June 26, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, June 2nd, 2022, 8:43 pm

শিক্ষকের অপমান সইতে না পেরে দাগনভূঞায় মাদ্রাসা ছাত্রীর আত্মহত্যা

জেলা প্রতিনিধি, ফেনী :
ফেনীর দাগনভূঞায় মাদ্রাসা সুপার ও শিক্ষকের অপমান সইতে না পেরে আত্মহত্যা করেছে উপজেলার আমুভূঞারহাট হোছাইনিয়া দাখিল মাদ্রাসার ৮ম শ্রেনির ছাত্রী ফারজানা আক্তার (১৪)। সে ভবানিপুর গ্রামের বেলাল হোসেনের মেয়ে।
জানা যায়, গত দু’দিন ধরে মাদ্রাসার সুপার বেলাল হোসেন ও শিক্ষক আলমগীর ওই ছাত্রীর অভিভাবককে মাদ্রাসায় নিয়ে আসার জন্য বলে। তার পিতা চাকুরির সুবাধে ঢাকা ও মা অসুস্থ থাকায় কেও যেতে পারেনী। বৃহস্পতিবার ছাত্রীটি মাদ্রাসায় গেলে সুপার বেলাল হোসেন অভিভাবক কেন নিয়ে আসেনাই সে জন্য তাকে বকাঝকা করে ক্লাশ রুম থেকে বের করে দেয়। ক্লাশের অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সামনে সুপারের এ অপমান সহ্য করতে না পেরে সে বাড়ীতে চলে আসে। আনুমানিক বেলা ১১.৩০ টার দিকে তার নিজ ঘরে সে গলায় দঁড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী আধুনিক জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।
অভিযুক্ত মাদ্রাসা সুপার বেলাল হোসেন বলেন, ছাত্রীর বিষয়ে কিছু অভিযোগ রয়েছে সে জন্য ওই ছাত্রীর অভিভাবককে নিয়ে আসার জন্য গত কয়েকদিন ধরে বলতেছি। কিন্তু কোন অভিভাবকই আসেনাই। ওইদিন ক্লাশে তাকে জিজ্ঞেস করলে সে বলে তার মাকে মাদ্রাসায় আসার জন্য বললে তিনি তাকে বকাঝকা করেন। পরে আমি তাকে বলি অভিভাবক নিয়ে না আসা পর্যন্ত ক্লাশ করার দরকার নেই। তখন সে বাড়ী চলে যায়। আমি তাকে কোন বকাঝকা করিনি।
দাগনভূঞা থানার ওসি মো. হাসান ইমাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। এবং ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি ফেনী আধুনিক জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় যদি কেউ কোন অভিযোগ করে তাহলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।