February 9, 2023

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, January 19th, 2023, 7:43 pm

শাহজালাল বিমানবন্দরে এক প্রকল্পে ব্যয় বাড়লো প্রায় ২৭ কোটি টাকা

ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জেনারেল এভিয়েশন হ্যাঙ্গার, হ্যাঙ্গার অ্যাপ্রোন এবং ফায়ার স্টেশনের উত্তর দিকে অ্যাপ্রোন নির্মাণ’ প্রকল্পের ব্যয় ২৬ কোটি ৭৯ লাখ ৫৯ হাজার ৪৩৮ টাকা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ বিষয়ে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি অনুমোদন দিয়েছে। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারী) সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে সভার সিদ্ধান্ত জানান মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সাঈদ মাহবুব খান। তিনি বলেন, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ‘হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জেনারেল এভিয়েশন হ্যাঙ্গার, হ্যাঙ্গার অ্যাপ্রোন এবং ফায়ার স্টেশনের উত্তর দিকে অ্যাপ্রোন নির্মাণ’ প্রকল্পের পূর্ত কাজের ভেরিয়েশন বাবদ অতিরিক্ত ২৬ কোটি ৭৯ লাখ ৫৯ হাজার ৪৩৮ টাকা ব্যয় বৃদ্ধির ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। যৌথভাবে এ কাজ করবে বিইউসিজি, এনডিই ও অ্যারোনেস বাংলাদেশ। এদিকে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অধীন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর কর্তৃক ‘সাসেক ঢাকা-সিলেট করিডোর সড়ক উন্নয়ন’ প্রকল্পের ডব্লিউপি-২ প্যাকেজের লট ডিএস-৩ এর পূর্ত কাজ যৌথভাবে ফিগো চায়না ও বাংলাদেশের মীর আক্তারকে দেওয়ার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৫৫ কোটি ২০ লাখ ৩৪ হাজার ৫৫৪ টাকা। এছাড়া গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীন গণপূর্ত অধিদপ্তর কর্তৃক ‘ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় পুলিশ সদস্যদের জন্য ৯টি আবাসিক টাওয়ার ভবন নির্মাণ’ প্রকল্পের প্যাকেজ ডব্লিউডি-৫/২ এর আওতায় বৈদ্যুতিক কাজ নুরানী কনস্ট্রাকশন লিমিটেড থেকে ২৩ কোটি ২০ লাখ ১২ হাজার ২৭২ টাকায় ক্রয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সাঈদ মাহবুব খান জানান, সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় অনুমোদনের জন্য পাঁচটি প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়। তার মধ্যে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের একটি, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের একটি, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দুটি এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের একটি প্রস্তাবনা ছিল। পাঁচটি প্রস্তাবে মোট অর্থের পরিমাণ এক হাজার ৩৭৯ কোটি ৩৭ লাখ তিন হাজার ৬৪ টাকা।