May 23, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, April 18th, 2022, 8:04 pm

‘রিয়ালের হোঁচট খাওয়ার অপেক্ষায় সবাই, রিয়াল হোঁচট খায় না’

অনলাইন ডেস্ক :

এই বুঝি পা পিছলে গেল রিয়াল মাদ্রিদের, এই বুঝি হারাল তারা পয়েন্ট! রিয়াল মাদ্রিদ কোচ কার্লো আনচেলত্তির মতে, প্রতি ম্যাচেই এমন কিছুর আশায় থাকে প্রতিপক্ষ দলগুলি। আশা পূরণ হয় কমই। ঘুরে দাঁড়ানোর আরেকটি অসাধারণ গল্প লিখে সেভিয়ার বিপক্ষে জয়ের পর আনচেলত্তির কণ্ঠে স্বস্তির উচ্চারণ, শিরোপা জয়ের পথে তার দলের এটি বড় এক পদক্ষেপ। লা লিগার গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে গত রোববার প্রথমার্ধে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে রিয়াল। এমন বড় ম্যাচে এই ব্যবধান ঘুচিয়ে দেওয়া কঠিন। কিন্তু রিয়াল তো ভালোবাসে কঠিন কিছুই! নিজেদের ইতিহাসে যেমন তারা অসংখ্যবার করে দেখিয়েছে, ঘুরে দাঁড়ানোর নজির মেলে ধরেছে তারা সাম্প্রতিক সময়েও। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পিএসজি, চেলসির বিপক্ষে ম্যাচগুলির মতো আবার তার ম্যাচে ফিরল দোর্দ- প্রতাপে। প্রথমার্ধে মাঠে মিইয়ে থাকা রিয়াল দ্বিতীয়ার্ধে সেভিয়াকে চেপে ধরল প্রবলভাবে। রদ্রিগো ও নাচো ফের্নান্দেসের সৌজন্যে দুই গোল শোধ করার পর ৯২তম মিনিটে করিম বেনজেমার গোলে তারা তিন পয়েন্ট নিয়েই ছাড়ল মাঠ। এই জয়ের ৩২ ম্যাচে ৭৫ পয়েন্ট নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার আরেকটু বাইরে রিয়াল মাদ্রিদ। সমান ম্যাচ খেলে তিনে থাকা সেভিয়ার পয়েন্ট ৬০। দুইয়ে থাকা বার্সেলোনার পয়েন্টও ৬০, তবে তারা ম্যাচ খেলেছে দুটি কম। বার্সেলোনার গত ম্যাচ শেষে তাদের কোচ শাভি এরনান্দেস বলেছিলেন, রিয়ালের পয়েন্ট হারানোর দিকে তাকিয়ে তারা। একই আশায় আছে অন্যরাও। তবে রিয়াল ছুটছে অপ্রতিরোধ্য গতিতে। হার না মানসিকতায় যেভাবে বারবার লড়াই করে জিতে চলেছে দল, তাতে মুগ্ধ কোচ আনচেলত্তি। সবাই অপেক্ষায় আছে রিয়াল মাদ্রিদ হোঁচট খাবে, কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদ হোঁচট খায় না। কারণ আমাদের আছে সেই মানসিকতা ও দৃঢ়তা। লা লিগা অবশ্যই এখনও শেষ হয়ে যায়নি, তবে আমরা বড় এক পদক্ষেপ নিয়েছি। দুটি ভুলের পরও ছেলেরা হাল ছেড়ে দেয়নি এবং পেছন থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে অবিশ্বাস্য এই জয়ের কৃতিত্ব তাদেরই। এই দলের এমন পারফরম্যান্সে আমি বিস্মিত নই, তবে দ্বিতীয়ার্ধে দল যেমন খেলেছে, তাতে আমি গর্বিত। দলের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা। ৫ গোলের দুর্দান্ত ম্যাচটির ছন্দ অবশ্য বারবার ব্যাহত হয়েছে রেফারির কিছু বিতর্কিত সিদ্ধান্তে। ১৭ মিনিটে বক্সের ভেতরে সেভিয়ার দিয়েগো কার্লোসের হাতে বল স্পষ্ট লাগলেও পেনাল্টি দেননি রেফারি। ৭৮ মিনিটে ভিনিসিউস জুনিয়র জালে বল পাঠালেও হ্যান্ড বলের কারণে বাতিল করে দেওয়া হয় তা। যদিও রিপ্লে দেখে সিদ্ধান্তটি সংশয়পূর্ণ মনে হয়েছে প্রবলভাবেই এই দুবার রিয়াল ভুক্তভোগি হলেও আরেক দফায় তারা পেয়েছে রেফারির ভুলের সুবিধা। ৩৭তম মিনিটে কামাভিঙ্গা পেছন থেকে ফাউল করলেও তাকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখাননি রেফারি। রেফারিকে নিয়ে প্রশ্ন তুললেন আনচেলত্তিও, তবে জয়ের স্বস্তিটাই তার বড় প্রাপ্তি। আমরা জিততে পেরেছি বিতর্কিত অনেক কিছুর পরওৃ বুঝতেই পারছি না, রেফারি কীভাবে ভিনিসিউসের ক্ষেত্রে হ্যান্ডবল ধরলেন, দিয়েগো কার্লোসেরটা ধরলেন না।