August 13, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, July 24th, 2022, 8:47 pm

শেষ ম্যাচ জিততে চায় আবাহনী

অনলাইন ডেস্ক :

গত কয়েক বছরে ঐতিহ্যবাহী আবাহনী লিমিটেডের বড় প্রতিপক্ষ হয়ে উঠেছে বসুন্ধরা কিংস। বর্তমানে এই দু’দলের লড়াই মানে রোমাঞ্চকর কিছু দেখার অপেক্ষা। এরইমধ্যে প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা নিশ্চিত হয়ে গেছে। বসুন্ধরা হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন আর রানার্সআপ আবাহনী। অবশ্য শিরোপা নিষ্পত্তি হয়ে গেলেও এই দুই জায়ান্টের মধ্যকার ফিরতি পর্বের ম্যাচ এখনও বাকি। কাল সোমবার বিকালে বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনাতে দুই দল মুখোমুখি হবে। এই ম্যাচের ফল প্রভাব ফেলবে না যদিও, কিন্তু লড়াইটার মধ্যে ‘সম্মান’ জড়িয়ে আছে আবাহনীর। আকাশি-নীল জার্সিধারীরা তাই ‘সম্মানের লড়াই’ জিতে তৃপ্ত থাকতে চাইছে। ২০ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গেছে বসুন্ধরা কিংস। সমান ম্যাচে ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে তারপরই অবস্থান আবাহনীর। বাদশা-জীবনরা শিরোপা জিততে না পারলেও চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে এখন সান্ত¡না পুরস্কার পেতে চাইছে। দলটির পর্তুগিজ কোচ মারিও লেমস সংবাদমাধ্যমের কাছে তেমনটিই বলতে চাইলেন, ‘আমাদের তো হারানোর কিছু নেই। বসুন্ধরা বড় প্রতিপক্ষ। এবারও তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। আমরা চাইবো তাদের হারাতে। এর জন্য সবাই প্রস্তুত আছে।’ এমন ম্যাচে আবার চার বিদেশিকে মাঠে পাচ্ছে আবাহনী। দুই ব্রাজিলিয়ানের সঙ্গে ইরান ও কোস্টারিকার ফুটবলার রয়েছেন। তবে ডিফেন্ডার টুটুল হোসেন বাদশার চোট থাকায় তার খেলা অনিশ্চিত। এখন দলে যে শক্তি বিদ্যমান সেটি নিয়েই লড়াই করতে চাইছেন ৩৬ বছর বয়সী কোচ, ‘বাদশাকে পাওয়া কঠিন হবে। তবে চার বিদেশি নিয়ে আমরা মাঠে নামবো। সুযোগ পেলে লক্ষ্যভেদ করার পরিকল্পনা। আশা করছি এই ম্যাচ জিতে আসতে পারবো।’ সম্মানের কথা এজন্যই বলা হচ্ছে- দুই দলের মুখোমুখি পরিসংখ্যানে বেশ এগিয়ে বসুন্ধরা। ৮ ম্যাচ খেলেছে দুই দল। এরমধ্যে বসুন্ধরা চারটিতে জিতেছে, ড্র হয়েছে দুটি। হার দুটিতে। সবশেষ লিগের প্রথম পর্বে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে এগিয়ে থেকেও ২-২ গোলে ড্র করেছে আবাহনী। অপর দিকে এই মৌসুমে স্বাধীনতা কাপে আবাহনীর কাছে ৩-০ গোলে হারের তিক্ত স্বাদ পেয়েছে বসুন্ধরা। তাই লিগ শিরোপা জিতেও আবাহনীকে ছাড় দিতে চাইছে না কিংস। চ্যাম্পিয়নরা ম্যাচটাকে এতটা গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে যে দুই তরুণ ডিফেন্ডার ইয়াসিন আরাফাত ও রিমন হোসেনকে অনূর্ধ্ব-২০ দলের জন্যও ছাড়েনি। ইয়াসিন তো আগেই বলেছেন, ‘আমরা সব ম্যাচ জেতার জন্য মাঠে নামি। আবাহনীর বিপক্ষেও জেতার লক্ষ্য আমাদের।’