December 1, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Saturday, September 18th, 2021, 7:52 pm

যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়ার দূতকে তলব করেছে ফ্রান্স

অনলাইন ডেস্ক :

যুক্তরাষ্ট্র এবং অস্ট্রেলিয়ার দূতকে তলব করেছে ফ্রান্স। আলোচনা করার জন্য এই দুই দেশের দূতকে তলব করা হয়েছে বলে ফ্রান্সের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে নিরাপত্তা জোরদারে নতুন একটি ত্রিদেশীয় জোট গড়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। মূলত চীনের প্রভাব মোকাবিলা করতেই যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাজ্যকে নিয়ে এ জোট গড়েছেন তিনি। নতুন এই জোটের নাম দেওয়া হয়েছে এইউকেইউএস। মূলত ওই জোটের কারণেই ক্ষেপেছে ফ্রান্স। এই চুক্তির অধীনে অস্ট্রেলিয়াকে পারমাণবিক সাবমেরিনের প্রযুক্তি সরবরাহ করবে যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্য। এর আগে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে সাবমেরিন বিষয়ে একটি চুক্তি করেছে ফ্রান্স। তাদের কয়েক হাজার কোটি ডলারের চুক্তি থাকার পরেও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে অন্য দেশের এই চুক্তি ফ্রান্স মেনে নিতে পারছে না। বিতর্কিত দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের প্রভাব মোকাবিলা করতেই মূলত চুক্তি করেছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য এবং অস্টেলিয়া। বুধবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এবং অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীর স্কট মরিসন নতুন এই চুক্তির ঘোষণা দেন। এই চুক্তির কথা প্রকাশ্যে আসার মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে এ বিষয়টি ফ্রান্সকে জানানো হয়। শুক্রবার রাতে ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিন ইয়েভস লি দ্রিয়ান এই চুক্তিকে ফ্রান্সের পিঠে ছুরি মারা হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁর নির্দেশে দুই দেশের রাষ্ট্রদূতকে তলব করা হয়েছে।তিনি বলেন, মিত্র দেশগুলোর এই অপ্রত্যাশিত আচরণ অনাকাক্সিক্ষত অনেক ঘটনার জন্ম দেবে। আমাদের জোট, অংশীদারিত্ব এবং ইউরোপের জন্য ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরের গুরুত্বকে প্রত্যক্ষভাবে প্রভাবিত করবে এই চুক্তি। এদিকে হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র বলছেন, বাইডেন প্রশাসন এই ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে এবং সামনের দিনগুলোতে ফ্রান্সের সঙ্গে নিজেদের বোঝাপড়া ঠিক করে নেবেন তারা। অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেরিস পাইনে বলেন, তিনি ফ্রান্সের রাগের কারণ বুঝতে পারছেন। তিনি বলেন, তারা ফ্রান্সের সঙ্গে ভবিষ্যতেও কাজ করবেন এবং দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের মূল্য দেওয়া হবে। মিত্র দেশগুলোর মধ্যে রাষ্ট্রদূত তলবের ঘটনা খুবই বিরল। প্রথমবারের মতো দুই মিত্র দেশ থেকে রাষ্ট্রদূতকে তলব করলো ফ্রান্স।