October 7, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, September 18th, 2022, 7:44 pm

মৌসুমের প্রথম হার বায়ার্নের, সুযোগ কাজে লাগিয়ে শীর্ষস্থান দখল করলো ডর্টমুন্ড

অনলাইন ডেস্ক :

সাত ম্যাচ পর বুন্দেসলিগায় প্রথম পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ পেয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। শনিবার তারা অসবার্গের কাছে ১-০ গোলে হেরে গেছে। এনিয়ে লিগে টানা তিন ড্রয়ের পর চতুর্থ ম্যাচে এসেও পয়েন্ট হারালো বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। এই সুযোগে টিনএজ জার্মান স্ট্রাইকার ইউসুফা মুকোকোর গোলে শালকেকে ১-০ গোলে হারিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। বায়ার্নের পরাজয়ের দিনে ঘরের মাঠে প্রতিপক্ষকে হারিয়ে শীর্ষে ওঠার আরো একটি সুযোগ প্রায় হাতছাড়া করেই ফেলেছিল ডর্টমুন্ড। কিন্তু ১৭ বছর বয়সী মুকোকোর গোলে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছেড়েছে স্বাগতিকরা। অসবার্গের ডব্লিউডব্লিউকে এরিনাতে বেভারিয়ান্স প্রতিবেশীদের উপর পুরো ম্যাচেই দাপট দেখিয়েছে স্বাগতিকরা। তারই ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১১ মিনিটে ফ্লোরিয়ান নিয়েডারলেচনার অসবার্গকে এগিয়ে দেবার সুবর্ন সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু তার শট বায়ার্ন ডিফেন্ডার ডায়ট উপামেকানোর সাথে ডিফ্লেকটেড হলে তা সহজেই রুখে দেন ম্যানুয়েল নয়্যার। ৩২ মিনিটে সাদিও মানে বায়ার্নকে প্রায় এগিয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ডিফেন্ডার ম্যাক্স বয়ার তা ক্লিয়ার করেন। গত মৌসুমে এই অসবার্গের কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হয়ে পয়েন্ট হারিয়েছিল বায়ার্ন। কাল একের পর এক কাউন্টার এ্যাটাকে তারা বায়ার্ন রক্ষনভাগকে ব্যস্ত করে তুলেছিল। শেষ পর্যন্ত ফ্রি-কিক থেকে তারা ডেডলক ভাঙ্গতে সক্ষম হয়। ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার ইয়াগোর সহায়তায় মারগিম বেরিশা ৫৯ মিনিটে গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন। বায়ার্ন কোচ জুলিয়ান নাগলসম্যান ম্যাচে ফিরে আসার লক্ষ্যে রাইট-ব্যাক নুসাইর মাজরাওয়ির স্থানে ফরোয়ার্ড সার্জি গ্যানাব্রিকে মাঠে নামান। ম্যাচের সময় যতই গড়িয়েছে সফরকারীরা গোল পরিশোধে আরো বেশী মরিয়া হয়ে উঠেছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পরাজয় মাথায় নিয়েই তাদের মাঠ ছাড়তে হয়েছে। ডর্টমুন্ডের জয়ের দিনে অবশ্য অধিনায়ক মার্কো রেয়াসের গোঁড়ালির ইনজুরি কিছুটা হলে দু:শ্চিন্তায় ফেলেছে কোচ এডিন টারজিককে। ৩০ মিনিটে শালকে ডিফেন্ডার ফ্লোরিয়ান ফ্লিকের সাথে সংঘর্ষে মাঠ ছাড়তে হয়েছে রেয়াসকে। ম্যাচ মুরুর পর জুড বেলিংহ্যাম ডর্টমুন্ডকে প্রায় এগিয়েই দিয়েছিলেন। কিন্তু তারা দুর্দান্ত হেড শালকে গোলরক্ষক আলেক্সান্দার শুওলো কোনমতে কর্ণারের মাধ্যমে রক্ষা করেন। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে এ্যান্থনি মোডেস্টের হেডও গোলের ঠিকানা খুঁজে পায়নি। মোডেস্টের স্থানে ৬৪ মিনিটে মাঠে নামানো হয় মুকোকোকে। তাকে পেয়ে ডর্টমুন্ডের আক্রমনভাগ যেন হঠাৎ করেই প্রাণ ফিরে পায়। একের পর এক আক্রমণ থেকে শেষ পর্যন্ত ৭৯ মিনিটে সাফল্য আসে। মরিয়াস উল্ফের নিখুঁত ক্রস থেকে মুকোকোর হেডে লিড পায় ডর্টমুন্ড। রেয়াসের পরিবর্তে মাঠে নামা যুক্তরাষ্ট্রের ফরোয়ার্ড গিও রেইনা দুই মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুন করার সুযোগ হাতছাড়া করেন। এনিয়ে এবারের মৌসুমে সাত ম্যাচে পঞ্চম জয় নিশ্চিত কররো ডর্টমুন্ড। দিনের আরেক ম্যাচে স্টুটগার্টকে সহজেই ৩-১ গোলে পরাজিত করে চার ম্যাচে তৃতীয় জয় তুলে নিয়েছে এইন্ট্রাখট ফ্রাংকফুর্ট। বে এরেনাতে ৫৭ মিনিটে কেরেম ডেমিরবের গোলে স্বাগতিক লেভারকুসেন নিশ্চিত জয়ের দিকে হাঁটছিল। কিন্তু ৮২ মিনিটে মিলোস ভালকোভিচের গোলে ওয়ার্ডার ব্রেমেনের সাথে ১-১ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে লেভারকুজেন। দিনের শেষ ম্যাচে মিডফিল্ডার জোনাস হফম্যানের জোড়া গোলে আরবি লিপজিগকে ৩-০ গোলে পরাজিত করেছে বরুসিয়া মনচেনগ্লাডবাখ।