September 27, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, December 2nd, 2021, 7:59 pm

বেনজেমার গোলে রিয়ালের কষ্টের জয়

অনলাইন ডেস্ক :

শুরুতে কিছুটা সাদামাটা রিয়াল মাদ্রিদ জ¦লে উঠল সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে। বেশ কয়েকটি আক্রমণ তৈরি করে দিলেন ভিনিসিউস জুনিয়র। বলের নিয়ন্ত্রণ এবং আক্রমণের তুলনায় অবশ্য মিলল না গোল। তবে আথলেতিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে ঠিকই স্বস্তির জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ল কার্লো আনচেলত্তির দল। সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে বুধবার রাতে লা লিগার ম্যাচটি ১-০ গোলে জিতেছে রিয়াল। জয়সূচক গোলটি করেন ফরাসি ফরোয়ার্ড করিম বেনজেমা। লা লিগায় এই নিয়ে টানা পাঁচ জয়ে রিয়াল ১৫ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান আরও মজবুত করেছে। ২৯ করে পয়েন্ট নিয়ে যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে আছে আতলেতিকো মাদ্রিদ ও রিয়াল সোসিয়েদাদ। আতলেতিকো অবশ্য এক ম্যাচ কম খেলেছে। আগের ম্যাচের একাদশে একটি পরিবর্তন আনেন রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলত্তি। সেন্টার-ব্যাক দানি কারভাহালের বদলে খেলান লুকাস ভাসকেসকে। লা লিগায় বিলবাওয়ের বিপক্ষে সবশেষ ১২ ম্যাচ অজেয় থাকা রিয়াল শুরু থেকে বলের নিয়ন্ত্রণে আধিপত্য করতে থাকে। যদিও আক্রমণে ধার ছিল না তেমন একটা। ষষ্ঠ মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগটি পায় রিয়াল। বাঁ দিক দিয়ে বক্সে ঢুকে ভিনিসিউস জুনিয়র দারুণ ক্রস বাড়িয়েছিলেন দূরের পোস্টে থাকা বেনজেমার উদ্দেশ্যে। কিন্তু বিলবাও গোলরক্ষক উনাই সিমোন দ্রুত পথ আগলে দাঁড়ানোয় এবং এক ডিফেন্ডারের চ্যালেঞ্জে ঠিকঠাক শট নিতে পারেননি বেনজেমা। ২০তম মিনিটে পাল্টা আক্রমণে এগিয়ে যেতে পারত লিগে আগের পাঁচ ম্যাচে জয়হীন বিলবাও। রিয়াল ডিফেন্ডার এদের মিলিতাও তালগোল পাকানোয় মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের বাড়ানো লং পাস পেয়ে যান ইনাকি উইলিয়ামস। কিন্তু তার শট মিলিতাওয়ের পায়ে লেগেই পোস্টের বাইরে যায়। ২৬তম মিনিটে ইকের মুনিয়াইনের ফ্রি কিকে রাউল গার্সিয়ার ডাইভিং হেড কোনোমতে পা দিয়ে আটকে দেন রিয়ালের গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া। পরের মিনিটেই বক্সের বাইরে থেকে পোস্টের অনেক বাইরে শট নিয়ে হতাশা বাড়ান বেনজেমা। প্রথমার্ধের শেষ দিকে বিলবাওয়ের রক্ষণে চাপ বাড়াতে থাকে রিয়াল। সিমোন বরাবর শট নেওয়ার পর ক্রুস আবারও হতাশ হন ৩৯তম মিনিটে। জার্মানির এই মিডফিল্ডারের জোরালো শট ফিস্ট করার পর দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় গ্লাভসে নেন বিলবাও গোলরক্ষক। পরের মিনিটেই কাঙিক্ষত গোল পেয়ে যায় রিয়াল। বক্সের একটু উপর থেকে মার্কো আসেনসিওর জোরালো শট সিমোন ঝাঁপিয়ে ঠেকালেও বল চলে যায় বক্সের ভেতরে ফাঁকায় থাকা লুকা মদ্রিচের পায়ে। এই ক্রোয়াট মিডফিল্ডারের ছোট পাসে বেনজেমার প্লেসিং শট খুঁজে নেয় জাল। লিগে ফরাসি ফরোয়ার্ডের গোল হলো ১২টি। ৫৪তম মিনিটে মদ্রিচের ব্যাক পাস এক সতীর্থ ব্যাক হিলে বাড়িয়ে দেওয়ার পর ক্রুসের বাঁকানো শট অল্পের জন্য বাইরে যায়। ৭১তম মিনিটে পজেশন নেওয়ার ভঙ্গি করে গায়ের সঙ্গে সেঁটে থাকা বিলবাওয়ের এক খেলোয়াড়কে বোকা বানিয়ে বল বের করে নিলেও শেষ পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি ভিনিসিউস জুনিয়র। ৭৫তম মিনিটে একক প্রচেষ্টায় রিয়ালের একাধিক খেলোয়াড়কে কাটিয়ে বক্সে ঢুকে শট নিয়েছিলেন ওইহান। ছুটে এসে পা দিয়ে আটকে রিয়ালকে জয়ের পথে রাখেন কোর্তোয়া। নির্ধারিত সময় শেষের পাঁচ মিনিট আগে মিকেল ভেসগার হেড মিলিতাওয়ের হাতে লাগলে পেনাল্টির আবেদন করে বিলবাও। কিন্তু হাত ঠিক পজিশনে থাকায় রেফারির সাড়া মেলেনি। দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে বিলবাওয়ের কর্নার কোর্তোয়া ফিস্ট করে ফেরালে ৩ পয়েন্ট নিশ্চিত হয়ে যায় রিয়ালের। টানা দুই ড্রয়ের পর লা লিগায় এবার হেরে গেল বিলবাও। ১৫ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে অষ্টম স্থানে আছে তারা।