June 27, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, April 27th, 2022, 8:59 pm

মৌলভীবাজারে ৪৯৫ গৃহহীন পরিবারের ঈদ হবে অন্যরকম

এম. মছব্বির আলী, মৌলভীবাজার :

মৌলভীবাজারে তৃতীয় ধাপে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঈদ উপহার হিসেবে আশ্রয়ণের ঘর পাচ্ছেন ৭৭৯টি গৃগহহীন পরিবার। এর মধ্যে ২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার ৪৯৫ টি পরিবারে ঘরসহ কবুলিয়ত হস্তান্তর করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলা ১১টায় ভার্চুয়ালি সারাদেশের ৩২ হাজার ৯০৪টি ঘর উদ্বোধন করেন।

মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে উপকারভোগীদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে সদর উপজেলার ১৮২টি ঘর হস্তান্তর করেন সংসদ সদস্য সৈয়দা জোহরা আলাউদ্দিন, জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবরিনা রহমান প্রমুখ।

এদিকে কুলাউড়া উপজেলায় ১১৩টি ঘরের মধ্যে ৯৭টি ঘর হস্তান্তর করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে গৃহ হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো: মেহেদী হাসান, কুলাউড়া পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কুলাউড়া সার্কেল) সাদেক কাওসার দস্তগীর, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সজল মোল্লা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রেণু, সাধারন সম্পাদক আসম কামরুল ইসলাম, কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিনয় ভূষণ রায় প্রমুখ।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে তৃতীয় পর্যায়ে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রমের আওতায় মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) দেশব্যাপী প্রায় ৩২ হাজার ৯০৪ টি পরিবারকে জমি ও ঘর হস্তান্তর করা হয়। মৌলভীবাজার জেলায় তৃতীয় পর্যায়ে বরাদ্ধকৃত নির্মিতব্য ৭৭৯টি ঘরের মধ্যে ৪৯৫টি ঘরের নির্মাণকাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। উপকারভোগীদের মধ্যে সেগুলো মঙ্গলবার হস্তান্তর করা হয়।

জানা গেছে, তৃতীয় পর্যায়ে ঘর প্রতি ব্যয় হয়েছে ২ লক্ষ ৫৯ হাজার ৫ শত টাকা। এ পর্যায়ে মৌলভীবাজার জেলায় ৭৭৯ টি পরিবারের জন্য ৭৭৯ টি ঘরে সরকারের নির্মাণ ব্যয় হয়েছে ২০ কোটি ২১ লক্ষ ৫০ হাজার ৫ শত টাকা।

তৃতীয় পর্যায়ে মৌলভীবাজার জেলায় ৭৭৯ টি বরাদ্ধকৃত ঘরের মধ্যে মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় রয়েছে ৩৩২টি, শ্রীমঙ্গল উপজেলায় ৫০টি, রাজনগর উপজেলায় ৫৯টি, কমলগঞ্জে ৫০টি, কুলাউড়ায় ১১৩টি, বড়লেখায় ৭০টি এবং জুড়ী উপজেলায় ১০৫টি। বরাদ্ধকৃত ৭৭৯ টি ঘরের মধ্যে মঙ্গলবার জেলায় ৪৯৫টি ঘর হস্তান্তর করা হয। এরমধ্যে মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় ১৮২টি, শ্রীমঙ্গলে ৫০টি, রাজনগরে ৪৫টি, কমলগঞ্জে ৫০টি, কুলাউড়ায় ৯৭টি, বড়লেখায় ৩৬টি এবং জুড়ী উপজেলায় ৩৫টি ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান। উপহারের ঘরগুলো পেয়ে আনন্দে আত্মহারা উপকারভোগীরা। এবারের ঈদ হবে তাদের জন্য অন্যরকম একটি ঈদ। ভাটেরার উপেন্দ্র কর, হাজিপুরের আকছন মিয়া, বিধবা আছমা বেগমসহ অনেক উপকারভোগী জানান, আমরা এতোদিন মানুষের বাড়িতে আশ্রিত ছিলাম। আজ থেকে আমরা নিজেদের স্বপ্নের ঘরে উঠলাম। অনেক ঈদ করেছি কোন আনন্দ ছাড়া। এখন পরিবারের সন্তানদের নিয়ে নিজের ঘরে সুখে শান্তিতে ঈদের আনন্দ উদযাপন করতে পারবো। সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, মৌলভীবাজার জেলায় ভূমিহীন ও গৃহহীন ৪ হাজার ৩২৪ টি। এরমধ্যে আশ্রয়ণ প্রকল্পে প্রথম ধাপে ঘর বরাদ্ধ পেয়েছেন ১১২৬ পরিবার, দ্বিতীয় ধাপে পেয়েছেন ১১৫১ পরিবার এবং তৃতীয় ধাপে পেয়েছেন ৭৭৯ পরিবার।