September 28, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, September 7th, 2022, 1:49 pm

ভারতীয় বিনিয়োগকারীরা বাই-ব্যাক ব্যবস্থার মাধ্যমে বাংলাদেশে শিল্প স্থাপন করতে পারে: প্রধানমন্ত্রী

ছবি: সংগৃহীত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার বলেন, বৃহত্তর অর্জনের জন্য বাংলাদেশ-ভারত সহযোগিতা বাণিজ্যের বাইরেও যেতে হবে।

তিনি বলেন, ‘এতে বিনিয়োগ, অর্থ, পরিষেবা, প্রযুক্তি স্থানান্তর অন্তর্ভুক্ত করা উচিত এবং আঞ্চলিক সহযোগিতার প্রেক্ষাপটে স্থাপন করা উচিত।’

নয়াদিল্লির আইটিসি মৌরিয়াতে ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) এবং কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রি (সিআইআই) যৌথভাবে আয়োজিত একটি ব্যবসায়িক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের অবকাঠামো প্রকল্প, উৎপাদন, জ্বালানি ও পরিবহন খাতে সম্ভাব্য বিনিয়োগ বিবেচনা করার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘ভারতীয় বিনিয়োগকারী এবং ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলো বাই-ব্যাক ব্যবস্থার মাধ্যমে বাংলাদেশে শিল্প স্থাপন করতে পারে যা সময়, খরচ এবং সম্পদ হ্রাস করে।’

প্রধানমন্ত্রী জানান, ২০২১-২০২২ অর্থবছরে বাংলাদেশে মোট বিদেশি বিনিয়োগ (এফডিআই) প্রবাহ ছিল এক হাজার ৩৭০ দশমিক ৩৫৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এর মধ্যে মাত্র ১৫ দশমিক ৭৫ মিলিয়ন ডলার ভারত থেকে এসেছে, যা এক দশমিক ১৫ শতাংশ।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সুতরাং স্পষ্টতই, দ্বিমুখী বাণিজ্য এবং বিনিয়োগের সুবিধা অর্জনের উপায় খুঁজে বের করার জন্য ব্যবসায়িক সম্প্রদায় এবং বাণিজ্য সংস্থাগুলোকে সম্পর্কিত করার মাধ্যমে আমাদের দুই দেশের মধ্যে আরও সহযোগিতার প্রকৃত প্রয়োজন রয়েছে।’

এ প্রসঙ্গে তিনি উল্লেখ করেন যে বাংলাদেশে সবচেয়ে উদার বিনিয়োগ ব্যবস্থা রয়েছে যেখানে বিস্তৃত সুযোগ-সুবিধা, আকর্ষণীয় প্রণোদনা নীতি এবং ধারাবাহিক সংস্কার রয়েছে।

তিনি বলেন, বর্তমানে ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং ২৮টি হাই-টেক পার্ক স্থাপন করা হচ্ছে। যার লক্ষ্য শিল্প, কর্মসংস্থান, উৎপাদন ও রপ্তানি বৃদ্ধি ও বহুমুখীকরণের মাধ্যমে বিনিয়োগ এবং দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়নকে উৎসাহিত করা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের জন্য মোংলা এবং মিরসরাইয়ে দুটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে।

তিনি উল্লেখ করেন যে ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের তাদের পণ্যগুলো শুধুমাত্র উত্তর-পূর্ব ভারতে নয়, নেপাল, ভুটান এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতেও রপ্তানি করতে সক্ষম করার জন্য বাংলাদেশ অনন্যভাবে অবস্থিত।

গত দশ বছরে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে মোট দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য একটি চিত্তাকর্ষক বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ভারসাম্য অনেকটাই ভারতের পক্ষে ছিল।

বর্তমানে উন্নত উৎপাদন ক্ষমতাসহ বাংলাদেশের ভারতের বাজারে প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে মানসম্পন্ন পণ্য সরবরাহ করতে প্রস্তুত, যোগ করেন তিনি।

—ইউএনবি