June 30, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, May 8th, 2022, 7:44 pm

ব্রাইটনের মাঠে পারলো না ইউনাইটেড

অনলাইন ডেস্ক :

ঘরের মাঠে আলো ঝলমলে ফুটবল উপহার দিল ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিয়ন। আক্রমণাত্মক ফুটবলের পসরা সাজিয়ে আদায় করে নিল একের পর এক গোল। এর বিপরীতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে চিনতে হলো জার্সি দেখে। দিক হারনো দলকে কক্ষপথে ফেরাতে পারলেন না কেউ। এর মাসুল দিতে হলো বিব্রতকর এক হার দিয়ে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে শনিবার ৪-০ গোলে জিতেছে ব্রাইটন। মোইসেস কেইসেদো দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মার্ক কুকুরেইয়া। পাসকেল গ্রসের গোলের পর ফল নিয়ে অনিশ্চয়তা প্রায় শেষ করে দেন লিওনার্দো ট্রসার্ড। প্রতিপক্ষের মাঠে সবশেষ ৫ ম্যাচে এ নিয়ে ১৬ গোল হজম করল ইউনাইটেড। আক্রমণাত্মক শুরু করা ব্রাইটন পঞ্চদশ মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগে এগিয়ে যায়। গ্রসের শট ইউনাইটেডের একজন ব্লক করলে পেয়ে যান কেইসেদো। ২৫ গজ দূর থেকে একুয়েডরের এই মিডফিল্ডারের বুলেট গতির শট কাছের পোস্ট দিয়ে খুঁজে নেয় ঠিকানা। চলতি আসরে প্রতিপক্ষের মাঠে আগের চার ম্যাচে হারা ইউনাইটেড পিছিয়ে পড়ার পর জবাব দেওয়ার চেষ্টা করে। তবে তাদের আক্রমণে ছিল না তেমন কোনো ধার। সেভাবে চেপে ধরতে পারনি স্বাগতিকদের। প্রথমার্ধে একটি শটও লক্ষ্েয রাখতে পারেনি তারা। প্রাণবন্ত ফুটবল উপহার দেওয়া ব্রাইটন ধরে রাখে চাপ। আক্রমণাত্মক ফুটবলে রক্ষণে ব্যস্ত রাখে ইউনাইটেডকে। ৪২তম মিনিটে ব্যবধান প্রায় দ্বিগুণ করেই ফেলেছিল স্বাগতিকরা। গোলরক্ষক রবের্ত সানচেসের লম্বা শট ঠেকাতে গিয়ে বিপদ ডেকে আনেন রাফায়েল ভারানে। ফরাসি ডিফেন্ডার বল দিয়ে বসেন ড্যানি ওয়েলব্যাককে। আগুয়ান গোলরক্ষক দাভিদ দে হেয়ার মাথার উপর দিয়ে পাঠানো বল চলে যায় ক্রসবারের উপর দিয়ে। তাই বাড়েনি ব্যবধান। আক্রমণে ধার বাড়াতে বিরতির পর এদিনসন কাভানি ও ফ্রেদকে নামান রাংনিক। দুই বদলি খেলোয়াড় কোনো প্রভাব ফেলার আগেই ব্যবধান বাড়িয়ে নেয় ব্রাইট। ট্রসার্ডের কাট ব্যাক পেয়ে খুব কাছ থেকে বুলেট গতির শটে জাল খুঁজে নেন কুকুরেইয়া। চোখে জল নিয়ে ইংলিশ ফুটবলে নিজের প্রথম গোল উদযাপন করেন এই স্প্যানিশ ডিফেন্ডার। ৪৮তম মিনিটের এই গোলের পর যেন দিশা হারিয়ে ফেলে ইউনাইটেড। ৫৭তম মিনিটে স্কোর লাইন ৩-০ করে ফেলেন গ্রস। গোলরক্ষক সানচেজের লম্বা করে বাড়ানো বল ধরে কুকুরেইয়া খুঁজে নেন ট্রসার্ডকে। কেউ এগিয়ে এসে বাধা দেওয়ার আগেই তিনি বল বাড়ান গ্রসকে। বাকিটা অনায়াসে সারেন এই জার্মান মিডফিল্ডার। ইউনাইটেডকে হতাশায় ডুবিয়ে তিন মিনিট পর ব্যবধান আরও বাড়ায় ব্রাইটন। ওয়েলব্যাকের শট বাইসাইকেল কিকে গোললাইন থেকে ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন দিয়েগো দালোত। ঠিক মতো পারেননি, তার পেছনেই থাকা ট্রসার্ডের বুকে লেগে জড়ায় জালে। চলতি মৌসুমে লিগে এ পর্যন্ত ৫৬ গোল হজম করল ইউনাইটেড। প্রিমিয়ার লিগের এক আসরে যা তাদের সর্বোচ্চ। ৬৩তম মিনিটে কাভানির চেষ্টা রুখে দেন ব্রাইটন গোলরক্ষক সানচেস। দুই মিনিট পর ব্রাইটনের আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড আলেক্সিস মাক আলেস্তের শট দালোতের গা ছুঁয়ে পোস্টে লেগে বাইরে চলে যায়। ৭১তম মিনিটে জালে বল পাঠান কাভানি। তবে উরুগুয়ের অভিজ্ঞ এই স্ট্রাইকার নিজেই অফসাইডে থাকায় গোল মেলেনি। শেষ দিকে গোলের জন্য বেশ চেষ্টা করলেও সাফল্েযর দেখা পায়নি ইউনাইটেড। অনেক সতীর্থর মতো এই ম্যাচে নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোও। ৩৭ ম্যাচে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে ছয়েই আছে ইউনাইটেড। তবে একাদশ হারে শেষ হয়ে গেল তাদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আশা।