February 22, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, February 26th, 2023, 7:53 pm

বৈশ্বিক মন্দার মধ্যেও অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে যথাসাধ্য চেষ্টা করছি: প্রধানমন্ত্রী

ছবি: পি আই ডি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার মধ্য দিয়ে গেলেও তার সরকার দেশের অর্থনীতিকে সচল রাখতে সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘পুরো বিশ্ব যখন কোভিড-১৯ এবং ইউক্রেন যুদ্ধসহ অন্যান্য কারণে সৃষ্ট মন্দার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, তখন আমাদের প্রচেষ্টা আমাদের অর্থনীতিকে সচল রাখা। আমরা এটি করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করছি।

রবিবার প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে একটি ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে তার সাবেক রাজনৈতিক উপদেষ্টা ড. এস এ মালেকের মৃত্যুতে একটি স্মারক আলোচনার বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

রাজধানীর কলাবাগানে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ডা. মালেকের স্মরণে আলোচনার আয়োজন করে, যিনি ২০২২ সালের ৬ ডিসেম্বর মারা যান।

শেখ হাসিনা বলেন, তার সরকার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বাংলাদেশ গড়ছে।

‘আমরা বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করতে পেরেছি। একদিন এই বাংলাদেশ উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে উঠবে।’

প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছড়িয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে ডা. মালেকের অবদানের কথা স্মরণ করেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়ন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বহনে তিনি সবসময়ই আন্তরিক ছিলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে জনগণের সামনে তুলে ধরতে যে কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন ড. মালেক তাদের একজন।

তিনি আরও বলেন, অনেক প্রতিকূলতার মধ্যেও তিনি জাতির পিতার আদর্শকে জনগণের সামনে তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের গণহত্যার পর বঙ্গবন্ধুকে হত্যার প্রতিবাদ এবং তার আদর্শকে জনগণের সামনে তুলে ধরতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ গঠন করা হয়েছিল।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ জনগণের সামনে তুলে ধরতে প্রধান ভূমিকা পালনকারী ড. এস এ মালেক তাদের একজন।

শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতার প্রবর্তিত ‘দ্বিতীয় বিপ্লব’ শব্দের সঙ্গে জনগণকে পরিচিত করতে প্রয়াত এই নেতার বিরাট ভূমিকা ছিল।

তিনি বলেন, ডা. মালেক এবং ঢাকা সিটির সাবেক মেয়র প্রয়াত মোহাম্মদ হানিফ তাকে আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত করার ক্ষেত্রে (১৯৮১ সালে) সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। কারণ তারা জনমত তৈরি করেছিলেন এবং দলীয় ফোরামে নিয়েছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এমনকি তিনি বারবার আওয়ামী লীগের সভাপতি হওয়ার জন্য ড. মালেককে তিরস্কার করেছেন।

মালেক একজন রাজনীতি সচেতন ব্যক্তি উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, দেশের প্রতিটি গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল আন্দোলনে তার ভূমিকা রয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধে ডা. মালেকের অবদানের কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি অস্ত্র হাতে রণাঙ্গনে অত্যন্ত বীরত্বের সঙ্গে যুদ্ধ করেছিলেন।

এ প্রসঙ্গে তিনি বঙ্গবন্ধু পরিষদ গঠনে ড. মতিন চৌধুরীসহ অন্যান্যদের অবদানের কথা স্মরণ করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

অনুষ্ঠানে জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য অজিত কুমার সরকার ‘ডক্টর এস এ মালেক: কারেজ পারসোনিফাইড অ্যান্ড শেপড বাই বঙ্গবন্ধু’স আইডিয়ালস’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. আখতারুজ্জামান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল খালেক ও ডা. এসএ মালেকের ছেলে এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসক শেখ আবদুল্লাহ আল মামুন।

—-ইউএনবি