December 6, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, June 17th, 2021, 6:38 pm

বিশ্বনাথে গৃহবধূকে নির্যাতন করে হত্যা করায় ভাসুর আটক

এস.এ শফি, সিলেট
সিলেটের বিশ্বনাথে এক গৃহবধূকে নির্যাতন করে মেরে ফেলার অভিযোগ ওঠেছে স্বামী, ভাসুর ও ভাসুরের স্ত্রীর বিরুদ্ধে। নিহত গৃহবধূর নাম বেলি বেগম (২১)। তিনি সুনামগঞ্জের ছাতক থানার দক্ষিণ কুরসি গ্রামের লাল মিয়ার মেয়ে।
ওই গৃহবধূর মৃত্যুর ঘটনায় সন্দেহজনকভাবে ভাসুরকে গ্রেফতার করেছে বিশ্বনাথ থানা পুলিশ। তবে স্বামী পলাতক রয়েছেন। সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার বিশ্বনাথেরগাঁও-এর মদরিস আলীর ছেলে আহমদ আলীর সঙ্গে এক বছর আগে বেলির বিয়ে হয়।
গ্রেফতারের বিষয়টি বুধবার রাতে নিশ্চিত করেছেন বিশ্বনাথ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গাজী আতাউর রহমান।
বেলির স্বজনদের অভিযোগ- বিয়ের পর পরই স্বামী তাকে নির্যাতন শুরু করেন। এতে সহযোগী ছিলেন বেলির ভাসুর মাহমদ আলী, তার স্ত্রী পারভিন বেগম ও মেয়ে সালমা বেগম। গত ৯ মাস আগে এভাবে নির্যাতন করার সময় স্বামী আহমদ আলী লাথি মেরে বেলি বেগমের গর্ভের বাচ্চা নষ্ট করে ফেলেন। পরে বেলিকে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে হয়।
এরপর বেলি বেগম বাবার বাড়ি ছাতকে চলে যান। কিন্তু কয়েকদিন আগে আবারও তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং সিলেট এম এ জি সমানী হাসপাতালে ভর্তি হন। তবে বেলি পুরোপুরি সুস্থ হননি। ওসমানী হাসপাতাল থেকে মঙ্গলবার দিনে বাবার বাড়ি যাওয়ার পর রাত ৮টার দিকে বেলি বেগম মারা যান।
খবর পেয়ে ছাতক থানার একদল পুলিশ বেলি বেগমের বাবার বাড়িতে গিয়ে লাশ ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ জেলা হাসপাতালে প্রেরণ করেন। ময়নাতদন্ত শেষে বুধবার বিকেলে বেলি বেগমের লাশ বাবার বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
বেলি বেগমের চাচাতো বোনের স্বামী সুহেল মিয়া অভিযোগ করে বলেন, তার স্বামী আহমদ আলীর পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে ভাবি পারভিনের সঙ্গে। এর জন্য বিয়ের পর থেকেই বেলিকে সহ্য করতে পারতো না আহমদ আলী ও তার ভাবি পারভিন এবং তারা দুজনে মিলে বেলিকে নির্যাতন করা শুরু করে। আহমদ আলী লাথি মেরে বেলির ৩ মাসের গর্ভের সন্তানও নষ্ট করে ফেলে।
এদিকে, ছাতক থানাপুলিশের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বেলি বেগমের ভাসুর সিএনজি অটেরিকশা চালক মাহমদ আলীকে বুধবার গ্রেফতার করে বিশ্বনাথ থানাপুলিশ। তাকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।
এ বিষয়ে বিশ্বনাথ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গাজী আতাউর রহমান বলেন, সন্দেহবশত মাহমদ আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বেলি বেগমের বাবার পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হলে তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।