June 13, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, April 28th, 2024, 7:56 pm

মুখ খুলতে চান না সালাহ

অনলাইন ডেস্ক :

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জয়ের দৌড়ে বেশ ভালোভাবেই ছিল লিভারপুল। তবে হঠাৎ ছন্দপতনে শিরোপার দৌড় থেকে একপ্রকার ছিটকেই গেছে অল রেডরা। তার ওপর যোগ হলো বিদায়ী কোচ ইয়্যুর্গেন ক্লপের সঙ্গে দলের সেরা তারকা মোহাম্মদ সালাহর প্রকাশ্য দ্বন্দ্ব। ওয়েস্ট হাম ইউনাইটেডের বিপক্ষে ম্যাচে সালাহকে মাঠে নামানোর সময় সাইড লাইনে দেখা যায় ক্লপের সঙ্গে তর্কে জড়িয়েছেন তিনি। একপর্যায়ে দলের অন্য খেলোয়াড়রা এসে সালাহকে থামান। ওয়েস্ট হামের বিপক্ষে ম্যাচে ক্লপের সঙ্গে মোহামেদ সালাহর তিক্ত দৃশ্যই দেখা গেল। এভারটনের বিপক্ষে হারের পর লিভারপুলের সাবেক ডিফেন্ডার জেমি ক্যারঘার অল রেডদের দুই তারকা মোহাম্মদ সালাহ ও ডারউইন নুনেজের ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তা করতে বলেছিলেন। এরপরেই এই দুই ফরোয়ার্ডকে ওয়েস্ট হামের বিপক্ষে বেঞ্চে রাখেন ক্লপ।

ম্যাচের ৭৯ মিনিটে সালাহকে মাঠে নামান ক্লপ। তবে ততক্ষণে ম্যাচ ২-২ গোলে সমতায়। তার আগেই মাঠে নামার জন্য টাচলাইনে দাঁড়িয়েছিলেন সালাহ। কিন্তু ৭৭ মিনিটে মিকেইল অ্যান্তোনিও হেডে ওয়েস্ট হামকে সমতায় ফেরানোর পর ক্লপের দিকে তাকিয়ে উত্তপ্ত হয়ে কথা বলতে দেখা যায় সালাহকে। এ সময় মিসরীয় তারকাকে বেশ বিরক্তিও প্রকাশ করেন। ক্লপ কাছে এসে একটু দূরে সরে যাওয়ার পর সালাহকে থামানোর চেষ্টা করেন তার কয়েকজন সতীর্থ। ম্যাচ শেষে তার এমন ব্যবহারের কারণ হিসেবে সাংবাদিকদের সালাহ বলেন, ‘আমি যদি এই ব্যাপারে মুখ খুলি তবে এখানে আগুন জ্বলবে।’ এই ব্যাপারে অল রেড কোচ ইয়্যুর্গেন ক্লপকে প্রশ্ন করে সাংবাদিকরা।

তবে তিনি বলেন, সব ঠিক হয়ে গেছে। ক্লপ বলেন, ‘আমরা ড্রেসিংরুমে এই ব্যাপার নিয়ে কথা বলেছি। আমার জন্য, সব ঠিক হয়ে গেছে।’ তবে এই দ্বন্দ্বের ব্যাপারটি সালাহর কাছে ঠিক হয়েছে কি না তা নিয়ে প্রশ্ন করলে ক্লপ বলেন, ‘আমার তো মনে হয় সালাহর জন্যও এই ব্যাপারটি মিটে গেছে।’ এদিকে ক্লপ এবং সালাহর মধ্যকার দ্বন্দ্বের কারণ হিসেবে সাবেক লিভারপুল খেলোয়াড় জেমি ক্যারঘার টুইটারে লেখেন, ‘কেবল একটা কারণেই কোচ এমন মুহূর্তে খেলোয়াড়ের ওপর ক্ষুদ্ধ হতে পারে। আর সেটা হলো খেলোয়াড়টি যদি মাঠে নামার প্রস্তুতিতে বেশি সময় নেয়।’ ওয়েস্ট হামের বিপক্ষে এই ড্রতে ৩৫ ম্যাচে ২২ জয় ও ৯ ড্রয়ে ৭৫ পয়েন্ট নিয়ে আগের মতো তিনেই আছে লিভারপুল। তাদের চেয়ে দুই ম্যাচ কম খেলে ৭৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে সিটি। ৩৪ ম্যাচে ৭৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে আর্সেনাল। ৩৫ ম্যাচে ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে আটে আছে ওয়েস্ট হাম ইউনাইটেড।