঝেও যে ক্লাব কর্মকর্তাদের সঙ্গে সম্পর্কে ভাঙন ধরতে শুরু করেছিল, তা প্রকাশ্য হয় গত মে মাসের শেষ দিকে। ২০২১-২২ ক্লাব মৌসুম শেষে জাতীয় দলে ফিরে তিনি জানান, বায়ার্নের তার অধ্যায় শেষ হয়েছে, খেলে ফেলেছেন দলটির হয়ে শেষ ম্যাচ। “সাম্প্রতিক মাসগুলোয় যা কিছু ঘটেছে, এরপর আর আমি ভালো সহযোগিতা কল্পনা করতে পারি না। বুঝতে পারছি, দল বদলই উভয় পক্ষের জন্য সেরা সমাধান।” মৌসুম চলাকালীন সময়েই মাঝেমধ্যে গণমাধ্যমে উড়ো খবর আসত, আর্থিক চাওয়া-পাওয়া নিয়ে নাকি সন্তুষ্ট নন লেভানদোভস্কি। এখন পর্যন্ত তিনি নিজে অবশ্য দল ছাড়তে চাওয়ার পেছনের কারণ নিয়ে খোলামেলা কিছু বলেননি। তবে তার ওই মন্তব্যেই কিছুটা বোঝা যায় যে, তার প্রতি ক্লাবের আচরণে সন্তুষ্ট নন তিনি। এরপর শোনা গেছে নানামুখী গুঞ্জন, পোলিশ তারকা নিজেও আরও কয়েক বার পুরনো কথায় অটল থাকার কথা বলেছেন। বায়ার্নের সঙ্গে তার চুক্তি শেষ আগামী জুনে। লেভানদোভস্কি অবশ্য ফ্রি ট্রান্সফারে যেতে চান না, এই গ্রীষ্মেই দল ছাড়ার ইচ্ছার কথা বলেছেন তিনি বারবার। এমন সব খবরের মাঝেই এবার জানা গেল ক্লাবের অনুশীলনে তার যোগ দেওয়ার খবর। ক্লাবের মেডিকেল ফ্যাসিলিটির দিকে যাওয়ার সময় ব্যক্তিগত গাড়িতে থাকা অবস্থায় লেভানদোভস্কির ছবি ধারণ করার দাবি করেছে স্কাই স্পোর্টস। দলবদলের বিষয়ে নির্ভরযোগ্য সূত্র বলে বিবেচিত ইটালিয়ান সাংবাদিক ফ্যাব্রিসিও রোমানোও একই তথ্য দিয়েছেন। সকালে লেভানদোভস্কির মেডিকেল হয়েছে বলেও সামাজিক মাধ্যমে জানান রোমানো। একই সঙ্গে অবশ্য তিনি এটাও জানান, লেভানদোভস্কির পরিকল্পনায় কোনো পরিবর্তন আসেনি। খুব শীগগিরই তার বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার খবর আসবে বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি। লেভানদোভস্কির সম্ভাব্য ঠিকানা হিসেবে যে কয়েকটি দলের নাম শোনা যাচ্ছে, সেগুলোর মধ্যে বার্সেলোনা সবচেয়ে এগিয়ে। ৩৩ বছর স্ট্রাইকার নিজেও একবার বলেছিলেন, একমাত্র তিনি বার্সেলোনার প্রস্তাব নিয়েই ভেবে দেখেছেন। শুরুতে বার্সেলোনার পক্ষ থেকে অবশ্য লেভানদোভস্কির প্রতি আগ্রহের কথা উড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল। তবে সম্প্রতি দলটির সভাপতি সরাসরিই জানান, লেভানদোভস্কির জন্য প্রস্তাব দিয়েছেন তারা এবং বায়ার্নের ‘হ্যাঁ’ শোনার অপেক্ষায় আছেন। পোলিশ ফুটবল বিশ্লেষক মাথেউস বোরেক নিজস্ব সুত্রের বরাত দিয়ে তার সাইটে লিখেছেন, বায়ার্ন অবশেষে লেভানদোভস্কিকে ছাড়তে রাজি হয়েছেন। সব মিলিয়ে ক্লাবটি চায় পাঁচ কোটি ইউরো। এখন সিদ্ধান্ত পুরোটাই তাই বার্সেলোনার হাতে। তবে, বায়ার্নের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত নতুন আর কিছুই জানানো হয়নি। এ বিষয়ে সবশেষ দলটির ক্রীড়া পরিচালক হাসান সালহামিজিচ গত মাসে বলেছিলেন, লেভানদোভস্কির সঙ্গে ফলপ্রসু আলোচনা হয়েছে। তাকে ধরে রাখার ব্যাপারেও তখন আশার কথা শুনিয়েছিলেন তিনি।