February 9, 2023

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, January 16th, 2023, 8:23 pm

শ্রীলঙ্কাকেও হারালো বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক :

১৬৫ রানের বড় স্কোর গড়েও কঠিন চাপের মুখে পড়েছিল বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত চাপকে জয় করে শেষ হাসি হেসেছে দিশা বিশ্বাসের দল। তাতে অনূর্ধ্ব-১৯ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার পর শ্রীলঙ্কাকে ১০ রানে হারিয়ে গ্রুপ (এ) চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে বাংলাদেশ অনেকটাই এগিয়ে গেছে। বেনোনির উইলোমুর পার্ক স্টেডিয়ামে আগে ব্যাটিং করে লঙ্কানদের ১৬৬ রানের লক্ষ্য দেয় বাংলাদেশ। কঠিন সেই লক্ষ্যে খেলতে নেমে লঙ্কানরা শুরুতেই দুই ওপেনারকে হারিয়ে চাপে পড়ে যায়। ২৪ রানে দুই ব্যাটারকে হারানোর পর তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক বিশমি গুনারত্নে ও দেউমী বিহঙ্গ মিলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার চেষ্টা করছিলেন। শ্রীলঙ্কা ১৬ ওভারে ১২০ রানও তুলে ফেলেছিল। ১৭তম ওভারের দ্বিতীয় বলে দেউমি বিহঙ্গকে তুলে নিয়ে মারুফা ৯৬ রানের জুটি ভাঙলে ম্যাচটা ফের ঝুঁকে পড়ে বাংলাদেশের দিকে। এক প্রান্তে থেকে লঙ্কান অধিনায়ক গুনারত্নে শেষ চেষ্টা চালিয়ে গেছেন। তবে তার সেই চেষ্টা সফল হয়নি। শেষ ওভারে রান আউট হন লঙ্কান অধিনায়ক। ফেরার আগে ৫২ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন গুনারত্নে। তার আউটের পর শ্রীলঙ্কার ইনিংস থামে ১৫৫ রানে। বাংলাদেশ ম্যাচ জেতে ১০ রানে। বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে মারুফা আক্তার ১৯ রানে সর্বোচ্চ দুটি উইকেট নিয়েছেন। এ ছাড়া দিশা বিশ্বাস নেন একটি উইকেট। এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ পাওয়া বাংলাদেশের শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। দুই ওপেনার আফিয়া প্রত্যাশা ও মিষ্টি শাহা মিলে ৭৫ রানের জুটি উপহার দিয়েছেন। হার্ডহিটার ব্যাটার প্রত্যাশা লঙ্কান পেসার নেত্রাঞ্জলির বলে বোল্ড হলে ভাঙে ওপেনিং জুটি। প্রত্যাশা ৪৩ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় ৫৩ রান করে আউট হয়েছেন। সঙ্গীকে হারিয়ে ২৪ বলে ১৪ রান করে রান আউটের শিকার হন মিষ্টি শাহাও। এরপর তৃতীয় উইকেটে দিলারা আক্তার ও স্বর্ণা আক্তারের অবিচ্ছিন্ন ৮৬ রানের জুটিতে ১৬৫ রান করে বাংলাদেশ। স্বর্ণা ২৮ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় বেনোনিতে ঝড় তুলে ৫০ রানের ইনিংস খেলেছেন। শেষ ওভারে মাইলফলকে পৌঁছার জন্য স্বর্ণার প্রয়োজন ছিল ১১ রান। ২ চার, এক সিঙ্গেল ও এক ডাবলে স্বর্ণা হাফসেঞ্চুরির মাইলফলকে পৌঁছেছেন। দিলারা ২৭ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় খেলেন অপরাজিত ৩৬ রানের ইনিংস। লঙ্কান বোলারদের মধ্যে একমাত্র উইকেটটি শিকার করেন নেত্রাঞ্জলি।