July 4, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, June 21st, 2022, 7:39 pm

বিনেপয়সায় মাধবনের ছবিতে শাহরুখ

অনলাইন ডেস্ক :

আসছে (১ জুলাই) মুক্তি পেতে যাচ্ছে অভিনেতা মাধবনের পরিচালিত ছবি ‘রকেট্রি: দ্য নাম্বি ইফেক্ট’। আর এই ছবিটির মাধ্যমেই তিনি নির্মাতা হিসেবে অভিষিক্ত হচ্ছেন। এই ছবিটিতে প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করছেন অভিনেতা নিজেই। সম্প্রতি, অভিনেতা এই ছবি নিয়ে কয়েকটি অজানা কথা জানালেন। ছবিটি করতে গিয়ে বলিউড অভিনেতাদের অনেক সহায়তা পেয়েছেন। সে কথায়ই বলেছেন একটি গণমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে। দক্ষিণী অভিনেতা সূর্য হোক বা খান সাহেব (শাহরুখ), তাঁরা কেউই ছবির জন্য কোনওরকমের পারিশ্রমিক নেন নি। এমনকি এই ছবিতে অভিনয়ের জন্যে তাঁরা নিজেদের জন্যে পোশাক এবং সহকারীর জন্যও কিছুই পারিশ্রমিক চাননি বলে জানান মাধবন। মাধবন জানান, সূর্য, তাঁর নিজের টাকায় ক্রু-দের সঙ্গে মুম্বাইতে শ্যুটিং করতে গিয়েছিলেন। ফ্লাইটের জন্য বা সংলাপ লেখকের জন্যও চার্জ নেননি। কারণ তাঁর সংলাপগুলি তামিল ভাষায় অনুবাদ করেছিলেন। আর সেই লেখকেরও কোনও চার্জ নেননি। আর এই ছবির হিন্দি সংস্করণে অভিনেতা শাহরুখ খান একটি চ্যাট শো-তে হোস্টের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। শাহরুখ এই ছবিতে কীভাবে যুক্ত হলেন সেই সম্পর্কে মাধবন বলেন, ‘আমি শাহরুখ খান সাহেবকে রকেট্রি ছবি সম্পর্কে কিছু কথা বলেছিলাম। তাঁর সঙ্গে যখন আমি জিরো সিনেমায় কাজ করি, তখন তিনি স্পষ্টভাবে মনে রেখেছিলেন। ‘শাহরুখ জন্মদিন পার্টির একসময় তিনি আমাকে ডেকে ছবি সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেছিলেন এবং তখনই ছবিটিতে অংশ নেওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, আমি এই ছবিতে যে কোনও পটভূমি এবং যে কোনও চরিত্রে অভিনয় করতে প্রস্তুত। তাই আমাকে এই ছবির একটি অংশ করো, তখন আমি ভেবেছিলাম তিনি মজা করছেন। দুই দিন পরে আমার ম্যানেজারের কাছ থেকে একটি টেক্সট পেলাম যে, ‘খান সাহেব শুটিংয়ের তারিখ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করছেন’। এইভাবেই তিনি আমাদের চলচ্চিত্রের একটি অংশ হয়ে গেলেন। ”রকেট্রি: দ্য নাম্বি ইফেক্ট’ মূলত নামবি নারায়ণের জীবনের উপর ভিত্তি করে তৈরি, যিনি ওঝজঙ (ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা) এর প্রাক্তন বিজ্ঞানী এবং মহাকাশ প্রকৌশলী ছিলেন। চলচ্চিত্রটি রচনা, প্রযোজনা ও পরিচালনা করেছেন, মাধবন এবং তিনিই এই ছবিতে প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করছেন। গল্পটি প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটিতে পড়ার সময়ে একজন স্নাতক ছাত্র হিসাবে নারায়ণের জীবনের উপর বিস্তৃত, একজন বিজ্ঞানী হিসাবে তাঁর কাজ এবং তাঁর উপর মিথ্যা গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ আনা সবকিছুই এই ছবিটিতে দেখা যাবে।