November 26, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, November 9th, 2022, 5:57 pm

বিকল্প আয় বৃদ্ধির লক্ষে কলাপাড়ায় পাঁচ জন নারীকে অর্থ সহায়তা

জেলা প্রতিনিধি, পটুয়াখালী (কলাপাড়া) :

বিকল্প আয় বৃদ্ধির লক্ষে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় হত দরিদ্র পাঁচজন নারীকে অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। প্রত্যেকে হাতে ১০ হাজার টাকা তুলে দেয়া হয়। বুধবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সভা কক্ষে বেসরকারী আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ওয়ার্ল্ড কনসার্ন বাংলাদেশ’র “পরিবর্তন”ও“ইপজিয়া”নামক দু’টি প্রকল্পের অবহিতকরন সভা শেষে তাদেরকে সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শংকর চন্দ্র বৈদ্য। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের (ভারপ্রাপ্ত) চেয়ারম্যান শাহীনা পারভীন সীমা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি অফিসার এ.আর এম সাইফুল্লাহ,উপজেলা প্রানিসম্পদ কর্মকর্তা ডা:মো.গাজী শাহ আলম, ঘূর্নিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি সিপিপি সহকারী পরিচালক মো.আসাদুজ্জামান খাঁন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো.হুমায়ুন কবীর, কলাপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) মো.মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।
এসময় সরকারী বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, এনজিও প্রতিনিধিসহ গনমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। ওয়ার্ল্ড কনসার্ন সংস্থার পক্ষে নতুন প্রকল্প দু’টির বিষয়বস্তু উপস্থাপন করেন প্রোগ্রাম ম্যানেজার সিলভেষ্টার মাইকেল মধু ও ফ্রান্সিস তমাল হালদার। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ওয়ার্ল্ড কনসার্ন বাংলাদেশ প্রকল্প কর্মকর্তা জেমস রাজীব বিশ্বাস।
ইপজিয়া প্রকল্প কর্মকর্তা সীমা ভেরোনিকা রোজারিও বলেন, জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলা, পরিবার পর্যায়ে বিকল্প আয় বৃদ্ধি সহ নারীদের ক্ষমতায়নের লক্ষে হত দরিদ্র নারীদের মাঝে এ অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া এ সংস্থা কলাপাড়া উপজেলার বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ন ইউনিয়নে দির্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় বালিয়াতলী, মহিপুর, লতাচাপলী এবং নীলগঞ্জ ইউনিয়নে দাতা সংস্থা টিয়ারফান্ড-ইউকে, সিডরফান্ড-হংকং ও ইন্টারএক্ট-সুইডেন’র আর্থিক সহায়তায় এ প্রকল্প দুটি নতুন ভাবে কাজ শুরু করেছে। এতে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির আবহাওয়া ও জলবায়ু পরির্বতনের সাথে খাপ খায়িয়ে দুর্যোগ বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধি, জেন্ডার বৈষম্য দুরিকরন, শিশু অধিকার ও সুরক্ষা নিশ্চিতসহ কৃষি এবং জীবন জীবিকার মান উন্নয়নের মাধ্যমে দুর্যোগ সহনশীল জনগোষ্ঠি গড়ে তুলতে প্রকল্প দুটি নতুন ভাবে কাজ করবে বলে তিনি জানান।