May 20, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, February 20th, 2022, 8:10 pm

বিশ্বনাথে হকারদের দখলে ফুটপাত, বেড়েছে যানজট

জেলা প্রতিনিধি, সিলেট :
সিলেটের বিশ্বনাথ পৌর শহরের রাস্তার পাশের ফুটপাত দখল করে দেদারছে ব্যবসা করছেন ব্যবসায়ীরা। এতে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন পথচারীরা। পৌর শহরের একমাত্র পুরান ও নতুন বাজার এলাকার বাসিয়া ব্রিজ ও এর আশপাশের এলাকা এখন অস্থায়ী ব্যবসায়ীদের দখলে। সাধারণ মানুষের চলাচলের জায়গায় অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে ভ্রাম্যমাণ কাপড় ও চটপটি-ফুচকার দোকান। ফুটপাতে সারাক্ষণ রাখা থাকে সিএনজিচালিত অটোরিকশা এবং ব্যাটারিচালিত রিকশাসহ আশপাশের দোকানগুলোর মালামাল।
শহরের পুরানবাজার এলাকায় ইউনিয়ন পরিষদের সামনে অবৈধভাবে গড়ে তোলা হয়েছে সিএনজিচালিত অটোরিকশার স্ট্যান্ড। সামনের অংশ পর্যন্ত থাকা ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে গড়ে উঠেছে কাঁচাবাজার ও ফলের দোকান। এ কারণে স্বচ্ছন্দে চলাচল করতে পারছেন না পথচারীরা। যান চলাচলে ঘটছে ব্যাঘাত, সারাক্ষণই লেগে থাকছে জট। গত বেশ কিছুদিন ধরে দেখা যায়, পৌর শহরের একমাত্র বাসিয়া ব্রিজ ও আশপাশের দুইপাড়ের রাস্তা দখলে চলে গেছে। সেখানে বসেছে শতাধিক শাকসবজি, ফলমূল, তরিতরকারি ও চটপটি-ফুচকার দোকান। তিন ফুট চওড়া ফুটপাত এত সরু হয়ে গেছে যে হেঁটেও চলাচল করা যাচ্ছে না। ফুটপাত দখল করে এসব দোকানি বসছেন স্থায়ীভাবেই। আর যারা ফুটপাতে জায়গা পাচ্ছেন না, তারা মালামাল নিয়ে বসে পড়েছেন রাস্তার উপরেই। এমনকি রাস্তার বিভাজকের উপরেও রাখা আছে ফলের ঝুড়ি, সবজির বস্তা প্রভৃতি। ফলে ঝুঁকি নিয়ে পথচারীদের চলাচল করতে হচ্ছে মূল সড়কের মাঝ বরাবর।
এ বিষয়ে কথা হলে সাংবাদিক ও কবি সাইদুর রহমান সাঈদ বলেন, কাউকে না কাউকে চাঁদা না দিয়ে হকারদের পক্ষে ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করা সম্ভব নয়। এই পথেই আমাদের নিয়মিত যাতায়াত করতে হয়। কিন্ত বর্তমানে ফুটপাতের পুরো অংশেই বাজার বসে গেছে। হেঁটে চলাচলের আর কোনো উপায় নেই। দিন দিন ফুটপাত দখলদাররা বেড়েই চলেছে।
ফুটপাত দিয়ে হাঁটতে গিয়ে ভিড়ের কারণে সামনে এগোতে পারছিলেন না এক পথচারী। তিনি তখন অক্ষেপ করে বলেন, ফুটপাতের যেটুকু অংশ ফাঁকা আছে, সেটা তো লোকজনের চলাচলের জন্য নয়। ওই অংশটা ক্রেতাদের দাঁড়িয়ে কেনাকাটা করার জন্য।
জগন্নাথপুর রোডস্থ বিশ্বনাথ পুরানবাজারের আল হেরা মার্কেটের সামনের সড়কে হেঁটে চলাচল করতে পারা ভাগ্যের ব্যাপার। সিএনজিচালিত অটোরিকশার অবৈধ পার্কিং আর ফুটপাতে ফলের দোকান- সব মিলিয়ে একটা প্রচ- বিশৃঙ্খল অবস্থা এখানে। একটু পরপর লেগে যায় যানজট।
ফুটপাত দখলমুক্ত করার বিষয়ে বিশ্বনাথ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গাজী আতাউর রহমান বলেন, পুলিশ নিয়মিতভাবেই সড়ক যানজটমুক্ত করতে কাজ করছে। হকাররা দেশের একটি বড় ইস্যু। আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় এ বিষয়ে কথা বলেছি। আশা রাখি এ বিষয়ে একটা সিদ্ধান্তে যেতে পারবো।
এ বিষয়ে বিশ্বনাথ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও পৌর প্রশাসক নুসরাত জাহানের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, উপজেলা ও পৌর শহরে যে সকল অবৈধ দোকান ও যানবাহন রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে শিগগির ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ফুটপাত দখলমুক্ত করতে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় এ বিষয়ে কথা বলবো।