December 8, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, November 15th, 2022, 7:23 pm

‘শনিবার বিকেল’ মুক্তির দাবিতে ১৩০ শিল্পীর বিবৃতি

অনলাইন ডেস্ক :

প্রায় সাড়ে তিন বছর ধরে সেন্সর বোর্ডে আটকে আছে নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘শনিবার বিকেল’ সিনেমা। মাস তিনেক আগে বিষয়টি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্ষেপ প্রকাশ করেন নির্মাতা। ফারুকীর আক্ষেপের সুরে একাত্ম হন অন্যান্য নির্মাতারাও। তারা স্বপ্রণোদিত হয়ে ‘শনিবার বিকেল’-এর মুক্তির দাবিতে সোচ্চার হয়ে ওঠেন। এবার সিনেমাটি মুক্তির দাবিতে ১৩০ জন শিল্পী একটি বিবৃতি দিয়েছেন। শিল্পিদের এমন সাপোর্টে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন ফারুকী। কৃতজ্ঞতায় চোখ ভিজেছে তার। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুখ খুলেছেন ফারুকী। তিনি লিখেছেন, এখন আর লুকাতে চাই না। আমি মানুষটা এককীত্বকে মৃত্যুর মতো ভয় পাই। গত তিন বছর আমার প্রচ- অভিমান হয়েছিলো, আমার সহযোদ্ধাদের ওপর, বাংলাদেশের ওপর। শনিবার বিকেলকে কেন্দ্র করে আমার ওপর যে অন্যায় করা হচ্ছিলো তা কেবল আমাকে এবং আমার বউকেই একা একা বইতে হচ্ছে ভেবে কত রাত যে মনে মনে অভিমানে দেশ ছেড়ে চলে গেছি তার ইয়ত্বা নাই। কত রাত যে ঘুমাতে পারি নাই, হিসাব নাই। কালকে রাতেও আমি ঘুমাতে পারি নাই। তবে কষ্টে না, কৃতজ্ঞতার আনন্দে। মানুষের হৃদয়ের জন্য কৃতজ্ঞতার চেয়ে ভালো কোনো ওষুধ আজো আবিষ্কার হয় নাই। ফারুকী আরও লিখেছেন, কাল রাত সিডনি সময় তিনটায় যখন ঘুমাতে যাই তখনও বাচ্চু ভাই, পিপলু ভাই, অমিতাভ, জুলহাজরা হয়তো আমাদের বন্ধুদের ফোন দিয়ে যাচ্ছে ‘শনিবার বিকেল’ মুক্তির দাবিতে বিবৃতিতে নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য। আর আমি ঘুমাবার চেষ্টা করছি। কিন্তু আমার চোখের পাশ দিয়ে পানি গড়িয়ে পড়ছে। আমি কাত হয়ে শুয়ে, যাতে তিশা টের না পায়। ও আমার মেয়েকে ছড়া শোনাচ্ছে। সব সময় তো এরকম হয় না যে, আমরা আমাদের জড়তাকে ঠেলে একটা কোনো উদ্যোগ নিতে পারি, এক সাথে। সেই হিসাবে আজকের দিনটা আমাদের দেশের শিল্পীদের জন্য একটা মনে রাখার মতো দিন। ‘শনিবার বিকেল’ মুক্তির দাবিতে ১৩০ জন শিল্পী একটা বিবৃতি দিয়েছেন, যেটা হয়তো কালকে পত্রিকায় দেখবেন সবাই। আপনি যদি নামের লিস্ট দেখেন, তাহলে বুঝবেন কেনো এটা আমাদের জন্য, আমাদের পরের জেনারেশনের জন্য একটা বিশেষ মানে বহন করে। এখানে এমন মানুষেরা আছেন যাদেরকে আপনি নিয়মিত বিবৃতিতে খুঁজে পাবেন না। তার কথায়, এখানে মূলধারা-বিকল্পধারা-নতুনধারা-পুরাতনধারা নানা মত-পথের মানুষ আছেন। আমাদের মত ভিন্ন হতে পারে, পথ ভিন্ন হতে পারে, কিন্তু শিল্পীর স্বাধীনতার প্রশ্নে আমরা এক। আমাদের ভবিষ্যতের প্রশ্নে আমরা এক। এখন আমরা জানি, আমরা যখন এক হয়েছি, আর কোনো কিছুই আমাদের দাবায়ে রাখতে পারবে না! বিশ্বাস করি, আপিল কমিটি আগামী পরশু যে সভায় বসবে সেখানে তাদের সুবিবেচনার পরিচয় দিবে এবং দ্রুত ‘শনিবার বিকেল’ দর্শকদের কাছে যেতে পারবে। আমি আমার কলিগদের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।