August 18, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, July 13th, 2022, 7:54 pm

যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলে রুনি

অনলাইন ডেস্ক :

খেলোয়াড়ি জীবনের গোধূলি বেলায় যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলে কিছুদিন আলো ছড়িয়েছেন ওয়েন রুনি। এবার কোচিং ক্যারিয়ারের প্রত্যুষে তাকে দেখা যাবে সেই একই ঠিকানায়। চেনা আঙিনায় তিনি ফিরছেন নতুন ভূমিকায়। যে দলের হয়ে মাঠ মাতিয়েছেন সাবেক ইংলিশ স্ট্রাইকার, সেই ডিসি ইউনাইটেডের ডাগআউটে এবার দেখা যাবে তাকে। মেজর লিগ সকারের দল ডিসি ইউনাইটেডের নতুন কোচ রুনি। খেলোয়াড়ী জীবনের শেষ সময়ে এই ক্লাবের হয়ে দেড় বছর খেলেছেন তিনি। সপ্তাহ তিনেক আগেই ডার্বি কাউন্টির কোচের দায়িত্ব ছেড়ে দেন রুনি। ক্লাব পরিচালনা ও আর্থিক নানা অনিয়মের কারণে ২১ পয়েন্ট কেটে নেওয়ার পর ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় বিভাগ লিগ চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে অবনমন হয় ডার্বির। এরপর সেই ক্লাবে ১৭ মাসের কোচিং অধ্যায়ের ইতি টানেন তিনি। নতুন চ্যালেঞ্জ নিতে খুব বেশি সময় অপেক্ষা করতে হলো না ৩৬ বছর বয়সী তারকাকে। ২০১৮ সাল থেকে প্রায় দেড় বছর ডিসি ইউনাইটেডের হয়ে ৩৫ ম্যাচ খেলেন রুনি। খুব বড় সাফল্য না পেলেও উপহার দেন স্মরণীয় কিছু গোল। ২০১৮ সালে ডিসি ইউনাইটেডের সঙ্গে তার চুক্তি হয় তিন বছরের। কিন্তু সেই মেয়াদের মাঝপথেই ডার্বি কাউন্টির প্রস্তাব পেয়ে আবার ইংলিশ ফুটবলে ফেরেন ইংল্যান্ডের মহাতারকা। ২০২০ সালে চ্যাম্পিয়নশিপের দলটির ভারপ্রাপ্ত কোচ-খেলোয়াড়ের দ্বৈত দায়িত্ব নেন তিনি। প্রথম মৌসুমের সাফল্যের পর গত বছরের জানুয়ারিতে খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি টেনে ডার্বির স্থায়ী কোচ হিসেবে শুরু করেন নতুন জীবন। কোচ হিসেবে পথচলায় এবার তার পা পড়তে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে। খেলোয়াড় হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলে রুনির অভিজ্ঞতা কোচ হিসেবে কাজে লাগবে বলে মনে করেন ডিসি ইউনাইটেডের কো-চেয়ারম্যান জেসন লেভিয়েন ও স্টিভ কাপলান। “ওয়েন (রুনি) একজন ফুটবল কিংবদন্তি ও দারুণ সম্ভাবনাময় উঠতি ফুটবল ম্যানেজারদের একজন। আমাদের লিগ সম্পর্কে তার ধারণা আছে এবং খেলোয়াড় হিসেবে এখানে দুই বছরের অভিজ্ঞতায় সে জানে, মেজর লিগ সকারে সফল হতে কী করতে হয়।” ক্লাবে ফুটবল পরিচালনা বিভাগের প্রধান ডেভ ক্যাসপারের কণ্ঠেও একইরকম আশাবাদ। “ওয়েন (রুনি) বরাবরই একজন বিজয়ী ও লড়াকু। তার কাজের ধরন, নিজের প্রতি ও খেলোয়াড়দের প্রতি তার চাহিদার দিক থেকে তিনি অদ্বিতীয়।” ইংলিশ ফুটবলে রুনি সত্যিকার অর্থেই কিংবদন্তিদের একজন। শৈশবের ক্লাব এভারটনের হয়ে পেশাদার ক্যারিয়ার শুরু করলেও গ্রেট হয়ে উঠেছেন তিনি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে। এই ক্লাবের জার্সিতে এক যুগের বেশি সময় মাঠ দাপিয়ে বেরিয়েছেন তিনি। ক্লাবের ইতিহাসে তিনি সর্বোচ্চ গোলস্কোরার (২৫৩)। প্রিমিয়ার লিগের পাঁচটি শিরোপা ছাড়াও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, ইউরোপা কাপ, ক্লাব বিশ্বকাপসহ অনেক ট্রফির ছোঁয়া তিনি পেয়েছেন। ২০০৪ থেকে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে কাটিয়ে ২০১৭ সালে তিনি ফেরেন ছেলেবেলার ক্লাব এভারটনে। সেখান থেকে পরের বছর যোগ দেন মেজর লিগ সকারে ডিসি ইউনাইটেডে। এবার সেখানে কোচ হিসেবে ফিরে তিনি পূরণ করলেন একটি চক্র। নতুন দায়িত্বে তার কাজটি হবে খুবই কঠিন। পয়েন্ট তালিকায় ইস্টার্ন কনফারেন্সের তলানি থেকে দুইয়ে আছে ডিসি ইউনাইটেড। সবশেষ ম্যাচেই তারা ৭-০ গোলে হেরেছে ফিলাডেলফিয়া ইউনিয়নের কাছে। রুনি ওয়ার্ক পারমিট পাওয়ার আগ পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত কোচ চাড অ্যাশটন চালিয়ে যাবেন দায়িত্ব।