July 17, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, February 4th, 2024, 2:00 pm

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মধ্যরাতে জটিকা অভিযান, ড্রাম ট্রাক ও এস্কেভেটর জব্দ, মামলা

জেলা প্রতিনিধি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া:

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার বুধন্তি ইউনিয়নের বুধন্তি গ্রামের পশ্চিম দিকে বহমান ৭ কি. মি সোনাই নদী, দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে পলিমাটি দ্বারা ভরাট হয়ে নদীর নাব্যতা হারায়, নদীর পাড় না থাকায় এতে অল্প পানিতে তলিয়ে যায় ফসলের মাঠ, তাই নদী সংস্কার ও পাড় তৈরি করা একান্ত আবশ্যক হয়ে পড়ে, নদীর নাব্যতা ফিরে পেতে, কৃষি উৎপাদন বেগবান করতে, কৃষিতে পানির প্রয়োজনীয়তা সুনিশ্চিত করতে সে লক্ষ্যে সরকার গত ২০১৯- ২০ অর্থবছরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে নদী খনন করে এর মাটি নদীর দুই পাড় তৈরি করে ।

এ বিষয়ে এলাকাবাসী জানায়, রাতের আঁধারে নদী পাড়ের মাটি গায়েব হয়ে যাচ্ছে। অনেক দিন থেকেই বুধন্তি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও বুধন্তি গ্রামের তৈয়ব আলী মিয়ার ছেলে মনির হোসেন (৪৩) তার সঙ্গীয় আরও বেশ কিছু লোকজন মিলে এস্কেভেটরের সাহায্যে মাটি কেটে এবং ড্রাম ট্রাকে লোড দিয়ে রাতের আঁধারে এই মাটি ব্রিক ফিল্ডে বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা কামাচ্ছে ।

২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বুধন্তি মৌজার ১ ন¤॥^র খাস খতিয়ানের ৬০৫২ দাগে নদী শ্রেণির জায়গা থেকে মনিরের নেতৃত্বে মাটি কাটা হচ্ছে মর্মে খবর পেয়ে রাত ১:৩০ মিনিটে এসিল্যান্ড ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট বিজনগর মেহেদি হাসান শাওন (ইসলামপুর পুলিশ ফাঁড়ি পুলিশ নয়) থানা পুলিশ এস আই জুয়েল রানা সঙ্গীয় ফোর্স এর সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করে, প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা সবাই পালিয়ে যায় এ সময় ৩ টি ড্রাম ট্রাক্ট এবং ১ টি এস্কেভেটর জব্দ করা হয়,

এ বিষয়ে ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা আবুল কাশেম (আ: দা:) বুধন্তি গ্রামের তৈয়ব আলী মিয়ার ছেলে মনির ও অজ্ঞাত ৭-৮ এর নামে থানায় আজহার দায়েরে আবেদন করেন।

গ্রামবাসী এ অপারেশনের জন্য প্রশাসনকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ।
তাহারা আরো জানায় গত বছর একই সময়ে উক্ত মনিরের বিরুদ্ধে উক্ত এসিল্যান্ড তাকে আইনের আওতা নিয়ে আসে কিন্তু আইনের ফাঁকে সে বেরিয়ে এসে আবার নতুন উদ্যমে প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে মাটি কাটতে শুরু করে । মনিরের শাস্তি সুনিশ্চিত এবং এ ধরনের দুঃসাহসিক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা যেন পুনরায় না করতে পারে এর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান।

এ বিষয়ে বিজয়নগর থানা ভারপ্রাপ্তা কর্মকর্তা আসাদুল ইসলাম জানান, ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা হতে মূল আসামি ১জন এবং অজ্ঞাতনামা ৭-৮ জন এবং ৩ টি ড্রাম ট্রাক এবং ১ টি এস্কেভেটর জব্দের ভিত্তিতে মামলা রুজুর আবেদনের ভিত্তিতে আজ ৩ ফেব্রুয়ারি মামলা দায়ের হয়েছে নং- ৯/ ২০২৪

এ বিষয়ে সহকারি কমিশনার ভূমি মেহেদী হাসান শাওন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ধরনের অভিযান চলমান থাকবে.