May 25, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, April 11th, 2022, 8:43 pm

রামগড়ে কুরিয়ার সার্ভিসের গাড়ি আটকিয়ে চালক ও রানারকে অস্ত্রেরমুখে অপহরণ, ৫ লক্ষ টাকার মুক্তিপণ দাবি

জেলা প্রতিনিধি, খাগড়াছড়ি :

খাগড়াছড়ি জেলা সদর থেকে ডাক নিয়ে ঢাকায় যাওয়ার পথে রামগড়ের দাতারামপাড়া রাস্তারমাথা এলাকায় সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের একটি কাভার্ড ভ্যান আটকিয়ে চালক ও রানারকে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করেছে উপজাতি সন্ত্রাসীরা। অপহরণকারিরা দুজনের মুক্তিপণ বাবদ ৫ লক্ষ টাকা দাবি করেছে। অপহৃতরা হচ্ছেন, কাভার্ড ভ্যান চালক ও ভোলা জেলার তজুমদ্দিন উপজেলার উত্তর চাসারা এলাকার বাসিন্দা মো. আব্বাস এবং কুরিয়ার সার্ভিসের রানার মো. আল-আমিন। তার বাড়ি নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলার ইয়ারাপুর গ্রামে। শনিবার রতে তাদের অপহরণ করা হলেও ঘটনাটি গোপন রেখে অপহরণকারিদের সাথে দফারফা করার চেষ্টা করে ব্যথ হয়। এদিকে, অপহৃতদরে সোমবার সকাল পযন্ত উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।
জানাযায়, প্রতিদিনের মত শনিবার রাতে খাগড়াছড়ি জেলা সদর থেকে ডাক নিয়ে সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের কাভার্ড ভ্যানটি (ঢাকা মেট্রো-উ-১৪১৪০৭)ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। রামগড়-জালিয়াপাড়া সড়কের দাতারামপাড়া রাস্তার মাথা এলাকা অতিক্রম করার সময় মোটরসাইকেলে করে আসা ৭-৮ জন অস্ত্রধারী উপজাতি সন্ত্রাসী কাভার্ড ভ্যানটির গতিরোধ করে। সন্ত্রাসীরা অস্ত্রেরমুখে গাড়িটি দাতারামপাড়া রাস্তার ভিতরে কিছুদূর নিয়ে যায়। চালক মো. আব্বাস ও রানার মো. আল-আমিনকে গাড়ি থেকে নামিয়ে মোটরসাইকেলে তুলে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এসময় তারা কাভার্ড ভ্যানের হেলপার মো. সোলায়মানকে ছেড়ে দেয়।
হেলপার মো. সোলায়মান বলেন, গাড়ি থামিয়ে অপহরণকারীরা অস্ত্রেরমুখে তাদের তিনজনকে আটক করে চাঁদার টোকেন দেখতে চায়। টোকেন দেখাতে না পারায় সন্ত্রাসীরা তাদের গালমন্দ করে। এক পর্যায়ে চালক ও রানারকে তাদের মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে দ্রুত চলে যায়। তিনি বলেন, অস্ত্রধারিা সবাই উপজাতি যুবক। সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস খাগড়াছড়ি’র ব্যবস্থাপক মো. সালাউদ্দিন বলেন, ‘অপহরণের পর তারা ড্রাইভারের ফোন থেকে আমাকে কল দিয়ে প্রথমে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। পরে মুক্তিপণের অংক বাড়িয়ে পাঁচ লাখ টাকা দাবী করা হয়। এদিকে, একটি সূত্রে জানাযায়, রবিবার সংশ্লিষ্ট কুরিয়ার সার্ভিসের খাগড়াছড়ি অফিসের স্টাফরা অপহৃতদের ছাড়িয়ে আনতে অপহরণকারি সংগঠনের নেতাদের সাথে বৈঠক করলেও মুক্তিপণের টাকার অংক নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে সমঝোতা না হওয়ায় এখনও তারা ছাড়া পায়নি। সূত্র জানায়, রবিবার দুপুরের পর থেকে অপহরণকারিদের সাথে যোগযোগও বন্ধ হয়ে যায়।
রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সামসুজ্জামান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে কাভার্ড ভ্যানটি উদ্ধার করে থানা হেফাজতে আনা হয়েছে। অপহৃতদের উদ্ধারে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী অভিযান অব্যাহত রেখেছে। তবে এ ব্যাপারে এখনও থানায় কেউ কোনো অভিযোগ করেননি।