February 4, 2023

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, December 1st, 2022, 7:50 pm

‘মিসেস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’র আয়োজক দম্পতি গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক :

টাকা আত্মসাৎ, ভয়ভীতি দেখানো ও হুমকির অভিযোগে মিসেস ইউনিভার্স বাংলাদেশের এবারের প্রতিযোগী ‘মিসেস এশিয়া বাংলাদেশ’ বিজয়ী খাদিজা আক্তার রাহা’র করা মামলায় প্রতিযোগিতার আয়োজক দম্পতিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত বুধবার রাতে রাজধানীর গুলশান থানায় মামলা দায়েরের পর তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। মামলায় তিনি অভিযোগ করেন, থাইল্যান্ডে মিসেস এশিয়া ইন্টারন্যাশনাল-২০২২ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে দেবে এই প্রতিশ্রুতিতে ছয় লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে আয়োজক প্রতিষ্ঠানটি। পরে তিনি টাকা চাইতে গেলে তাকে নানাভাবে হুমকি দেওয়া হয়। গত ২০ নভেম্বর বাংলাদেশের প্রতিনিধি হিসেবে থাইল্যান্ডে যাওয়ার কথা ছিল তার। গুলশান থানার একটি সূত্র জানিয়েছে, মামলায় তদন্তে নেমে বিষয়টির সত্যতা মেলে। পরে প্রতিযোগিতার আয়োজক প্রতিষ্ঠান অপূর্ব ডটকমের মালিক অপূর্ব আবদুল লতিফ ও তার স্ত্রী আফসানা হেলালি ওরফে জোনাকিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর আগে গুলশান থানায় গত ২৭ নভেম্বর আয়োজকের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন রাহা। জিডি নম্বর ১৯৪৪/২৭-১১-২০২২। তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি। মামলার পরে অভিযুক্ত অপূর্ব আবদুল লতিফ ও তার স্ত্রী আফসানা হেলালিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গুলশান থানার থানার ডিউটি অফিসার জানিয়েছেন, টাকা আত্মসাৎ ও প্রতারণার মামলায় অপূর্ব আবদুল লতিফ ও তার স্ত্রী আফসানা হেলালিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশের গুলশান বিভাগের উপকমিশনার আবদুল আহাদ মামলা ও গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘বুধবার রাতে ভুক্তভোগী প্রতিযোগী রাহা প্রতারণার অভিযোগে গুলশান থানায় মামলা করেছেন। ওই মামলায় স্বামী-স্ত্রীকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। রাহা গণমাধ্যমে বলেন, থাইল্যান্ডে ‘মিসেস এশিয়া’র মূল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাওয়া যাবে এমন আশ্বাস দিয়ে ৮ নভেম্বর ছয় লাখ টাকা নেন অপূর্ব আবদুল লতিফ। গত ২০ নভেম্বর থাইল্যান্ডে নির্ধারিত আয়োজনে অংশ নিতে আবারও ১৪ লাখ টাকা দাবি করেন। এই টাকা না দেওয়ায় নানাভাবে হয়রানি ও ভয়ভীতি দেখান। তারা বয়ফ্রেন্ড ম্যানেজ করে দেওয়া, এমনকি ১৪ লাখ টাকা যোগাড় করে বিদেশ নিয়ে যাওয়ার কথাও বলেন। রাহার দাবি, মোটা অঙ্কের এই টাকা দিতে রাজি হননি বলেই থাইল্যান্ডে ‘মিসেস এশিয়া ২০২২’-এ অংশ নেওয়া হয়নি তার। পরে রাহা তার দেওয়া ছয় লাখ টাকা ফেরত চাইলে আয়োজক প্রতিষ্ঠান তা দিতেও অস্বীকৃতি জানায় এবং ভয়ভীতি ও হুমকি দেয়। রাহা একজন শিক্ষানবীশ আইনজীবী। ‘মিসেস ইউনিভার্সেস বাংলাদেশ-২০২২’ শুরু হলে সেখানে তিনি নাম লেখান। গত ২৭ নভেম্বর রোববার গুলশান থানায় করা জিডিতে রাহা উল্লেখ করেন, মিসেস এশিয়া নির্বাচিত হওয়ার পর ২০ নভেম্বর থেকে থাইল্যান্ডে ‘মিসেস এশিয়া ইন্টারন্যাশনাল ২০২২’ অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কথা ছিল তার। সেখানে পাঠানোর কথা বলে অপূর্ব ডটকমের মালিক ও তার স্ত্রী ভিসা, বিমান ভাড়া, খাওয়া-দাওয়া, থাকা ও অনুষ্ঠানের জন্য পোশাক কেনা বাবদ তার কাছ থেকে ছয় লাখ টাকা ও পাসপোর্ট নিয়েছেন। কিন্তু দিন যতই ঘনিয়ে আসছিল কোনো খবর পাচ্ছিলেন না তিনি। এরপর বিষয়টির খোঁজখবর নিতে গেলে তাকে আরও ১৪ লাখ টাকা দিতে বলেন আয়োজকরা।