September 28, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, September 8th, 2022, 8:22 pm

লেভানদোভস্কির হ্যাটট্রিকে বড় জয় পেল বার্সা

অনলাইন ডেস্ক :

আক্রমণের পসরা মেলে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত একচেটিয়া আধিপত্য করল বার্সেলোনা। গোলের অসাধারণ ধারাবাহিকতায় চমৎকার এক হ্যাটট্রিকে ইতিহাস গড়লেন রবের্ত লেভানদোভস্কি। ভিক্তোরিয়া প্লাজেনকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শুভসূচনা করল শাভি এরনান্দেসের দল। কাম্প নউয়ে বুধবার রাতে ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচে চেক রিপাবলিকের ক্লাবটিকে ৫-১ গোলে হারায় বার্সেলোনা। বার্সেলোনার জার্সিতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রথম ম্যাচেই হ্যাটট্রিক উপহার দিলেন লেভানদোভস্কি। প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে এই প্রতিযোগিতায় ভিন্ন তিন দলের হয়ে হ্যাটট্রিকের কীর্তি গড়লেন তিনি। পোলিশ তারকার তিন গোল ছাড়া কাতালান দলটির হয়ে একবার করে জালের দেখা পান ফঁক কেসিয়ে ও ফেররান তরেস। গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়ে ২০০০-০১ মৌসুমের পর প্রথমবার ইউরোপা লিগে নেমে গিয়েছিল বার্সেলোনা। ইউরোপ সেরার মঞ্চে ফেরার উপলক্ষটা দারুণ জয়ে রাঙাল তারা। পুরো ম্যাচে বার্সেলোনার দাপটের চিত্র মেলে পরিসংখ্যানেও। ৭৬ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে গোলের জন্য তারা শট নেয় মোট ২০টি, যার ১১টিই ছিল লক্ষ্যে। ভিক্তোরিয়ার ৮ শটের একটি লক্ষ্যে ছিল। শুরু থেকে প্রতিপক্ষকে চেপে ধরে বার্সেলোনা। সাফল্য পেতেও বেশি সময় লাগেনি। ত্রয়োদশ মিনিটে এগিয়ে যায় তারা। কর্নারের পর জুল কুন্দের হেড পাসে কাছ থেকে হেডেই দলটির জার্সিতে নিজের প্রথম গোল করেন মিডফিল্ডার কেসিয়ে। ২৩তম মিনিটে বার্সেলোনার ডি-বক্সে তাদের ডিফেন্ডার আন্দ্রেয়াস ক্রিস্টেনসেনের চ্যালেঞ্জে প্রতিপক্ষের একজন পড়ে গেলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। তবে ভিএআরের সাহায্যে সিদ্ধান্ত পাল্টান তিনি। ৩৪তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন লেভানদোভস্কি। সের্হিও রবের্তোর পাস ডি-বক্সের সামনে পেয়ে জায়গা বানিয়ে ডান পায়ের জোরাল শটে বল জালে পাঠান সাবেক বায়ার্ন মিউনিখ স্ট্রাইকার। এই গোলে রিয়াল মাদ্রিদ তারকা করিম বেনজেমাকে (৮৬) ছাড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় এককভাবে তিন নম্বরে জায়গা করে নিলেন লেভানদোভস্কি (৮৭)। ওপরে কেবল ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো (১৪০) ও লিওনেল মেসি (১২৫)। দুই মিনিট পর ব্যবধান বাড়তে পারত আরও। রবের্তোর শট ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক। একটু পর লেভানদোভস্কির পাস ধরে গোলরক্ষককে পেদ্রি পরাস্ত করলেও তার প্রচেষ্টা গোললাইন থেকে ফেরান এক ডিফেন্ডার।
৪৪তম মিনিটে ব্যবধান কমায় সফরকারীরা। বাঁ দিক থেকে সতীর্থের ক্রসে হেডে গোলটি করেন চেক রিপাবলিকের মিডফিল্ডার ইয়ান সিকোরা। অবশ্য প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে আবার দুই গোলের লিড পুনরুদ্ধার করে স্বাগতিকরা। দারুণ এক চ্যালেঞ্জে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়ের থেকে বল কেড়ে নিয়ে ডান দিক থেকে বক্সে ক্রস বাড়ান উসমান দেম্বেলে। দূরের পোস্টে ডাইভিং হেডে ঠিকানা খুঁজে নেন দুবারের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার লেভানদোভস্কি। ৬৫তম মিনিটে আনসু ফাতির জায়গায় বদলি নামেন তরেস। এক মিনিট পরই তার পাসে ডি-বক্সের বাইরে থেকে শটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন লেভানদোভস্কি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এর আগে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে একবার ও বায়ার্নের জার্সিতে চারবার হ্যাটট্রিক করেছিলেন তিনি। বার্সেলোনার হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে পাঁচ ম্যাচে তার গোল হলো ৮টি। সবগুলোই সবশেষ চার ম্যাচে। লা লিগায় টানা দুই ম্যাচে জোড়া গোলের পর সবশেষটিতে করেন একটি। এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এই হ্যাটট্রিক। প্রতিযোগিতাটিতে তার গোলসংখ্যা বেড়ে হলো ৮৯টি। ৭১তম মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে দলকে বড় জয়ের পথে এগিয়ে নেন তরেস। দেম্বেলের ক্রসে বক্সে প্রথম স্পর্শে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ২২ বছর বয়সী স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে সবশেষ চার ম্যাচে ১৬ গোল করল বার্সেলোনা। গোলশূন্য ড্রয়ে এবারের লা লিগা শুরু করা দলটি পরের তিন ম্যাচে জেতে ৪-১, ৪-০ ও ৩-০ গোলে। ভিক্তোরিয়া ম্যাচের আগের দিন কোচ শাভি বলেছিলেন, এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের স্বপ্ন দেখছেন তারা। সেই অভিযানে তাদের শুরুটা হলো দুর্দান্ত। মৃত্যুকূপ তকমা পাওয়া এই গ্রুপের আরেক ম্যাচে ইন্টার মিলানকে তাদের মাঠেই ২-০ গোলে হারিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে টটেনহ্যাম হটস্পার ঘরের মাঠে ২-০ গোলে হারিয়েছে মার্সেইকে। গ্রুপের আরেক ম্যাচে আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টের মাঠে ৩-০ গোলে জিতেছে স্পোর্তিং লিসবন।