February 5, 2023

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, December 27th, 2022, 6:40 pm

শিমুলকে পছন্দ করেন ইভানা

অনলাইন ডেস্ক :

সম্ভাবনা থাকলেও চুটিয়ে কাজ করছেন না। পরিসংখ্যানে তার কাজের সংখ্যা কমই বটে। তবে যে কয়টা কনটেন্টে হাজির হচ্ছেন, তাতে আলাদা নজর কাড়তে ত্রুটি রাখছেন না। ফলে দর্শকের কাছে তার বিশেষ গ্রহণযোগ্যতা তৈরি হয়েছে। তিনি পারসা ইভানা। সময়ের পরিচিত অভিনেত্রী। যদিও তার মূল ভিত নৃত্য। তবে সাম্প্রতিক সময়ে মানুষের কাছে তিনি নাট্যাভিনেত্রী হিসেবেই ভালোবাসা কুড়াচ্ছেন। পারসা ইভানাকে বিপুল দর্শকের কাছে পৌঁছে দেওয়ার কারিগর কাজল আরেফিন অমি। তার নির্মিত ধারাবাহিক ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট সিজন ৪’ এবং আরও কিছু সিঙ্গেল নাটকে কাজ করেই জনপ্রিয়তা পেয়েছেন ইভানা। সদ্যই সমাপ্ত হয়েছে ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’র চতুর্থ সিজনের প্রচার। এতে ইভা চরিত্রে মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন ইভানা। শুধু দর্শক নয়, ধারাবাহিকটির শিল্পী-কুশলীরাও এই জার্নিকে ভালোবেসে ফেলেছেন। তাই সমাপ্তিতে মন খারাপি যেমন আছে, তেমনি আছে দর্শকের অসামান্য সাড়ায় তৃপ্তিও। এর আগে ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’র আরও তিনটি সিজন প্রচার হয়েছিল। তবে চতুর্থ সিজনেই যুক্ত হয়েছেন পারসা ইভানা। ১১৬ পর্বের এই জার্নির অভিজ্ঞতা ও অনুভূতির কথাশুনিয়েছেন তিনি। তার ভাষ্য এমন, ‘‘আমি আসলে শুরু থেকেই একটা কথা বলে এসেছি যে ব্যাচেলর পয়েন্টে অভিনয় করতে পারবো, এটা কখনও চিন্তাও করিনি। কারণ, এর প্রত্যেকটা সিজন কম-বেশি আমার দেখা হয়েছে। আমার পরিবার, বন্ধু, সহকর্মী, আশপাশের সবাই ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ দেখে। তখন মনে হতো, ইশ আমি যদি একটা ক্যারেক্টার করতে পারতাম। সেই ইচ্ছেটাই যেন পূরণ হয়ে গেলো। এ বছর হঠাৎ করেই আমার কাছে ‘ইভা’ চরিত্রে কাজের অফার আসে। তখন তো আমি একেবারে সারপ্রাইজড হয়ে গিয়েছিলাম।’’ আপ্লুত পারসার মতে, ‘‘ইভা হচ্ছে এমন ক্যারেক্টার, যেটার স্বপ্ন দেখেছিলাম আমি। যেহেতু আমি একজন নৃত্যশিল্পী, চেয়েছি আমার কাজের মাধ্যমে মানুষ জানতে পারুক আমি নৃত্য করে এসেছি; আমি সেরা নাচিয়েতে (নৃত্য প্রতিযোগিতা) চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলাম। এটা অনেকেই জানেন না। তবে ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’র মাধ্যমে মানুষ জানতে পেরেছে যে আমি আসলে নৃত্যশিল্পী। এটা আমার জন্য একটা অনেক বড় পাওয়া।’’ ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ নিয়ে কিছু সমালোচনা-বিতর্ক আছে। সে বিষয়ে পারসা ইভানা বলেন, ‘আমি আসলে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। একেকজনের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে একেক রকম মন্তব্য। আমার যেমন সব নাটক পছন্দ না, অন্যান্যের ক্ষেত্রেও এমনই। এটা একান্তই ব্যক্তিগত ব্যাপার। কে কীভাবে দেখবে, কী বলবে, সেটা তো আমরা নির্ধারণ করে দিতে পারবো না। মানুষের পছন্দ-অপছন্দ থাকবেই। তবে আমার কাছে মনে হয় পছন্দের সংখ্যাটাই বেশি।’ নিন্দা-সমালোচনা পেরিয়েও ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’র জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। এর কাবিলা, শুভ, হাবু, শিমুল কিংবা পাশা চরিত্রগুলো দর্শকের মন থেকে মুখে ছড়িয়ে গেছে। এসব চরিত্রের মধ্যে পারসা ইভানার প্রিয় কে? অভিনেত্রীর উত্তর, ‘আমার পছন্দের অনেক চরিত্র আছে। কাবিলা তো আছেই। তবে আমার সবচেয়ে পছন্দ শিমুলকে। মানে ওর ক্যারেক্টারটা আমার ব্যক্তিগতভাবে পছন্দ।’ সম্ভাবনা থাকলেও পারসা ইভানাকে খুব বেশি নাটকে পাওয়া যায় না। এর কারণ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি একটু বুঝেশুনে কাজ করার চেষ্টা করছি। নিজেকে খুব অ্যাভেইল্যাবল করতে চাচ্ছি না। এটাকে আমার চিন্তা-দর্শনও বলা যেতে পারে। আমি ভালো ভালো কিছু কাজ করার চেষ্টা করছি এবং সামনেও সেরকম কিছু প্রজেক্ট আছে। যেগুলোতে আমি নিজের সর্বোচ্চ পরিশ্রম ও মেধা দেওয়ার ট্রাই করছি।’