October 6, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, April 17th, 2022, 8:00 pm

রোনাল্ডোর হ্যাটট্রিকে রক্ষা পেল ইউনাইটেড, জিততে পারেনি টটেনহ্যাম, আর্সেনাল

অনলাইন ডেস্ক :

ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোর হ্যাটট্রিকে শনিবার প্রিমিয়ার লিগে তলানির দল নরউইচ সিটিকে ৩-২ গোলে পরাজিত করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এদিকে আর্সেনাল ও টটেনহ্যাম নিজ নিজ ম্যাচে হেরে যাওয়ায় ইউনাইটেডের সামনে এখনো আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার সুযোগ টিকে রয়েছে। লন্ডনে ঘরের মাঠে ব্রাইটনের কাছে ১-০ গোলে হেরে গেছে স্পার্সরা। অন্যদিকে সাউদাম্পটনের কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হয়ে টানা তৃতীয় হারের তিক্ত স্বাদ গ্রহণ করেছে আর্সেনাল। এনিয়ে ক্লাব ক্যারিয়ারে ৫০তম হ্যাটট্রিক পূরণ করলেন রোনাল্ডো। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে এই হ্যাটট্রিক দিয়ে রোনাল্ডো কিছুটা দেরী হলেও সমালোচকদের জবাব দিয়েছেন। একইসাথে আরো একবার জানান দিয়েছেন এখনো তিনি ফুরিয়ে যাননি বা ইউনাইটেড তাকে দলে ভিড়িয়ে কোন ভুল করেনি। এই জয়ে টটেনহ্যামের থেকে তিন পয়েন্ট পিছিয়ে গোল ব্যবধানে আর্সেনালকে পিছনে ফেলে টেবিলের পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে ইউনাইটেড। ম্যাচ শুরুর আগে ইউনাইটেডের সমর্থকদের মধ্যে চাপা উত্তেজনা দেখা গিয়েছিল। ক্লাবের মালিক গ্লেজার পরিবারের ১৭ বছরের রাজত্বের প্রতিবাদ জানিয়ে ১৭ মিনিট পর্যন্ত অনেকেই মাঠে প্রবেশ করেনি। কিন্তু এই সময়ের মধ্যে রোনাল্ডোর প্রথম গোলটি অনেকেই মিস করে ফেলেছিল। এন্থনি এলানগার ক্রস থেকে ৩৭ বছর বয়সী রোনাল্ডো ৭ মিনিটেই গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন। ৩২ মিনিটে এ্যালেক্স টেলেসের ক্রস থেকে ব্যবধান দ্বিগুন করেন রোনাল্ডো। পর্তুগীজ সুপারস্টারের মৌসুমে এটি ২০তম গোল। ইউনাইটেডের রক্ষনভাগের সমস্যা আরো একবার প্রকট হয়ে উঠলে সেই সুবিধাটা পুরোপুরি কাজে লাগিয়েছে নরউইচ সিটি। এর আগে ৩১ ম্যাচে মাত্র ২০ গোল করা টেবিলের তলানির দলটি পরপর দুই গোল দিয়ে দারুনভাবে লড়াইয়ে ফিরে আসে। প্রথমার্ধের স্টপেজ টাইমে কিয়েরান ডোয়েলের গোলের পর দ্বিতীয়ার্ধের সাত মিনিটের মধ্যে টিমু পুক্কি সমতা ফেরান। এরপর পুক্কির একটি শট দারুন দক্ষতায় রুখে দেন ডেভিড ডি গিয়া। নাহলে হয়ত তখনই ম্যাচে এগিয়ে যেতে পারতো নরউইচ। ম্যাচ শেষের ১৪ মিনিট আগে রোনাল্ডোর নিখুঁত ফ্রি-কিক ধরার সাধ্য ছিল না নরউইচ গোলরক্ষক টিম ক্রুলের। টটেনহ্যামের মাঠে স্বাগতিকদের রুখে দিতে কোন ভুল করেনি ব্রাইটন। ম্যাচের একেবারে শেষ মিনিটে লিনড্রো ট্রোসার্ডের গোলে ব্রাইটনের জয় নিশ্চিত হয়। এই পরাজয়ে টটেনহ্যামের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার স্বপ্ন আরো একবার বাঁধাগ্রস্থ হলো। যদিও এন্টোনিও কন্টের দলকে শেষ পর্যন্ত টিকিয়ে রাখলো আর্সেনালের পরাজয়। গত সপ্তাহে চেলসির কাছে ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়া সাউদাম্পটন গানার্সদের পরাজিত করে আবারো জয়ের ধারায় ফিরেছে। সেন্ট মেরিস স্টেডিয়ামে ম্যাচের ৪৪ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন ডিফেন্ডার ইয়ান বেডনারেক। স্বীকৃত কোন স্ট্রাইকারের অনুপস্থিতি শনিবার দারুনভাবে অনুভব করেছে আর্সেনাল। মিকেল আর্তেতার দলকে বেশ কয়েক বার নিজের দক্ষতা দিয়ে রুখে দিয়েছেন সাউদাম্পটনের গোলরক্ষক ফ্রেসার ফর্স্টার। ঘরের মাঠে টানা ১০ম পরাজয়ে আরো নীচে নেমে গেছে ওয়াটফোর্ড। শনিবার ব্রেন্টফোর্ডেও কাছে তারা ২-১ গোলে পরাজিত হয়েছে। তলানির থেকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ওয়াটফোর্ড এখনো সেফটি জোন থেকে ৬ পয়েন্ট দুরে রয়েছে, হাতে রয়েছে আর মাত্র ছয়টি ম্যাচ।