July 16, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, June 13th, 2024, 7:56 pm

রোনালদো কী শেষটা রাঙাতে পারবেন?

অনলাইন ডেস্ক :

বয়স ৩৯ পেরিয়ে গেছে, কিন্তু গোলের ক্ষুধা আছে আগেরই মতো। বয়স যে শুধুই একটি সংখ্যা, সেটা বারবার প্রমাণ করে যাচ্ছেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। যদিও তাঁকে ঘিরে সমর্থকদের আগের মতো উচ্চাকাক্সক্ষা নেই। তবে গত পরশু প্রীতি ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জোড়া গোলের পর পর্তুগিজ তারকাকে নিয়ে আলোচনা আবার তুঙ্গে। শুধু গোল করা নয়, ম্যাচজুড়ে রোনালদো যেভাবে প্রতিপক্ষের ওপর দাপট দেখিয়ে খেলেছেন, তাতে প্রত্যাশার পারদ চূড়ায় চড়েছে। এখনো পায়ের জাদুতে মোহিত করছেন সমর্থকদের। তাই কাল শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া ইউরোর লড়াইয়েও সেরা ছন্দের রোনালদোকে দেখার অপেক্ষায় তাঁর ভক্তরা।

অলৌকিক কিছু না ঘটলে শেষবারের মতো এই প্রতিযোগিতায় খেলতে নামছেন পর্তুগিজ এই তারকা। শেষ আসরে প্রত্যাশার সঙ্গে প্রাপ্তি মেলানোর চ্যালেঞ্জ তাই রোনালদোর সামনে। একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে ষষ্ঠ ইউরো খেলার অপেক্ষায় রোনালদো। ১৮ জুন গ্রুপের ম্যাচে চেক রিপাবলিকের বিপক্ষে মাঠে নামলেই নতুন রেকর্ড গড়বেন তিনি। আগের পাঁচ আসরে ২৫ ম্যাচে রোনালদোর গোল আছে ১৪টি, যা সর্বোচ্চ। পাঁচ আসরে রোনালদো ফাইনাল খেলেছেন দুটি, একটিতে শিরোপা উৎসব করেছেন আরেকটিতে রানার্স আপ হয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে। ২০১৬ সালের আসরের চ্যাম্পিয়নদের দলে ব্রুনো ফের্নান্দেস, বের্নার্দো সিলভা, জোয়াও ফেলিক্স, রাফায়েল লিয়াওয়ের মতো খেলোয়াড় থাকলেও রোনালদো এখনো মধ্যমণি। সতীর্থরাও চাচ্ছেন, শেষ আসরে জ¦লে উঠুন রোনালদো। কিন্তু এই বয়সে তা কি আর সম্ভব?

রোনালদো বলেই আশা দেখছে তাঁর সতীর্থরা। এই যেমন রুবেন নেভেস বলছেন, ‘তাঁর সঙ্গে খেলার অনুভূতি প্রকাশের ভাষা আমার জানা নেই। আমরা জানি, জাতীয় দলকে সাহায্য করার জন্য তিনি নিজের দুই শ ভাগ দেবেন। অবশ্যই আরো অনেক গোল করার জন্য আমরা তাঁর ওপর আস্থা রাখছি।’ রোনালদো নিজেও বলেছেন, তাঁর ক্যারিয়ার আর বেশি দীর্ঘায়িত হচ্ছে না। ফুটবল ক্যারিয়ারের শেষ ল্যাপটা উপভোগ করাই অভিপ্রায় তাঁর, ‘আমি জানি, ফুটবলে আমার আর খুব বেশি বছর বাকি নেই।

৩৫-৩৬ বছরে খেলাটাই উপহারের মতো। আমি সেটাও পেরিয়ে গেছি। তাই শুধু উপভোগ করার চেষ্টা করছি।’ পর্তুগালের হয়ে আরেকটি ইউরো খেলতে পারাকে স্বপ্নপূরণ বলছেন রোনালদো, ‘গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে, মানসিক ও শারীরিকভাবে ভালো থেকে দলকে সাহায্য করা। ২০ বছর ধরে এ কাজটাই করে আসছি আমি। আমার কাছে প্রতিটি ম্যাচই স্পেশাল। পর্তুগালের হয়ে আরেকটি ইউরো খেলতে যাচ্ছি, এটা স্বপ্নের মতোই।’ জাতীয় দলের জার্সিতে গত পরশু জালের দেখা পাওয়ায় আন্তর্জাতিক ফুটবলে টানা ২১ মৌসুমে গোল করলেন রোনালদো, যা আর কারো নেই। রেকর্ডের পর রেকর্ড গড়া রোনালদোও নিশ্চিতভাবেই চাইছেন শেষটা শিরোপা দিয়ে রাঙাতে। এএফপি