May 21, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, April 8th, 2022, 9:33 pm

রমজান ঘিরে জমজমাট দেশের অন্যতম বৃহৎ কলার হাট

জেলা প্রতিনিধি:

পবিত্র রমজানকে ঘিরে জমজমাট হয়ে উঠেছে দেশের অন্যতম বৃহৎ কলার হাট কুষ্টিয়ার মধুপুর। দেশব্যাপী এখানকার কলার প্রচুর চাহিদা থাকায় প্রতিদিনই ঢাকাসহ সারা দেশে প্রায় ৫০ ট্রাক কলা সরবরাহ হচ্ছে। এতে লাভবান হচ্ছেন এ অঞ্চলের কৃষক।

কষ্টার্জিত ফলের ভালো দাম পেয়ে খুশি কৃষক। এদিকে, প্রচুর লাভজনক এ কলা চাষে বিপ্লব ঘটাতে কাজ করে যাচ্ছে জেলা কৃষি অধিদপ্তর।

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়কের পাশেই অবস্থিত মধুপুর কলার হাট। মাসের ৩০ দিনই বসে দেশের অন্যতম বৃহৎ এই কলার হাট। খুব সকাল থেকে এ হাটে সবরি, চাপা সবরি, সাদা সবরি, জয়েন্ট কলা, চাপা কলাসহ বিভিন্ন নামের কলা নিয়ে আসতে থাকে কুষ্টিয়াসহ আশপাশের ছয় জেলার কৃষক ও ফরিয়া ব্যবসায়ীরা। পবিত্র রমজান মাসকে ঘিরে এখানকার কলার চাহিদা বেড়েছে দ্বিগুণ। বর্তমানে প্রতিদিনই ঢাকাসহ সারা দেশে প্রায় ৫০ ট্রাক কলা সরবরাহ হচ্ছে এ হাট থেকে। এখানে প্রতি কাঁদি কলা বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৭০০ টাকা পর্যন্ত। এতে লাভবান হচ্ছেন এ অঞ্চলের কৃষক।

প্রতিদিন খুব সকালেই ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে কলা কিনতে মধুপুর কলার হাটে আসেন ব্যাপারীরা। এখানকার কলা অনেক সুস্বাদু। দেশব্যাপী এর চাহিদাও রয়েছে প্রচুর। এজন্য দীর্ঘদিন ধরে এখান থেকে কলা নিয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ করে থাকেন বলে জানিয়েছেন ব্যাপারীরা। তবে এবার কলার দাম অনেক বেশি বলেও দাবি তাঁদের।

হাটের ইজারাদার কাজী আবদুস সাত্তার জানান, দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে চলে আসছে মধুপুর কলার হাট। বর্তমানে এ হাট থেকে বছরে ৭০ থেকে ৭৫ লাখ টাকা ইজারা পায় সরকার। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে এখানে আসা ব্যাপারী ও কৃষকের নিরাপত্তা দিতে বদ্ধপরিকর তারা। তবে বর্জ্য ফেলা, ব্যাপারীদের থাকার ব্যবস্থাসহ হাটের সংস্কারের দাবির কথাও জানান তিনি।

জেলা কৃষি অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, জেলায় মোট প্রায় সাড়ে তিন হাজার হেক্টর জমিতে এবার কলার আবাদ হয়েছে। কুষ্টিয়া কৃষি অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক বিঞ্চু পদ সাহা বলছেন, ‘কলা অত্যন্ত সুস্বাদু ও সহজলভ্য একটি ফল। দেশব্যাপী কুষ্টিয়া জেলায় উৎপাদিত কলার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। মধুপুর কলার হাট থেকে দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রতিদিন প্রচুর কলা সরবরাহ হওয়ায় এখানকার কৃষক লাভবান হচ্ছেন। এ ফলের বিস্তার ঘটাতে কৃষি বিভাগ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলেও জানান তিনি।

কুষ্টিয়া অঞ্চলের সবরি ও চাপা কলার সুনাম রয়েছে সারা দেশে। মধুপুর কলার হাটকে ঘিরে স্বপ্ন বুনছেন এ অঞ্চলের কলা চাষিরা। অন্যান্য ফসলের চেয়ে প্রচুর লাভজনক হওয়ায় দিন দিন কলা চাষে ঝুঁকে পড়ছেন তাঁরা।